ধোনি এখন নির্ভার এক অধিনায়ক -333645 | খেলাধুলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১১ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৩ জিলহজ ১৪৩৭


ধোনি এখন নির্ভার এক অধিনায়ক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ মার্চ, ২০১৬ ১৮:৫২



ধোনি এখন নির্ভার এক অধিনায়ক

সাম্প্রতিক সময়টাতে টি-টোয়েন্টিতে দারুণ সফল ভারত। অস্ট্রেলিয়াকে দেশের মাটিতে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করলো। শ্রীলঙ্কাকে ভারতে সিরিজ হারালো। ঢাকায় ফাইনালে বাংলাদেশকে হারিয়ে এশিয়া কাপের অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো। আর প্রায় একটি দলই খেলাচ্ছে ভারত। সব মিলিয়ে অধিনায়ক এমএস ধোনি এখন দলকে সিক্সথ গিয়ারে দেখছেন। আর ডেথ বোলিং নিয়ে আর দুশ্চিন্তা করতে হচ্ছে না তাকে। ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে দারুণ নির্ভার এক অধিনায়ক এখন তিনি।

নবাগত পেসার জসপ্রিত বুমরাহ কাজের চাপ নিতে পারছেন। অভিজ্ঞ আশিস নেহরাতে সব পরিস্থিতিতে ভরসা করা যায়। স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন দারুণ নির্ভরযোগ্য। অল রাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া মিডিয়াম পেসে অধিনায়কের আস্থা কেড়েছেন। ধোনি তাই মঙ্গলবার বলতে পারলেন, "বিশ্ব টি-টোয়েন্টি শুরু করার আগে আমি যাতে সবচেয়ে খুশি তা হলো প্রথম ওভার থেকেই জানি ডেথ ওভারে কে বল করবে। এটা বড় স্বস্তির বিষয়। ৯৯ শতাংশ সময়ই আমার জানা ডেথ বোলিংয়ে কাকে বল দেবো।" ধোনি এনেছেন আগের পরিস্থিতিও, "শেষ কয়েক বছরে ১৫ বা ১৬ ওভারের সময় আমাকে ভাবতে হতো কে ভালো বল করছে। পরিস্থিতি কি। এরপর ঠিক করতাম ডেথ ওভারের বল কে করবে। এখন এটা স্বস্তির যে ডেথ বোলারের বিশেষজ্ঞ আছে আমাদের। এছাড়া পুরো বোলিং বিভাগই ভালো বল করছে। আমার কাজ তাতে সহজ হয়ে গেছে।"

টানা খেলে যাচ্ছে ভারত। এমনটা করতে খেলোয়াড়দের দারুণ ফিট হতে হয়। সেই ফিটনেস দলে আছে। তাতেও খুব খুশি ধোনি। বিশ্ব টি-টোয়েন্টির জন্য তারা আদর্শভাবেই প্রস্তুত। ২০০৭ সালে প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটা ভারত জিতেছিল ধোনির নেতৃত্বে। এবার ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ জেতার সুযোগ। জয়ের ধারায় থাকায় দলটি খুব আত্মবিশ্বাসী। ধীরে সুস্থে টুর্নামেন্টে এগোতে চান ধোনি। দল কতোটা ভালো অবস্থায় আছে তা বলতে গিয়ে ধোনি জানিয়েছেন, "আমরা এখন সিক্সথ গিয়ারে আছি। ভিন্ন কিছু করার দরকার নেই। আমরা ঠিক কাজটাই করছি। প্রথম খেলার দিকেই আমাদের মনযোগ থাকা উচিৎ।" তবে বড় কথা বলেননি ধোনি। কোনো দলকেই হালকাভাবে নেননি। বলেছেন, যে কারো বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা আছে। দারুণ লড়াইয়ের দিকেই তার চোখ এখন। 

মন্তব্য