kalerkantho


২৪ বলে পাকিস্তানের দরকার ৫২

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মার্চ, ২০১৬ ২২:৫৭



২৪ বলে পাকিস্তানের দরকার ৫২

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১৮১ রানের পাহাড় সমান চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে কিউইরা। এই বিশাল টারগেটকে সামনে রেখে ব্যাট করতে নেমেছে পাকিস্তান দল। শুরুতে ওপেনার শারজিল খান তাণ্ডব চালিয়ে পাকিস্তানকে সামনে এগিয়ে নিলেও ৪৭ রানে থামতে হয় এই টপ অর্ডারকে। মাত্র ২৫ বল খেলে ৯ টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে এই ইনিংস সাজান। আহমেদ শেহজাদ ৩০ রানে সান্টনারের বলে আউট হন। এর আগে ৩ রানে খালিদ লতিফ সান্টনাররের বলে ইলিয়টকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন। আফ্রিদি পাকিস্তানকে জয়ের স্বপ্ন দেখালেও তাঁর ব্যাট থেমে যায় মাত্র ১৯ রানে। পাকিস্তানের জয়ের জন্য দরকার ২৪ বলে ৫২ রান। ৬ উইকেট হাতে রয়েছে।

এর আগে মার্টিন গাপটিল ও কেন উইলিয়ামসনের ব্যাটে ভর করে কিউইদের সুচনাটা বেশ ভালো হলেও দলীয় ৫০ রানে কিছুটা ছন্দে পতন ঘটে। উইলিয়ামসন ১৭ রানে ইরফানের বলে আফ্রিদির তালুবন্দি হন। মুনরো উইলিয়ামসনের জায়গায় এলেও ব্যক্তিগত ৭ রানে আফ্রিদির বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। গাপ্টিল ৮০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে মোহাম্মদ সামির বলে আউট হন। এর মধ্যে ছিল ৩ টি ওভার বাউন্ডারি ও ১০ দারুণ বাউন্ডারির মার। এন্ডারসনও ২১ রান করে আফ্রিদির শোয়েব মালিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন। লুক রোঁচিও একইভাবে ১১ রানে মোহাম্মদ সামির শিকার হন। রস টেইলর ৩৬ ও ইলিয়ট ১ রানে অপরাজিত থেকে ১৮০ রানে ইনিংস শেষ করেন।   বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় গ্রুপ ম্যাচটি শুরু হয়। পাকিস্তানের পক্ষে আফ্রিদি  ২টি, সামি  ২ টি ও ইরফান ১ টি উইকেট নেন।

আজ মঙ্গলবার ভারতের চন্ডিগড়ে মোহালির বিন্দ্রা স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক উইলিয়ামসন।   টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ওঠার লক্ষ্যে দু’দলের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। টি-টোয়েন্টিতে ১৪ বারের দেখায় আটটিতে জয় পায় পাকিস্তান। ছয়টি ম্যাচ জেতে ব্ল্যাক ক্যাপসরা। বিশ্বকাপ মঞ্চেও বেশ এগিয়ে ২০০৯ আসরের চ্যাম্পিয়নরা। চারবারের মুখোমুখি লড়াইয়ে তিন ম্যাচেই জয় তুলে নেয় টিম পাকিস্তান। ফিটনেসে ঘাটতি থাকায় এ ম্যাচে খেলতে পারছেন না মোহাম্মদ হাফিজ ও পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। হাফিজের জায়গায় একাদশে সুযোগ পেয়েছেন খালিদ লতিফ। এক ম্যাচের বিরতিতে স্কোয়াডে ফিরেছেন বাঁহাতি স্পিনার ইমাদ ওয়াসিম।

পাকিস্তান একাদশ: শারজিল খান, আহমেদ শেহজাদ, খালিদ লতিফ, উমর আকমল, শোয়েব মালিক, সরফরাজ আহমেদ (উইকেটরক্ষক), শহীদ আফ্রিদি (অধিনায়ক), ইমাদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ সামি ও মোহাম্মদ ইরফান।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: মার্টিন গাপটিল, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), কলিন মুনরো, কোরি অ্যান্ডারসন, রস টেইলর, গ্রান্ট এলিয়ট, মিচেল সান্টনার, লুক রনকি (উইকেটরক্ষক), অ্যাডাম মিলনি, মিচেল ম্যাকক্লেনাগান ও ইশ শোধি।


মন্তব্য