kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নিজের খেলোয়াড় ও রেফারিকে দুষলেন মরিনহো

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:৫৪



নিজের খেলোয়াড় ও রেফারিকে দুষলেন মরিনহো

গেলবার চেলসির সাথে বড় বাজে সময় কেটেছে হোসে মরিনহোর। স্বঘোষিত দ্য স্পেশাল ওয়ান শেষ পর্যন্ত বরখাস্তই হয়েছেন।

তখন খেলোয়াড়দের ওপর বারবার ক্ষোভ ঝারতে দেখা গেছে এই পর্তুগিজকে। এবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ হিসেবে প্রথম পরীক্ষাতেই ফেল করেছেন। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার ডার্বিতে ম্যানচেস্টার সিটির কাছে শনিবার হেরেছে মরিনহোর ক্লাব। আর ওই হারের জন্য খেলোয়াড়দের দুষেছেন মরিনহো। সেই সাথে রেফারির তীব্র সমালোচনা করতেও ছাড়েননি।

মরিনহোর মতে রেফারি মার্ক ক্ল্যাটেনবার্গের লাল কার্ড দেখানো উচিৎ ছিল ম্যানচেস্টার সিটির অভিষিক্ত গোলরক্ষক ক্লদিও ব্রাভোকে। পেনাল্টি দেওয়া উচিৎ ছিল ম্যানইউকে। কোনোটাই করেননি রেফারি।

মরিনহো তার খেলোয়াড়দের প্রসঙ্গ টেনে বলেছেন, "আমি তো আসলে ২০ মিনিটের মধ্যেই বদলী নামাতে চাই না। খেলোয়াড়দের ধ্বংস করা ইচ্ছে আমার নেই। বিরতির সময় তিনটি পরিবর্তন আনার ইচ্ছে আমার ছিল না। কিন্তু এখানে খুশি মতো পরিবর্তন করা গেলে ২০ মিনিট পরই তা শুরু করতাম। আমি কিছু সিদ্ধান্ত (একাদশ নিয়ে) নিয়েছিলাম। ভেবেছিলাম খেলোয়াড়রা আমার প্রত্যাশা পূরণ করবে। তা পাইনি আমি। " রেফারি পেনাল্টি ও লাল কার্ডের সিদ্ধান্ত নিলে ২-২ এর সম্ভাবনা জাগতো বলে দাবি মরিনহোর।

কেভিন ডি ব্রুইনের পর কেলেচি ইহেনাচো গোল করেছিলেন। পরে ব্রাভোর ভুল থেকে বল জালে জড়িয়েছেন জাতান ইব্রাহিমোভিচ। তবে এটি ছিল ডাগ আউটের লড়াইও। ম্যানচেস্টার সিটির কোচ এই মৌসুমেই হয়েছেন পেপ গার্দিওলা। কোচের লড়াই মরিনহোর সাথে আগের ১৬ দেখায় ৮ জয় এই স্প্যানিয়ার্ডের। মরিনহো জিতেছেন মোটে তিনবার। এবারও শেষ হাসি গার্দিওলার। লিগে তিন ম্যাচ জিতে প্রথম হারলো ম্যানইউ। জয়ের শতভাগ রেকর্ড ধরে রাখলো ম্যানসিটি।  


মন্তব্য