kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


তাহিরের পর মিলারে প্রোটিয়াদের জয়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ মার্চ, ২০১৬ ১৫:৪৬



তাহিরের পর মিলারে প্রোটিয়াদের জয়

মনে হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া অনেক বড় স্কোর গড়বে। কিন্তু লেগ স্পিনার ইমরান তাহির তা হতে দেননি।

ডারবানের কিংসমিডে ৩ ম্যাচের সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়া করল ৯ উইকেটে ১৫৭ রান। স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার রান তাড়াটাই ছিল ধাক্কার ওপর। নিয়মিত উইকেট হারিয়েছে তারা। শেষ পর্যন্ত ডেভিড মিলার অপরাজিত ফিফটিতে থ্রিলার জিতিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকাকে। শুক্রবার প্রোটিয়ারা ৪ বল হাতে রেখে ৩ উইকেট জিতেছে। সিরিজে গেছে ১-০তে এগিয়ে।

পাওয়ার প্লেতে ৬৯ রান তুলে ফেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। ২০০ হবে নিশ্চয়ই! কিন্তু তাহির জমে যাওয়া অ্যারন ফিঞ্চকে (৪০) তুলে নিয়ে প্রতিপক্ষকে প্রথম বড় আঘাত দিয়েছেন। এরপর আরো দুই উইকেট তুলে নিয়েছেন তিনি। তাতে ৪৫ রানের মধ্যে রান করার ৫ ব্যাটসম্যানই হারিয়ে ফেলে অস্ট্রেলিয়া। মিচেল মার্শ ৩৫ রানের ইনিংস খেলে ঝড়ের মুখে দলের রান বাড়িয়েছেন।

রান তাড়া করতে নেমে ৪১ রানে ৩ উইকেট হারাল দক্ষিণ আফ্রিকা। কল্টার-নাইল টপ অর্ডার ধসাতে সহায়তা করেছেন। মার্শের এক ওভারের পরপর দুই বলে দুই উইকেট হারায় প্রোটিয়ারা। একটি রান আউট। তাতে ৭২ রানে ৫ উইকেট হারানো দল হয় স্বাগতিকরা।

এরপর ডেভিড উইজের বিদায়ে খেলা জেতানোর দায়িত্ব পড়ে ক্রিস মরিস ও মিলারের ওপর। দুজনই ফিনিশার। মরিস নিজে ৮ রান করলেও মিলারের সাথে ৩৯ রানের জুটিতে ভূমিকা রেখেছেন। অ্যান্ড্রু টাইয়ের ওভারে দুটি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন মিলার। তাতে ৩০ বলে ৪৫ রানের লক্ষ্য ২৪ বলে ২৯ রানে নেমে যায়। মরিস বিদায় নেন। মিলার থেকেছেন। এবং ৩৩ বলে মিলার নিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ফিফটি করার পর কাইল অ্যাবট নেন জয়সূচক রান। ৫৩ রানে অপরাজিত মিলার পেয়েছেন ম্যাচ সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার।


মন্তব্য