kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ । ১১ মাঘ ১৪২৩। ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৮।


টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

অদ্ভুত পিচে মাথা খুড়ে মরছে পাকিস্তান!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ২১:৫৮



অদ্ভুত পিচে মাথা খুড়ে মরছে পাকিস্তান!

বৃষ্টির কারণে মাঠের ক্ষতি হয়েছে। কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে ভারত-পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মহারণ তাই এক ঘণ্টা দেরিতে শুরু হয়েছে।

১৮ ওভার করে খেলতে পারবে প্রত্যেক দল। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে স্বস্তিতে ব্যাট করতে পারছে না পাকিস্তান। আনপ্রেডিক্টেবল বাউন্স, টার্নে নাকাল হচ্ছে তারা। এই রিপোর্ট লেখার সময় ১২ ওভারের খেলা শেষ হয়েছে। ৩ উইকেটে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৬৫ রান। উমর আকমল ১১ রানে ব্যাট করছেন। শোয়েব মালিক রান করতে পারেননি এখনো।

পাকিস্তানের দুই ওপেনারের ব্যাটিংয়ে সমস্যা হচ্ছিল। দ্বিতীয় ওভার থেকে আক্রমণে এসেছেন অফ স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। উইকেট থেকে ভালো টার্ন ও বাউন্স পাচ্ছিলেন। ব্যাটসম্যানরা কখনো কখনো চমকে উঠছিলেন। ২ ওভারে অশ্বিন দিয়েছেন ৮ রান। পেসার আশিস নেহরার শুরুও ভালো হয়েছে। ২ ওভারে ১০ রান দিয়েছেন তিনি। প্রথম ৯ ওভারে সর্বোচ্চ ৭ রান করে হয়েছে দুবার। এমন উইকেটে বিশ্বকাপের ম্যাচ খেলা যায়! ইডেনের কিউরেটররা প্রশ্নের মুখে। পাওয়ার প্লের ৫ ওভারে মাত্র ২৪ রান পেয়েছে পাকিস্তান।

অশ্বিনের পর বাঁ হাতি স্পিনার রবিন্দ্র জাদেজাও চমৎকার টার্ন-বাউন্স আদায় করে নিচ্ছিলেন। তবে পাকিস্তানের প্রথম উইকেট পড়েছে অষ্টম ওভারে। স্পিনার সুরেশ রায়নার বলে পুল করতে গিয়ে টাইমিং হয়নি শারজিল খানের। হার্দিক পান্ডিয়া চমৎকার ক্যাচ নিয়েছেন। ২৪ বলে ১৭ রান করে ফিরেছেন শারজিল।

পাকিস্তান অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি নেমে যান তিন নম্বরে! আগের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৯ বলে ৪৯ রান করেছিলেন। সেই আত্মবিশ্বাসেই হয়তো। দশম ওভারে ম্যাচের পঞ্চম ও নিজের তৃতীয় বাউন্ডারিটা মারলেন আহমেদ শেহজাদ। কিন্তু পরের বলেই পেসার জসপ্রিত বুমরাহর শিকার হয়েছেন তিনি। লেগ সাইডে খেলতে গিয়ে পয়েন্টে বল পাঠিয়েছেন শেহজাদ! ২৮ বলে ২৫ রান তার।

আফ্রিদির মতো ব্যাটসম্যানকেও বল সামলাতে খুব বেগ পেতে হচ্ছিল। তিনিও আউট হয়েছেন মিস টাইমিংয়ের শিকার হয়ে। ঠিক মতো ব্যাটে বলে হয়নি। বল উঠে গেছে মিড উইকেটে। সহজ ক্যাচ নিয়েছেন বিরাট কোহলি। ১৪ বলে ৮ রান আফ্রিদির। ৬০ রানের সময় তৃতীয় উইকেট হারায় পাকিস্তান।       

১৮ ওভারের খেলা বলে ৫ ওভারের পাওয়ার প্লে এই ম্যাচে। ৪ বোলার সর্বোচ্চ ৪ ওভার করে বল করতে পারবেন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কখনো ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। কিন্তু নিজেদের মাঠ ইডেনে সীমিত ওভারের খেলায় কখনো পাকিস্তানের বিপক্ষে জেতেনি ভারত।


মন্তব্য