kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ওয়াসিম 'সুইয়ের বাদশা' না 'জুয়ার বাদশা'!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মার্চ, ২০১৬ ২১:১২



ওয়াসিম 'সুইয়ের বাদশা' না 'জুয়ার বাদশা'!

'সুইংয়ের বাদশা' বলতেই সবার মুখে চলে আসবে ওয়াসিম আকরামের নাম। কিন্তু তাকেই কিনা তার স্বভূমি পাকিস্তানে বলা হলো 'জুয়ার বাদশা'! ঘটনাটা ঘটিয়েছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) বোর্ড অব গভর্নর্সের সদস্য শাকিল শেখ।

ওয়াসিম সম্প্রতি তীব্র সমালোচনা করেছিলেন তার। পাকিস্তানের টেলিভিশনে সেই সমালোচনার জবাব এভাবেই দিয়েছেন শাকিল। সেই সাথে ওয়াসিমের ম্যাচ ফিক্সিংয়ের পুরনো ফাইল খোলার হুমকিও দিয়েছেন।

সম্প্রতি এশিয়া কাপে পাকিস্তান দলের ব্যর্থতা খতিয়ে দেখতে পিসিবি একটি তদন্ত কমিটি গড়েছে। শাকিল সেই কমিটির প্রধান। কিন্তু একটি সংবাদ সম্মেলনে ওয়াসিম এই তদন্ত কমিটি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। সেই সাথে বলেছিলেন, এমন একজনকে কমিটির প্রধান করা হয়েছে যে কিনা জীবনে ঠিক মতো ক্রিকেট ব্যাটও ধরে দেখেনি। নানা সময় পাকিস্তানের সাবেক খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে আজেবাজে মন্তব্য করা শাকিল চুপ থাকেননি।

"আমার মনে হয় না ওয়াসিম 'সুইংয়ের বাদশা'। সে 'জুয়ার বাদশা'। কারো সমালোচনা করার আগে তার আগে ভাবনা চিন্তা করা উচিৎ। কারণ, তার অতীত সবার জানা। বোর্ডে থাকা তার পুরনো ফাইল খোলা যায়-" জিও সুপার চ্যানেলের কাছে বলেছেন শাকিল।
 
পুরনো ফাইল মানে? শাকিল বলছেন বিচারপতি মালিক কাইয়ুমের দেয়া ম্যাচ ফিক্সিং তদন্ত রিপোর্টের কথা। ২০০০ সালের দিকে ওয়াসিম, সেলিম মালিকসহ আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের তদন্ত হয়েছিল। কাইয়ুম তার রিপোর্টে ওয়াসিমকে আর কখনো পাকিস্তানের অধিনায়ক না করার সুপারিশ করেছিলেন। তদন্তে ওয়াসিম সহায়তা করেননি বলেও জানানো হয়েছিল। তিনি সন্দেহের উর্ধে ছিলেন না। শাকিল সেই রিপোর্ট নতুন করে খোলার হুমকিই দিয়েছেন। এর সাথে তিনি বলেছেন, ইমরান খানকে ধরেই নাকি আইপিএলে কাজ বাগিয়েছেন ওয়াসিম। গত বছর তিনি পাকিস্তানে ফাস্ট বোলারদের ক্যাম্প পরিচালনা করেছিলেন। শাকিলের অভিযোগ, নিজের জন্য স্পন্সর জোগাড় করার পর পিসিবিকে এই ক্যাম্প করতে বাধ্য করেছিলেন ওয়াসিম। এই যদি হয় অবস্থা তাহলে ওয়াসিমকে কেন পিএসএলের দূত করা হয়েছিল? বোর্ড কর্মকর্তা শাকিল অবশ্য এই প্রশ্নের জবাব দিতে পারেননি।


মন্তব্য