kalerkantho

25th march banner

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

'চোকার' দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে চাপে থাকা ইংল্যান্ড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ মার্চ, ২০১৬ ১৮:৫১



'চোকার' দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে চাপে থাকা ইংল্যান্ড

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের একেকটি ম্যাচ মহা গুরুত্বপূর্ণ। একটি হারলেই সেমিফাইনালে খেলা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যাচ্ছে। কারণ, গ্রুপে সবাই শক্তিশালী। ক্রিস গেইলের সেঞ্চুরির কাছে হেরে সেই চাপে এর মধ্যে পড়ে গেছে ইংল্যান্ড। 'চোকার' দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে শুক্রবারের ম্যাচটা তাদের জিততেই হবে। গ্রুপ ওয়ানে ফেভারিট প্রোটিয়াদের এটি প্রথম ম্যাচ। চাপের মধ্যে ভালো পারফর্ম করার ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলার মিশন তাদের। তাহলে শেষ হাসি হাসার সুযোগ থাকবে। ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচটি শুরু হবে রাত আটটায়। মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম ভেন্যু।

ইংল্যান্ড একবার টি-টোয়েন্টিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। কিন্তু বর্ণবাদের নিষেধাজ্ঞা থেকে ১৯৯১ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার পর দক্ষিণ আফ্রিকা সব টুর্নামেন্টে ফেভারিট থাকে। কিন্তু কোনোটি জিততে পারে না। ভারতের মাটি থেকে প্রথম বড় শিরোপা জেতার লক্ষ্য তাদের। আর টুর্নামেন্টের শুরুটা দারুণভাবে করতে চাচ্ছে তারা।

মুম্বাইয়েই ১৮২ রান করেও গেইলের সেঞ্চুরির কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে সহজে হেরেছে ইংল্যান্ড। ৬ উইকেটের ওই হারের পর ইংলিশ অধিনায়ক এউইন মরগ্যান ব্যাটসম্যানদের ২০০ করার তাগিদ দিয়েছেন। আর বোলারদের আরো ভালো বল করতে বলেছেন। তবে ওই ম্যাচের টস হারা নিয়ে আক্ষেপ আছে মরগ্যানের। রান তাড়া করার সুবিধা পাননি। শিশিরের কারণে বোলারদের সমস্যা হয়েছে। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে খুব করে টস জিততে চাইছেন তিনি, "টসের সময় (ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচে) রান তাড়া করতে পারলে ভালো হতো। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষের ম্যাচেও এটির ভূমিকা থাকবে। "
 
প্রতি টুর্নামেন্টের মতো এটিও দক্ষিণ আফ্রিকার 'চোকার' ট্যাগ ছুড়ে ফেলার টুর্নামেন্ট। যেটি কখনোই করতে পারেনি তারা। অধিনায় ফাফ ডু প্লেসিসও মানছেন, পিঠ থেকে এই বাদরটাকে সরাতে হবে। কিন্তু তা করতে শিরোপা জেতার তো বিকল্প নেই! টি-টোয়েন্টি বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের তৃতীয় স্থানে দলটি। ২০ ওভারের ক্রিকেটে দুর্ধর্ষ। ডু প্লেসিসকে প্রথম ম্যাচের আগেও কথা বলতে হলো 'চোকার' অপবাদ নিয়ে, "এটার (চোকার অপবাদ) থেকে মুক্তির একমাত্র উপায় হলো চাপের মধ্যে পারফর্ম করা। এটা ঠিক আছে। কিন্তু শিরোপা জিতলেই কেবল মুক্তি পাবো আমরা। "


মন্তব্য