kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টেলিফোন অপারেটর থেকে ম্যানইউর সেরা ডিফেন্ডার এরিক!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:২৯



টেলিফোন অপারেটর থেকে ম্যানইউর সেরা ডিফেন্ডার এরিক!

এরিক বেইলিকে চেনেন তো? না চিনলে চিনে রাখুন। ইউরোপিয়ান ফুটবল দেখতে বসলে এখন থেকে বারবার আসবে তার নাম।

১৪ বছর বয়সে ছিলেন টেলিফোন বক্স অপারেটর। ২০১১ সাল পর্যন্ত কোনো প্রতিযোগিতামূলক একাদশে খেলার অভিজ্ঞতা ছিল না। সেই ছেলে এখন ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সেনসেশন! ২২ বছরের এই আইভোরিয়ান ডিফেন্ডার আলোচনায় তো থাকবেনই।

দলে কতো তারকা। জাতান ইব্রাহিমোভিচ, পল পগবা, দাভিদ দি গিয়া আরো কতজন। কিন্তু সব ছাপিয়ে গত চার ম্যাচের তিনটিতে ক্লাবের 'ম্যান অব দ্য ম্যাচ' এরিক। আগস্ট মাসের ক্লাব সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও জিতেছেন। ম্যানইউর মতো বড় দলের সাথে মানিয়ে নিয়েছেন বড় দ্রুত। ২৭০ মিনিট খেলে দলের নির্ভরতা বাড়িয়েছেন খুব।

'দ্য স্পেশাল ওয়ান' কোচ হোসে মরিনহো এই মৌসুমেই ম্যানইউর দায়িত্ব নিয়েছেন। এবং তার প্রথম সই করা খেলোয়াড় এরিক। ৩০ মিলিয়ন পাউন্ডে স্পেনের ভিয়ারিয়াল থেকে নিয়ে এসেছেন। স্প্যানিয়ার্ড গোলরক্ষক দি গিয়ার ভাষায়, "অসাধারণ সাইনিং। "

আইভোরি কোস্টের রাজধানী আবিদজানে ১৯৯৪ সালে জন্ম এরিকের। বাবা শিক্ষক, মা পোষাকের দোকানের কর্মচারী। স্বচ্ছল পরিবার। কিন্তু ফুটবলের টানে ১৪ বছর বয়সে পড়ালেখা ছাড়লেন এরিক। একটি টেলিফোন বক্স অপারেটরের চাকরি নিলেন। পাশাপাশি অনুশীলন। কিন্তু সুবিধা নেই কোনো।

স্প্যানিশ একটি প্রতিভা অন্বেশন এজেন্সির সূত্রে ২০১১ সালের ডিসেম্বরে এসপানিওলে নাম লেখালেন এরিক। কত টাকায়? ১৪,৫০০ পাউন্ডের চুক্তি। বেতন ছিল না। সামান্য বোনাস। আর ট্রান্সফারের ক্ষুদ্র ভাগ। ২০১৪ সালের শেষে এসপানিওলের প্রথম দলে খেলার সুযোগ পান এরিক। ৫টি ম্যাচ খেলেন। পরের মৌসুমে ভিয়ারিয়ালে যোগ দেন ৫.৭ মিলিয়ন পাউন্ডে। ৩৫ ম্যাচ খেলেন। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে এক ম্যাচে বোতলবন্দী করেছিলেন। লিওনেল মেসির বিপক্ষেও ভালো খেলেছেন। গত বছর জাতীয় দলে ঢুকে ১৬টি ম্যাচ খেলেছেন এক নাগাড়ে।

বার্সেলোনা, বরুশিয়া ডর্টমুন্ড, ম্যানইউর আগ্রহ জন্মায়। এরিক একদিন মরিনহোর ফোন পান। অপেক্ষা করেননি 'হ্যাঁ' বলতে। সেরা খেলোয়াড়দের সাথে সেরা কোচের সাথে সেরা ক্লাবে এরিকের তো এখন শুধু আলো ছড়ানোরই দিন।   


মন্তব্য