kalerkantho


ডেথ বোলার হিসেবে নিজের ভূমিকা উপভোগ করছেন স্টোকস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ মার্চ, ২০১৬ ২০:২২



ডেথ বোলার হিসেবে নিজের ভূমিকা উপভোগ করছেন স্টোকস

ডেথ বোলার হিসেবে দলীয় ভূমিকা তিনি দারুনভাবে উপভোগ করছেন বলে জানিয়েছেন ইংল্যান্ডের ‘আইস কুল’ অল রাউন্ডার বেন স্টোকস। তার শ্বাসরুদ্ধকর পারফর্মেন্সের কল্যানে টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সেমি-ফাইনালে পৌঁছে গেছে ইংল্যান্ড।
শনিবার নয়া দিল্লিতে অনুষ্ঠিত গ্রুপ পর্বের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে শেষ ওভারে জয়ের জন্য শ্রীলংকার প্রয়োজন ছিল মাত্র ১৫ রান। এ সময় আগ্রাসী মেজাজে ব্যাট চালাচ্ছিলেন উইকেটে থিতু হওয়া লংকান অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। এমন এক পরিস্থিতিতে ২০তম ওভারের বল করার জন্য এগিয়ে আসেন স্টোকস।
স্পিনার মঈন আলী ও আদিল রশিদ যেখানে নিজেদের শেষ ওভারে বেধড়ক মার খেয়েছে সেখানে শেষ ওভারে নিয়ন্ত্রিত ইয়র্কার বোলিংয়ে মাধ্যমে মাত্র চার রান দিয়ে ইংলিশদের বিজয় নিশ্চিত করেন স্টোকস। যার ফলে শেষ চারে পৌছে যায় ইংল্যান্ড।
আগামী বুধবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমি-ফাইনাল ম্যাচকে সামনে রেখে ২৪ বছর বয়সী এই ইংলিশ তারকা বলেন, ‘এ পর্যন্ত ডেথ ওভারে আমি যেভাবে বল করেছি, আগামীতে এর চেয়েও ভাল করার প্রত্যাশ করছি। চরম চাপের মুহুর্তে আমি খেলার মধ্যে থাকতে পছন্দ করি। মনে হয় আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারে আরো সেরাটা তুলে আনতে পারব। খেলার সেরা মুহুর্তটি আমি উপভোগ করি। ’
সুপার টেন পর্বের শুরুতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে পরাজিত হওয়ায় হুমকির মুখে পড়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ডের শেষ চারে খেলার সুযোগ। এর ফলে গ্রুপ পর্বের বাকী তিনটি ম্যাচেই জয় অনিবার্য হয়ে পড়ে দলটির। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ শ্রীলংকা, আফগানিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকা। এর আগে ২০১০ সালেও প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে পরাজিত হয়েছিল ইংল্যান্ড। তবে ক্যারিবীয় অঞ্চলে অনুষ্ঠিত ওই আসরের শিরোপাটি শেষ পর্যন্ত ঘরে তুলেছিল পল কলিংউডের নেতৃত্বাধীন দলটি। যা এখনো পর্যন্ত ইংল্যান্ড দলের সেরা অর্জন।
২০১১ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষিক্ত হওয়া স্টোকস বর্তমানে ইংল্যান্ড দলের আরো গুরুত্বপূর্ণ সদস্যে পরিণত হয়েছেন। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইসচার্চে জন্মগ্রহন করা এই তারকার মতে কিউইরা কোনভাবেই ইংল্যান্ডকে হাল্কাভাবে নিতে পারবেনা। প্রসঙ্গক্রমে বিশ্বকাপের অনুশীলন ম্যাচে তাদের পরাজয়ের স্বাদ নিতে হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। স্টোকস বলেন, ‘তারা (নিউজিল্যান্ড) অবশ্যই ফর্মে রয়েছে। টুর্নামেন্টে এখনো পর্যন্ত একটি ম্যাচেও হার মানেনি ব্ল্যাক ক্যাপসরা। তবে অনুশীলন ম্যাচে আমরা তাদের পরাজিত করেছি। যেটি এখনো আমাদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে।
তবে আমরা যদি শ্রীলংকার বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ম্যাচের মত নিজেদের যোগ্যতার পরিস্ফুরণ ঘটাতে পারি তাহলে প্রতিপক্ষ কোন দল সেটি কোন ব্যাপার হতে পারবে না। যে কোন দলের বিপক্ষেই আমরা লড়াই করতে পারব। ’


মন্তব্য