kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিশ্ব টি-টোয়েন্টি বাছাই

তামিমের ফিফটিতে লড়ছে বাংলাদেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মার্চ, ২০১৬ ১৬:৪০



তামিমের ফিফটিতে লড়ছে বাংলাদেশ

তামিম ইকবাল ২২ ইনিংস পর পেলেন টি-টোয়েন্টিতে আরেকটি ফিফটি। আর তার ইনিংসের ওপর দাঁড়িয়ে নেদারল্যান্ডসকে চ্যালেঞ্জ দেয়ার চেষ্টা করছে বাংলাদেশ।

যদিও চাপে আছে তারা। ধর্মশালায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইয়ের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেছে টাইগাররা। এই রিপোর্ট লেখার সময় ১৪.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ১১২ রান বাংলাদেশের। তামিম ৬১ রানে ব্যাট করছেন। মাহমুদ উল্লাহ ১০ রান করে আউট হলেন। মুশফিকুর রহিম ২ বল খেলে শূন্য রানে আউট হয়ে ফিরলেন। এক ওভারে দুই উইকেট হারালো বাংলাদেশ।

২ রান করে প্রথম ওভারেই আউট হতে পারতেন সৌম্য। ক্যাচ দিয়েছিলেন থার্ড ম্যানে। ফিল্ডারের হাত ফস্কে বাউন্ডারি হয়েছে। পরের ওভারে অবশ্য পরিস্কার হিটে চার মেরেছেন সৌম্য। তবে চতুর্থ ওভারের প্রথম বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন সৌম্য। করেছেন ১৫ রান।  

তামিম একটু সময় নেন খেলতে। বাঁ হাতি স্পিনার ফন ডার মারউইকে লং অফের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে আগ্রাসণের শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। এক ওভার পর এই বোলারকে লং অনের ওপর দিয়ে দারুণ এক ছক্কা মেরেছেন সাব্বির রহমানও। কিন্তু পরের বলের লাইনে এসে এলবিডাব্লিউর শিকার হয়ে গেছেন সাব্বির (১৫)।

তামিম-সাব্বিরের জুটিটা ৪২ রানের। এরপর সাকিব আল হাসানের ওপর আশা ছিল। কিন্তু বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অল রাউন্ডার অবশা মাত্র ৫ রান করেই ফিরে গেছেন। ডাচ অধিনায়ক পিটার বোরেনের বলে সহজ ক্যাচ দিয়েছেন সাকিব। বাংলাদেশকে চাপে ফেলেছে নেদারল্যান্ডস।

তবে এর মধ্যেই ক্যারিয়ারের চতুর্থ টি-টোয়েন্টি ফিফটিটা তুলে নিয়েছেন তামিম। ৩৬ বলে এই অর্ধশতক করেছেন এই বাঁ হাতি ওপেনার। মেরেছেন  ৩টি বাউন্ডারি ও ২টি ছক্কা। তামিম শেষ ফিফটি করেছিলেন ২২ ইনিংস আগে। ২০১২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে, ঢাকায়।

 

মাশরাফি বিন মর্তুজার টিম কম্বিনেশনে চার পেসার নেই। এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলেছিলেন আবু হায়দার রনি। তাকে এই ম্যাচের একাদশে রাখা হয়নি। আরাফাত সানিকে নেয়া হয়েছে। মাশরাফি, আল-আমিন হোসেন ও তাসকিন আহমেদের পেস অ্যাটাক থাকছে। ব্যাটিং লাইন আপ অপরিবর্তিত।  

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদ উল্লাহ, নাসির হোসেন, মাশরাফি মর্তুজা (অধিনায়ক), তাসকিন আহমেদ, আরাফাত সানি, আল-আমিন হোসেন।

 


মন্তব্য