kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রোনালদো-বেলকে ছাড়াই রিয়ালের জয়ের ধারা অব্যাহত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:৩৬



রোনালদো-বেলকে ছাড়াই রিয়ালের জয়ের ধারা অব্যাহত

দুই তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও গ্যারেথ বেলকে ছাড়াই লা লিগায় এস্পানেয়লের বিপক্ষে রোববার ২-০ গোলের জয় তুলে নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এই নিয়ে লীগে টানা ১৬তম জয়ের মুখ দেখলো গ্যালাকটিকোরা।

প্রথমার্ধের স্টপেজ টাইমে হামেস রদ্রিগেজের গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল। ম্যাচ শেষে ২০ মিনিট আগে জয়সূচক গোলটি করে ফ্রেঞ্চ মিডফিল্ডার করিম বেনজেমা। এই জয়ে রিয়াল পূর্ণ তিন পয়েন্ট সংগ্রহ করে চার ম্যাচে শতভাগ সাফল্য নিয়ে লা লিগা টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা তিন পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। ২০১০/১১ মৌসুমে পেপ গার্দিওলার অধীনে বার্সেলোনাও লীগে টানা ১৬টি ম্যাচে জয়ের রেকর্ড করেছিল।

ম্যাচ শেষে উচ্ছসিত মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান বলেছেন, ‘হামেস ও করিমের গোলদুটিতে জয় নিশ্চিত হওয়ায় আমি দারুন খুশী। কিন্তু পুরো দলের পারফরমেন্সে চোখে পড়ার মত কিছু ছিল না। দলে প্রতিভা আছে, এটাই ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে তাদের আরো পরিশ্রম করতে হবে যা তারা আগে করে দেখিয়েছে। ’

অসুস্থ রোনালদো ও ইনজুরি আক্রান্ত বেলকে ছাড়া রিয়ালের শুরুটা ছিল কিছুটা ধীর গতির। অধিনায়ক সার্জিও রামোস অবশ্য ম্যাচ শুরুর দুই মিনিট আগে ভাগ্যক্রমে লাল কার্ড পাওয়া থেকে বেঁচে যান। হার্নান পেরেজের শট রামোসের হাতে লাগলে রেফারী আলেহান্দ্রো হার্নান্দেজ শুধুমাত্র হলুদ কার্ড দিয়ে সতর্ক করে দেন। এই নিয়ে রিয়ালের সাথে শেষ নয়বারের মোকাবেলায় সবকটিতেই হারের তিক্ত স্বাদ নিল এস্পানেয়ল। অথচ প্রথমার্ধেই দারুন এক সুযোগ নষ্ট করেন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার লিও ব্যাপটিস্তা। পেপের বাজে ডিফেন্সের সুযোগে গোল এরিয়ার মধ্যে বল পেয়েও কিকো ক্যাসিয়াকে পরাস্ত করতে পারেননি লিও। এদিকে ১৩৩ দিন পর প্রথম মূল একাদশে সুযোগ পেয়ে নিজেকে প্রমানে ব্যস্ত ছিলেন রদ্রিগেজ। গত সপ্তাহে স্পোর্টিং লিসবনের বিপক্ষে হামেসের শেষ মুহূর্তের গোলে মাদ্রিদের জয় নিশ্চিত হয়েছিল। সেটাই হয়ত জিদানের মনে কাজ করেছে। জিদানের দলে যদিও বেশীরভাগ সময়ই এই কলম্বিয়ানকে মধ্যমাঠ সামলাতে হয়েছে। কিন্তু কাল রোনালদো ও বেলের অনুপস্থিতিতে দলের আক্রমণের মূল কান্ডারি হিসেবেই তিনি মাঠে নেমেছিলেন। আর এই সিদ্ধান্তে কোচকে মোটেই হতাশ হতে হয়নি। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে বাম পায়ের জোরালো শটে দলকে এগিয়ে দেন হামেস।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য প্রথম থেকেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ চলে যায় মাদ্রিদের কাছে। বেনজেমার ভলি দূর্দান্তভাবে আটকে দিয়ে সাবেক রিয়াল গোলরক্ষক দিয়েগো লোপেজ ব্যবধান দ্বিগুণ হতে দেননি। বক্সের বাইরে থেকে বেনজেমার আরেকটি শট রক্ষা করেন লোপেজ। কিন্তু ৭০ মিনিটে ফ্রেঞ্চম্যানকে আর হতাশ হতে হয়নি। রাইট উইঙ্গার লুকাস ভাজকুয়েজের লো ক্রস পোস্টের সামনে থেকে গোলে পরিণত করেন বেনজেমা।

দিনের অপর ম্যাচে ভ্যালেন্সিয়া এগিয়ে থেকেও এ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয়ে টেবিলের তলানিতে নেমে গেছে। একমাত্র দল হিসেবে ভ্যালেন্সিয়া এবারের মৌসুমে প্রথম চার ম্যাচের একটিতেও জয় পায়নি। এদিকে নিকোলা সানসোনেসের প্রথমার্ধের দুই গোলে ভিয়ারেল রিয়াল সোসিয়েদাদকে ২-১ গোলে পরাজিত করলেও সেল্টা ভিগো ওসাসুনার সাথে গোলশুন্য ড্র করে মৌসুমের প্রথম পয়েন্ট তুলে নিয়েছে।


মন্তব্য