kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে সুপার টেনের আরও কাছে যেতে চায় বাংলাদেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ মার্চ, ২০১৬ ২৩:৫১



জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে সুপার টেনের আরও কাছে যেতে চায় বাংলাদেশ

জয় দিয়ে টুয়েন্টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে ‘এ’ গ্রুপে নিজেদের যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডসকে ৮ রানে হারায় টাইগাররা।

তাই দ্বিতীয় ম্যাচও জিতে সুপার টেনের আরও কাছে যাওয়াই প্রধান লক্ষ্য মাশরাফি বাহিনীর। এমন লক্ষ্য নিয়ে আগামীকাল আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে নামবে বাংলাদেশ। ধর্মশালার হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট এসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় ম্যাচটি শুরু হবে।

টি-২০ বিশ্বকাপে বাছাই পর্বের প্রথম ম্যাচটি জয় দিয়েই শুরু করার কথা ছিল এশিয়া কাপের রানার্স-আপ বাংলাদেশের। তা করেছেও টাইগাররা। নেদারল্যান্ডসকে ৮ রানে হারিয়েছে টাইগাররা। তারপরও এমন জয়ে তৃপ্ত হতে পারেনি বাংলাদেশ দল। কারণ জয়ের তফাৎটা খুবই ছোট। তবে জয় তো জয়ই। যেমনটা আজ সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন বাংলাদেশের দলের কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে, ‘জয় তো জয়ই। কতটা রানে বা উইকেটে জিততে পেরেছি তা বড় বিষয় নয়। তবে পারফরমেন্সটা আরও ভালো হওয়া দরকার ছিল। ’

পারফরমেন্সটা আরও ভাল করার সুযোগ দ্বিতীয় ম্যাচেই পাচ্ছে বাংলাদেশ দল। এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলেই পরের দিন ভারতের ধর্মশালার উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ বাংলাদেশের। এরপর ধর্মশালায় পৌঁছে এখানকার কন্ডিশনে দিশেহারা হয়ে পড়ে টাইগাররা। প্রচণ্ড ঠাণ্ডা কাবু হওয়ার মত অবস্থা। তারপরও সকল সমস্যাকে পেছনে ফেলে জয়ের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

তবে ইতিমধ্যে সকল সমস্যা থেকে বেরিয়ে এসেছে বাংলাদেশ। তাতে দ্বিতীয় ম্যাচে আরও পরিপূর্ণ বাংলাদেশকে পাওয়া যাবে তা অনুমান করা যাচ্ছে। তবে এজন্য সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে হবে ব্যাটসম্যানদেরই। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে তামিম ইকবাল ছাড়া কেউই বলার মত স্কোর করতে পারেননি। ওপেনার তামিম ইকবালের অপরাজিত ৫৮ বলে ৮৩ রানে ম্যাচ জয়ের জন্য লড়াই করার পুঁজি পায় বাংলাদেশ বোলাররা।

লড়াই করার পুঁজি পেয়ে তা ভালোভাবেই কাজে লাগিয়েছেন মাশরাফি-তাসকিন-আল আমিনরা। নেদারল্যান্ডস ইনিংসের শুরু থেকে কিছুটা এলোমেলো থাকলে ১০ ওভার পরই জ্বলসে উঠে টাইগার বোলাররা। তাতেই ১৫৩ রানের লক্ষ্য থেকে ১৪৫ রানে থেমে যায় নেদারল্যান্ডসের ইনিংস। তাই জয় দিয়েই টি-২০ বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ।

এমন জয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে ভালো খেলার রসদ যোগাবে বাংলাদেশকে। শুধু কি এই একটি জয়ই? না। সাথে বাংলাদেশের আছে আরও তিনটি জয়। ছোট ফরম্যাটে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ তিন দেখাতে শতভাগ সাফল্য নিয়ে মাঠ ছেড়েছে টাইগাররা। তাই এসব কারণে আত্মবিশ্বাসটা ভালোই রয়েছে বাংলাদেশের।

অবশ্য আত্মবিশ্বাসের ভান্ডারটা আরও বাড়িয়ে নিতে পারে বাংলাদেশ। কারণ গতকাল দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে পুচকে ওমানের কাছে হেরেছে আয়ারল্যান্ড। তাই আইরিশরদের সামনে চাপটা পাহাড় সমান। টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় ছাড়া কোন বিকল্প পথ নেই তাদের। কিন্তু বাংলাদেশের তো লক্ষ্য সুপার টেন। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জয় দিয়েই সেই সুপার টেনের আরও কাছে যেতে উন্মুখ বাংলাদেশ।

তবে নিজেদের নিয়েই বেশি চিন্তায় মগ্ন বাংলাদেশ। কারণ অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে অভিযুক্ত হয়েছেন বাংলাদেশের দুই বোলার তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানি। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচের পরই তাসকিন ও সানির বোলিং অ্যাকশন নিয়ে আইসিসির কাছে লিখিত অভিযোগ দেন ম্যাচের দুই আম্পায়ার ভারতের সুন্দরাম রবি ও অস্ট্রেলিয়ার রড টাকার। তবে এসব চিন্তাকে পেছনে ফেলে ২২ গজের লড়াইয়ে নিজেদের পুরোপুরিভাবে মেলে ধরবে বাংলাদেশ, এমনটাই প্রত্যাশা ক্রিকেটনুরাগীদের।

 


মন্তব্য