kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মার্কিন অলিম্পিয়ানদের বিরুদ্ধে রুশ হ্যাকারদের ডোপিংয়ের অভিযোগ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৪:০৮



মার্কিন অলিম্পিয়ানদের বিরুদ্ধে রুশ হ্যাকারদের ডোপিংয়ের অভিযোগ!

ক্রীড়াবিশ্বে হইচই ফেলে দিয়েছে রাশিয়ার হ্যাকার দল 'ফ্যান্সি বিয়ারস'। মার্কিন অলিম্পিক অ্যাথলেটদের মেডিসিন ডেটা তারা চুরি করেছে।

তারপর প্রকাশ করে দিয়েছে। এর মধ্যে আছে এবার রিও অলিম্পিকে ৪টি সোনাসহ ৫টি পদক জেতা টিনএজার জিমন্যাস্ট সিমিওনে বাইলস, দুই টেনিস তারকা বোন সেরেনা উইলিয়ামস ও ভেনাস উইলিয়ামসের তথ্য।

বিশ্ব অ্যান্টি-ডোপিং এজেন্সি (ওয়াডা) দ্রুত এই ঘটনায় বিবৃতি দিয়েছে। রুশ হ্যাকাররা তাদের ডেটাবেইস থেকেই চুরি করেছে তথ্য। ফ্যান্সি বিয়ারসের দাবি, ওয়াডার কাছ থেকে নিষিদ্ধ ড্রাগ ব্যবহারের লাইসেন্স নিয়ে প্রতিযোগিতা করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাথলেটরা।

তথ্য প্রকাশের পর বাইলস জানিয়েছেন মনোযোগ ধরে রাখার জন্য মেডিসিন নেন তিনি। হ্যাকাররা অবশ্য অভিযোগ করেছে, অবৈধ ড্রাগ নিচ্ছেন বাইলস। কিন্তু বাইলস বলেছেন তিনি আইন মেনেই মেডিসিন নেন। মার্কিন জিমন্যাস্টিক্স সংস্থা জানিয়েছে, বাইলসকে যে মেডিসিন দেওয়া হয় তা ওয়াডার অনুমোদনক্রমেই।

ওয়াডা বিবৃতিতে বলেছে, বিশ্বের অ্যান্টি ডোপিং সিস্টেমকে ভেঙে দিতেই এই সাইবার অ্যাটাক হয়েছে। হ্যাকাররা মূলত প্রকাশ করেছে ওয়াডা বিশেষ ব্যবস্থায় যে সব নিষিদ্ধ ড্রাগ ব্যবহারে ছাড় দেয় সেগুলো। যথাযথ চিকিৎসার প্রয়োজনে এই অনুমতি দেয় তারা। প্রকাশ করা তথ্যে দেখা যায় সেরেনা অলিম্পিকে পেশির ইনজুরির জন্য নিষিদ্ধ ড্রাগ ব্যবহার করেছেন।

রাশিয়ান সরকারের মুখপাত্র জানাচ্ছে, ক্রেমলিন বা তাদের গোয়েন্দা সংস্থার এই হ্যাকিংয়ে কোনো দায় নেই। বিশেষজ্ঞরা মানছেন এভাবে প্রতিশোধ নেওয়ার চেষ্টা করেছে রুশ হ্যাকাররা। কারণ, সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় ড্রাগ ব্যবহারের দায়ে এবারের অলিম্পিকে রাশিয়ার একটি বড় অ্যাথলেট দলকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে দেওয়া হয়নি। যার প্রভাব পড়েছে তাদের পদক তালিকায়।


মন্তব্য