kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শিষ্যদের সঙ্গে যেমন কাটল ওয়ালশের প্রথম দিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:১৫



শিষ্যদের সঙ্গে যেমন কাটল ওয়ালশের প্রথম দিন

কোচ হিসেবে তিনি নতুন। কিন্তু তিনি কিংবদন্তি।

বিশ্বের অবিস্মরণীয় পেসারদের মধ্যে তিনি অন্যতম। এসেছেন শক্তিশালী হয়ে ওঠা বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ হিসেবে। এই কিংবদন্তিকে ঘিরে তাই অন্যরকম উচ্ছাস সবার মধ্যে। তার সান্নিধ্য লাভের জন্য মুখিয়ে ছিলেন ক্রিকেটাররা। অবশেষে এল সেই মহেন্দ্রক্ষণ। মিরপুরে হোম গ্রাউন্ড অব ক্রিকেটে শিষ্যদের সঙ্গে প্রথমবারের মত সাক্ষাত হলো কোর্টনি ওয়ালশের।

ম্যাশ বাহিনীর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করে শুরু হয় তার বাংলাদেশ ইনিংস। এগিয়ে এসে হাত মেলান নন্দিত টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি। যিনি নিজেও ওয়ালশকে আইডল মানেন। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে ওয়ালশ বলেছিলেন এদেশে তিনি এসেছেন আরও এক বা একাধিক কার্টলি অ্যামব্রোস তৈরি করতে। সেই সময়ে ক্রিকেট বিশ্বের ত্রাস ছিল ওয়ালশ-অ্যামব্রোস জুটি ছিল ব্যাটসম্যনদের আতঙ্ক। আর বর্তমানে ব্যটসম্যানদের জন্য সবচেয়ে বড় আতঙ্ক আছে বাংলাদেশের ঘরেই। তিনি ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজ। ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে অপারেশনের পর এখন বিশ্রামে আছেন কাটার মাস্টার। তার সঙ্গে গুরুর সাক্ষাত এখনও হয়নি।  সাক্ষাত হলো মাশরাফি, গতিদানব রুবেল হোসেন, আল আমিন হোসেন ও জাতীয় দলে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা ডানহাতি পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বির সঙ্গে।

প্রথমদিন বলেই অতটা গুরুত্ব ছিল না ট্রেনিংয়ে। যা ছিল তা হলো পরিচয়পর্ব। সকলের সঙ্গে কথা বলে ওয়ালশ নিশ্চয়ই বুঝে নেওয়ার চেষ্ঠা করলেন প্রত্যেককে। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সঙ্গে তার পরিচয় আগে থেকেই। সিপিএলএ জ্যামাইকা তালাওয়াসে খেলেছিলেন সাকিব। পুরনো পরিচিতের সঙ্গে নিজ দেশে নতুনভাবে পরিচিত হতে তিনিও ছিলেন মিরপুরে। এই ক্যারিবীয় কিংবদন্তির সঙ্গে পরিচিত হতে এসেছিলেন বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

অনেক ক্রিকেটারই নিজেদের ফেসবুক পেইজে এই সাবেক গতিদানবের সঙ্গে সাক্ষাতের ছবি পোস্ট করেছেন।  সকলের অভিব্যাক্তি দেখে মনে হলো প্রথমদিনেই কোচ হিসেবে সবার মন জয় করে নিয়েছেন ওয়ালশ। সামনেই দুটি সিরিজ। এই কয়দিনে শিষ্যদের কতটুকু তালিম দিতে পারেন তা সময়ই বলে দেবে।


মন্তব্য