kalerkantho

মঙ্গলবার। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৯ ফাল্গুন ১৪২৩। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


স্যামির ফিফটিতে অস্ট্রেলিয়াকে হারালো ওয়েস্ট ইন্ডিজ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ মার্চ, ২০১৬ ১৯:১৭



স্যামির ফিফটিতে অস্ট্রেলিয়াকে হারালো ওয়েস্ট ইন্ডিজ

শেষ ৩৬ বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দরকার ৬২ রান। ৪ উইকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের হাতে। অস্ট্রেলিয়ান বোলাররা দারুণ বল করছেন। এই অবস্থায় ক্রেগ ব্রাথওয়েট ও অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি দুর্দান্ত ব্যাট করলেন। পরের চার ওভারের তিনটিতে উঠলো যথাক্রমে ১৭, ১৭ ও ১৫ রান। শেষ দুই ওভারে ১০ রানের হিসেব মেলাতে স্যামিদের আর কষ্ট হয়নি। ১ বল হাতে রেখেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৩ উইকেটের হার উপহার দিয়েছে তারা। ফিফটি করে অপরাজিত ছিলেন স্যামি। বৃথা গেছে পেসার জশ হ্যাজলউডের হ্যাটট্টিক।

রবিবার কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে আগে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ১৬১ রান তুলেছিল অস্ট্রেলিয়া। তাদের শুরুটা যতো আশা জাগানিয়া ছিল, ততো বড় সংগ্রহ আর গড়া হয়নি। লড়াইয়ে ফিরেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা। এরপর হ্যাজলউডের হ্যাটট্টিকে ১৮ রানে ৩ উইকেট হারায় ক্যারিবিয়ানরা। কিন্তু স্যামির ২৮ বলে অপরাজিত ৫০ ও ব্রাথওয়েটের ৩৩ রানে জয় তুলে নিয়েছে তারা।

ক্রিস গেইল ব্যাট করেননি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ৫ ব্যাটসম্যানের রানের যোগফল ৩১। এর মধ্যে দুজনার আছে শূন্য। আন্দ্রে রাসেল ১৫ বলে ২৯ রানের ঝড় তুলে ফিরলেন। ৭২ রানে ৬ উইকেট নেই ক্যারিবিয়ানদের। কিন্তু বলা হয়, ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রত্যেক খেলোয়াড়ই ম্যাচ উইনার। সেই প্রমাণ মিলেছে। স্যামি ও ব্রাথওয়েট সপ্তম উইকেটে ১৩.৮২ গড়ে ৫৩ রানের জুটি গড়েছেন। ব্রাথওয়েটকে ফেরানো গেলেও স্যামি জয় এনেছেন অ্যাশলে নার্সকে (১২*) সঙ্গী করে।  

এর আগে শেন ওয়াটসনের ৬০ ও অ্যারন ফিঞ্চ (৩৩), স্টুয়ার্ট স্মিথের (৩৬) ইনিংসে ভর করে লড়ার মতো স্কোর পায় অস্ট্রেলিয়া। ওয়াটসন ও ফিঞ্চের ওপেনিং জুটি এনে দিয়েছিল ৭৬ রান। ৮.২ ওভারের সময় ফিঞ্চকে বিদায় করেন বাঁ হাতি স্পিনার সুলিমান বেন। এরপর ওয়াটসন ও অধিনায়ক স্মিথের মধ্যে ৩০ রানের জুটি হয়েছে। ওয়াটসন ৩৯ বলে ৪টি করে ছক্কা ও চারে ৬০ রান করেছেন। আউট হয়েছেন ডোয়াইন ব্রাভোর বলে।

১১.৪ ওভারে ১০৬ রান। এই পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার সবকিছু ভালো ছিল। কিন্তু এরপর ১১ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারালো তারা। ব্যর্থতার খাতায় নাম লেখালেন উসমান খাজা (৫), গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (০) ও মিচেল মার্শ (২)। পেসার ক্রেগ ব্রাথওয়েট এক ওভারে নিয়েছেন দুই উইকেট।

নিয়মিত বিরতিতে প্রতিপক্ষের উইকেট তুলে নিয়ে ক্যারিবিয়ানরা রানের গতিও থামিয়েছে। চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে কেবল জন হাস্টিংস (১০) দুই অঙ্কে গেছেন। ব্রাভো ২১ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট। ৩৭ রানে ৩ উইকেট বেনের। আর ১৬ রানে ২ উইকেট ব্রাথওয়েটের।


মন্তব্য