kalerkantho


টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

পাকিস্তানের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার ১৯৩ রান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ মার্চ, ২০১৬ ১৭:০৯



পাকিস্তানের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার ১৯৩ রান

ইডেন গার্ডেন্সে ভারতের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটা খেলেছিলেন ওয়াহাব রিয়াজ। তারপর দুই ম্যাচ মিস করে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দলের বাঁচা-মরার লড়াইয়ে ফিরলেন।

পাকিস্তানকে ব্রেক থ্রু এনে দিয়েছিলেন এই পেসার। কিন্তু পাকিস্তানের বোলাররা তা ধরে রাখতে পারেনি। অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ (অপরাজিত ৬১) হাফ সেঞ্চুরি করেছেন। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের (৩০) পর শেন ওয়াটসনের (অপরাজিত ৪৪) ব্যাটও জ্বলেছে। তাতে অস্ট্রেলিয়া ৪ উইকেটে ১৯৩ রানের বড় সংগ্রহ গড়েছে।
 
মোহালিতে এই ম্যাচ হারলে পাকিস্তান বিদায় নেবে বিশ্বকাপ থেকে। অস্ট্রেলিয়াকে হারালে সামান্য আশা বেঁচে থাকবে। আর অস্ট্রেলিয়ার জয় মানে ভারতের বিপক্ষে তাদের শেষ ম্যাচটি আক্ষরিক অর্থেই কোয়ার্টার ফাইনাল হয়ে যাবে। টস জিতে শুরু থেকে মেরে খেলা অস্ট্রেলিয়া বড় রান করতে চেয়েছে। মাঝে খানিকটা গোত্তা খেলেও ঘুরে দাঁড়িয়ে আবার ছুটে চলেছে।

চতুর্থ ওভারে বল পেলেন ওয়াহাব। তাকে একটি ছক্কাও হাঁকিয়ে দিলেন উসমান খাজা। উসমানকে ২১ রানে বোল্ড করে প্রতিশোধ নিলেন ওয়াহাব। পরের ওভারে ফিরেই প্রথম বলে বিপজ্জনক ডেভিড ওয়ার্নারকে (৯) শিকার করে ফেললেন। ওয়াহাবের গতির কাছে হেরে বোল্ড ওয়ার্নার। ৪২ রানে ২ উইকেট হারানোর পর ৫৭ রানে গিয়ে আরেকটি ধাক্কা খায় অস্ট্রেলিয়া। এই ম্যাচে ফেরা অ্যারন ফিঞ্চকে (১৫) তুলে নিয়েছেন স্পিনার ইমাদ ওয়াসিম।

পরের ৬.২ ওভার একসাথে খেলেছেন স্টিভেন স্মিথ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ওভার প্রতি প্রায় ১০ এর কাছাকাছি রান তুলেছেন তারা। ৬২ রান করে বিচ্ছিন্ন হয়েছেন তারা। ম্যাক্সওয়েলে ১৮ বলে ৩০ রান করে গেছেন। পঞ্চম উইকেটে শেন ওয়াটসনকে সঙ্গী করে স্মিথ গড়েছেন ৭৪ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি। ওভারে প্রায় ১২ রান তুলেছেন তারা। স্মিথের চেয়ে বেশি আগ্রাসী ছিলেন ওয়াটসন। ২১ বলে ওয়াটসন ৪৪ রান করেছেন। মেরেছেন ৩টি ছক্কা ও ৪টি চার। স্মিথ ইনিংস সর্বোচ্চ ৬১ রানে অপরাজিত থেকেছেন। ৪৩ বলের ইনিংসে বাউন্ডারি ৭টি। শেষ চার ওভারে ওয়াটসন-স্মিথ জুটি ৫৮ রান তুলেছে। হয়তো আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন পাকিস্তানের শহীদ আফ্রিদি। ৪ ওভার বল করে ২৭ রান দিয়েছেন। উইকেট পাননি। দুটি করে উইকেট ওয়াহাব ও ইমাদের। সবচেয়ে খরুচে পেসার মোহাম্মদ সামি। ৪ ওভারে দিয়েছেন ৫৩ রান।


মন্তব্য