kalerkantho

শুক্রবার । ২০ জানুয়ারি ২০১৭ । ৭ মাঘ ১৪২৩। ২১ রবিউস সানি ১৪৩৮।


টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

আঘাত হানলেন মুস্তাফিজ ও সাকিব

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মার্চ, ২০১৬ ২০:৩৮



আঘাত হানলেন মুস্তাফিজ ও সাকিব

ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চমৎকার শুরু পেয়েছে টাইগাররা। টস জিতে প্রতিপক্ষকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। মুস্তাফিজুর রহমান ও সাকিব আল হাসান পরপর দুই ওভারে তুলে নিয়েছেন যথাক্রমে রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ানকে। বেঙ্গালুরুতে ৭ ওভার শেষে ২ উইকেটে ৪৫ রান ভারতের। বিরাট কোহলি ২ রানে ব্যাট করছেন। তার সাথে যোগ দিয়েছেন সুরেশ রায়না। এই ম্যাচে তামিম ইকবাল ফিরেছেন।

প্রথম ওভারটা মাশরাফি নিজে করেছেন। রান দিয়েছেন ৫। পরের ওভারে অফ স্পিনার শুভাগত হোমের হাতে বল তুলে দিয়েছেন। শুভাগত শুরু থেকে টার্ন পেতে শুরু করেছেন। প্রথম ২ ওভারে ৯ রান। মন্দ বোলিং না। এরপর নিজে না ফিরে পেসার আল-আমিন হোসেনকে বল দিয়েছেন মাশরাফি। এই ওভারে ৮ রান। চতুর্থ ওভারে কাটার বিশেষজ্ঞ মুস্তাফিজুর রহমান এসেছেন আক্রমণে। গত বছর ভারতের বিপক্ষে বিস্ময় জাগানো অভিষেক ছিল মুস্তাফিজের। এই ওভারে ৬ রান। পরের ওভারে সাকিব আল হাসান এসেছেন। ৫ ওভারে মাশরাফি ৫ বোলার আনলেন। রান এলো ২৭। তবে প্রথম উইকেটের পতন ষষ্ঠ ওভারে। এবং মুস্তাফিজ হন্তারক। রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান দুটি ছক্কা মেরেছিলেন মুস্তাফিজকে। এই কাটার বিশেষজ্ঞ ফিরেছেন আঘাত হেনে। রোহিত শর্মা (১৮) তার বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন। পরের ওভারেই সাকিব তুলে নিয়েছেন ধাওয়ানকে (২৩)। এলবিডাব্লিউর শিকার হয়েছেন ধাওয়ান।

বাংলাদেশ-ভারতের গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালে উঠে গেছে নিউজিল্যান্ড। আর একটি দল এই গ্রুপ থেকে শেষ চারে যাবে। এটা ভারতের ঘরের মাঠের বিশ্বকাপ। শিরোপার অন্যতম প্রধান দাবিদার তারা। ২ ম্যাচের একটিতে জিতেছে তারা। একটিতে হেরেছে। বাংলাদেশের বিপক্ষে নেট রান রেট বাড়িয়ে নিয়ে জিততে চায় তারা। যাতে শেষে এটা তাদের কাল না হয়। বড় রান করে বড় ব্যবধানে জেতার চেষ্টা করবে তারা। এরপর বাকি থাকবে শুধু অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ। বাংলাদেশ দুই ম্যাচে হেরে যাওয়ায় সেমিফাইনালের দৌড় থেকে প্রায় ছিটকে পড়েছে। ভারতের কাছে হারলে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাবে টাইগারদের।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, মোহাম্মদ মিথুন, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, মাহমুদ উল্লাহ, মুশফিকুর রহিম, মাশরাফি বিন মর্তুজা, শুভাগত হোম, মুস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন।


মন্তব্য