kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইতিহাসের সবচেয়ে বিরক্তিকর ব্যাটসম্যান কে?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১১:১০



ইতিহাসের সবচেয়ে বিরক্তিকর ব্যাটসম্যান কে?

বব টেলর : ইতিহাসের সবচেয়ে বিরক্তিকর ব্যাটসম্যান!

টেস্ট ক্রিকেট দেখতে দেখতে মাঠে ঘুমিয়ে পড়ার দৃশ্য আগে বেশ দেখা যেতো টেলিভিশনের পর্দাতেও। এতটাই শম্বুক ছিল খেলার গতি।

ব্যাটসম্যানদের গতি। এখন হয়ত টেস্ট ক্রিকেটের গতি বেড়েছে। কিন্তু টেস্ট তো আসলে সময় নিয়ে খেলা। ধৈর্যের আসল পরীক্ষার খেলা। তাই এই প্রশ্নটাও আসতে পারে যে টেস্ট ইতিহাসের সবচেয়ে বিরক্তিকর ব্যাটসম্যান ছিলেন কে? জবাব মেলাটা কঠিন।

একসময় টেস্ট ছিল টাইমলেস। মানে সময় বাঁধা ছিল না। এখন যেমন ৫ দিনের খেলা ছিল তেমন ছিল না তখন। দেখা গেল ৭/৮ দিনের খেলা শেষ। ফল হয়নি। এমন সময় জাহাজ ছেড়ে যাবে। তাই সফরকারী দল খেলা ওখানে গুটিয়ে রেখে সোজা বন্দরে। আর ওইসব দিনগুলোর নির্ভরযোগ্য পরিসংখ্যন মেলা প্রায় অসম্ভব।

গেল ৩০-৪০ বছর ধরে পরিসংখ্যান রাখাটা এক রীতি হয়েছে। যেটিতে জোর দেওয়া হয় খুব। তো আগের দিনগুলোতে ব্যাটসম্যানদের অনেকে রীতিমতো পাহাড়ের মতো অনড়-অব্যয় হয়ে থাকতেন ক্রিজে। ইংল্যান্ডের উইলিয়াম স্কটোনের কথাই ধরুন। এই বাঁ হাতি একবার ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচে পুরো ইনিংসে ব্যাট ক্যারি করেছিলেন। অপরাজিত ছিলেন কত রানে? মাত্র ৯!

১৯৫০ এর দিকে ট্রেভর বেইল ইংল্যান্ডের ডিফেন্স মাস্টার ব্যাটসম্যান ছিলেন। ব্রিসবেন টেস্টে ১৮৫৮-৫৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪৫৮ মিনিট খেলে ৬৮ রান করেছিলেন। ওই ম্যাচেই দর্শকের পীড়ার আরো বড় কারণ হয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান জিম বার্ক। ২৫০ মিনিটে করেছিলেন ২৮ রান।  

কিন্তু যে নির্ভরযোগ্য তথ্য পাওয়া যায় সেই রেকর্ডটা নাড়াচাড়া করে দেখা যাক। দেখা যাচ্ছে টেস্টে ১০০০ রান করাদের মধ্যে সবচেয়ে ধীর গতিতে রান করার রেকর্ডটি বব টেলরের। ১৯৭০-৮০ তে ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক ছিলেন তিনি। ১১৫৬ রান তিনি করেছিলেন ৪২৬০ বল খেলে। ১০০ বলে ২৭.১৪ রান। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানেও ইংলিশ ব্যাটসম্যান। বিখ্যাত অধিনায়ক মাইক বিয়ারলির ক্যারিয়ার স্ট্রাইক রেট ২৯.৮০। ক্রিস টেভারের ৩০.৬০।

এরপরের জায়গায় অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক বিল উডফুল। ১০০ বলে ৩১.১২ রান করার রেকর্ড তার। নিউজিল্যান্ডের ব্রুস এডগার ৩২.০৭ নিয়ে এর পরই। ওয়ানডেতেও বিয়ারলি পিছিয়ে থাকাদের নেতা! যদিও এই সংস্করণে মাত্র ৫১০ রান করেছিলেন। খেলেছিলেন ১১২০ বল। ৪৫.৫৪ স্ট্রাইক রেট। ১০০০ রানের বেশি করা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এই ধীরগতির ব্যাটিংয়ে এক নম্বরে এডগার। তার স্ট্রাইক রেট ৪৯.২৩।


মন্তব্য