kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফাইনালে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে জোর দিতে হবে: সৌরভ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ মার্চ, ২০১৬ ২০:৫৯



ফাইনালে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে জোর দিতে হবে: সৌরভ

বাংলাদেশের ক্রিকেটের খবরটা সবসময় রাখেন সৌরভ গাঙ্গুলী। তবে এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতকে বাদ দিয়ে তো তিনি বাংলাদেশকে সমর্থন করবেন না! এমএস ধোনির দলটাকে অনেক শক্তিশালী দেখছেন সাবেক এই ভারত অধিনায়ক।

শিরোপা জিততে হলে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে জোর দিতে হবে। নিজের কলামে এমনটাই বলেছেন সৌরভ। কালের কণ্ঠের পাঠকদের জন্য কলামটা অনুবাদ করে দেয়া হলো।

সৌরভ গাঙ্গুলী: বালাদেশকে এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে খেলতে দেখে আমি মোটেও বিস্মিত না। শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের চেয়ে ভালো দল তারা। তাদের কৃতিত্ব দিতেই হবে। ওদের ক্রিকেটের বড় ধরণের উন্নতি হয়েছে। এটা জুনিয়র ক্রিকেটের দিকে তাকালেই বোঝা যায়। সম্প্রতি শেষ হওয়া অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালেও খেলেছে ওরা।

ক্রিকেটে উন্নতির ইঙ্গিত বহন করে জুনিয়র ক্রিকেট। বাংলাদেশ থেকে এখন অনেক প্রতিভা উঠে আসছে। বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার একটা সাক্ষাৎকার পড়ছিলাম। সেখানে তাকে সব সঠিক বার্তা দিতেই দেখলাম। খুব শান্ত। আমি মনে করি, দলটাকে খুব ভালো বানিয়েছে সে।

গত বছর ৫০ ওভারের তিন ম্যাচের সিরিজে ভারতকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ওটা করে ক্রিকেট বিশ্বের আকর্ষণ ও মনযোগ পেয়েছে তারা। বাংলাদেশের জন্য অবশ্যই খুব আত্মবিশ্বাসী পারফরম্যান্স ছিল। সেই জয় থেকে তারা প্রেরণা নিতেই পারে। যদিও তাদের বিজয়টা ছিল ভিন্ন সংস্করণের খেলায়। ধোনি ও তার ছেলেরা এখন শুধু দারুণ ফর্মেও না, মানসিক স্থিতির চূড়ায় আছে। এটা তাদের খেলায় পড়া যাচ্ছে।
 
এই ভারতীয় দলকে হারাতে বাংলাদেশকে অসাধারণ খেলা খেলতে হবে। বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে তাদের ব্যাটিং। ১৬০ এর নিচে রান করে ভারতের ব্যাটিং লাইন আপকে ঠেকানো যাবে না। এই আসরের পিচ একটু ভিন্ন রকমের। তাই আমার মনে হয় ১৬০ এর মতো রানই আদর্শ স্কোর। এর নিচে রান করে দলকে জেতানো কঠিন।

পেপারে পড়লাম, ফাইনালের পিচে ঘাস থাকবে না। টিপিক্যাল ঢাকা পিচ হবে। কিন্তু তাতে ভারতের ব্যাটিং আরো বিপজ্জনক হয়ে উঠবে। তাই ফাইনালে পিচটা মনযোগের কেন্দ্রে থাকা উচিৎ হবে না। এই দিনে কোন দল সবচেয়ে ভালো খেলে সেটাই হবে নির্ধারক।


মন্তব্য