kalerkantho


ইংলিশদের বাউন্ডারি ঠেকানোর চ্যালেঞ্জ দিল ক্যারিবিয়ানরা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ এপ্রিল, ২০১৬ ১৯:৪৮



ইংলিশদের বাউন্ডারি ঠেকানোর চ্যালেঞ্জ দিল ক্যারিবিয়ানরা!

ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়রা দৌড়ায় কম, বাউন্ডারি মারে বেশি। কথাটা প্রবাদের মতো এখন।

বিশেষ করে ক্রিকেটেরে সবচেয়ে ছোটো সংস্করণে চার-ছক্কায় ক্যারিবিয়ানরাই দেয় সবচেয়ে বেশি বিনোদন। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠার পথেও চার-ছক্কা ফুলঝুরি ছুটিয়েছে তারা। আর কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে রবিবারের শিরোপা লড়াইয়ে ইংল্যান্ডকে বাউন্ডারি ঠেকানোর চ্যালেঞ্জ দিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি!

ক্রিস গেইল প্রথম ম্যাচে ৪৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই। ওই ম্যাচে ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন ১১টি! এরপর লেন্ডল সিমন্স দেশ থেকে উড়ে এসে ভারতকে সেমিফাইনালে হারিয়ে দিলেন। ৫১ বলে ৮২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেললেন। ছক্কা মারলেন ৫টি। এবারের বিশ্বকাপে ৫ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ছক্কার সংখ্যা কতো জানেন? ৩৬টি। সবার চেয়ে বেশি। তাদের কাছাকাছি ছক্কা মারার রেকর্ডটা অবশ্য ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ডেরই।

তারা ছক্কা মেরেছে ৩৪টি। চার মারার ক্ষেত্রে সবার আগে অবশ্য ইংলিশরা। তাদের বাউন্ডারি ৭৮টি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ টুর্নামেন্টে দ্বিতীয়। তাদের বাউন্ডারি ৬১টি।

ফাইনালে এটা একটা বড় ফ্যাক্টর হয়ে উঠতে পারে। ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক স্যামি তো তাদের বাউন্ডারি মারার চ্যালেঞ্জ সামলাতে বললেন ইংল্যান্ডকে, "আমরা জানি যে আমরা বাউন্ডারি হাঁকানো দল। সবার আগে আপনার আমাদের বাউন্ডারি মারা ঠেকাতে হবে। এবং আমরা একবার শুরু করলে তা প্রতিপক্ষের জন্য ঠেকানো কঠিন। " টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ছক্কা হাঁকানোর রেকর্ড গেইলের। ৯৮টি মেরেছেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি মারলেই প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ক্রিকেটের সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত সংস্করণে একশো ছক্কার রেকর্ড হবে তার।  


মন্তব্য