kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

ভারত-অস্ট্রেলিয়ার বাঁচা-মরার লড়াই রবিবার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ মার্চ, ২০১৬ ২০:৩০



ভারত-অস্ট্রেলিয়ার বাঁচা-মরার লড়াই রবিবার

মোহালিতে রবিবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলতে নামছে ভারত ও অস্ট্রেলিয়া! চমকে গেলেন তো! এই বিশ্বকাপে তো কোয়ার্টার ফাইনাল নেই। তাহলে এই কথা কেন! আসলে ম্যাচটা হয়ে গেছে নক আউট। জয়ী দল যাবে সেমিফাইনালে। হারা দল ছিটকে পড়বে বিশ্বকাপ থেকে। তাহলে এটা কোয়ার্টার ফাইনাল নয়! রাত আটটায় শুরু হবে এই মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি।

গ্রুপ-১ এর শেষ ম্যাচ এটি। নিউজিল্যান্ড অপরাজিত থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। সেমিতে যাবে আর এক দল। ভারত-অস্ট্রেলিয়া খুব লম্বা পথ পাড়ি দিয়ে একে অন্যের মুখোমুখি হচ্ছে তা না। তবে স্বল্প দৈঘ্যের পথটা কঠিন ছিল বেশ। দুই দলের যাত্রায় মিলও আছে। দুই দলই নিজেদের প্রথম ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছে। দুই দলই পাকিস্তানকে হারিয়েছে। এবং দুই দলকেই আতঙ্কিত করেছিল বাংলাদেশ। ভারত তো বাংলাদেশের কাছে হারের মুখ থেকে ফিরেছে অতি নাটকীয় ১ রানের জয়ে। এবার এই দুই দলের একটির সেমিফাইনালে ওঠার পালা।

দুই দলের মধ্যে সবকিছুতে মিল আছে তা না। ভারতের নির্বাচকরা একই একাদশ ধরে রেখেছে বিশ্বকাপে। কোনো পরিবর্তন নেই। রবিবারও পরিবর্তনের আশা করা যাচ্ছে না। অস্ট্রেলিয়া প্রতি ম্যাচে পরিবর্তন এনেছে। ১৫ জনের দলের ১৪ জনকে খেলানো হয়ে গেছে। খেলেননি কেবল ফাস্ট বোলার অ্যান্ড্রু টাই।

এই দুই দল জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ায় যখন মুখোমুখি হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার অবস্থা এখনো তেমন। বিশ্বকাপের এই ১১ খেলোয়াড়কেই ওই সিরিজের ৩ ম্যাচে খেলিয়েছিল ভারত। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া ১৯ খেলোয়াড়কে চেষ্টা করেছে। তারপরও হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল তারা। ভারতে এই দুই দল শেষ মুখোমুখি হয়েছিল ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে। আহমেদাবাদের সেই ম্যাচ জেতার পর এমএস ধোনির দল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নও হয়েছিল।
 
খেলা মোহালিতে। যেখানে আগের ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪ উইকেটে ১৯৩ রান করেছিল অস্ট্রেলিয়া। তার মানে ওখানে রান আছে। যদিও স্বাগতিক ভারতের খেলা বলে হয়তো মন্থর উইকেট বেছে নেয়া হতে পারে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলা শেষ ৫ টি-টোয়েন্টিতে ভারত জিতেছে। শেষবার তারা হেরেছে ২০১২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে।

ভারতের বিরাট কোহলি এই সময়ে টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে ধারাবাহিক ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে বলেছেন, "এই সংস্করণের ক্রিকেটে মনযোগের চূড়ায় থাকতে হয়। ব্যাটিং বা ফিল্ডিংয়ের ১২০ বলেই সমান মন দিতে হয়। এটাই আমরা করতে চাই। " অস্ট্রেলিয়ার অভিজ্ঞ অল রাউন্ডার শেন ওয়াটসন শেষ সিরিজে ভারতের বিপক্ষে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। দলের সবাইকে স্বাভাবিক থাকার পরামর্শই দিয়েছেন তিনি, "গোটা ক্যারিয়ারে অনেক শিখেছি। এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ খেলা। কিন্তু এটাকে কেবল আরেকটি খেলা হিসেবে নিতে হবে আপনাকে। "   


মন্তব্য