kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


এশিয়া কাপ

পাকিস্তানের বিপক্ষে টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ মার্চ, ২০১৬ ১৯:০৭



পাকিস্তানের বিপক্ষে টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচের উইকেটটা পুরোপুরি ব্যাটিং বান্ধব। টস জিতলে ব্যাটিং নিতেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

কিন্তু টসটা জিতলেন পাকিস্তান অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্তই নিয়েছেন তিনি। এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ের এই ম্যাচে বাংলাদেশের টার্গেট থাকবে পাকিস্তানকে অল্প রানে আটকে দেয়া।

ইনজুরির কারণে এই ম্যাচে টাইগারদের কাটার বিশেষজ্ঞ মুস্তাফিজুর রহমান খেলতে পারছেন না। তবে তামিম ইকবাল সন্তানের মুখ দেখে থাইল্যান্ড থেকে ফিরে এসে দলের সাথে যোগ দিয়েছেন। তিনি খেলছেন। নুরুল হাসান বাদ পড়েছেন। তার জায়গায় দলে এসেছেন বাঁ হাতি স্পিনার আরাফাত সানি। প্রথমবারের মতো এই টুর্নামেন্টে চার পেসার থাকছে না বাংলাদেশের।

এবারের এশিয়া কাপে প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে হেরেছে বাংলাদেশ। পরের ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে হারিয়েছে। এবং তারপর এশিয়া কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে খেলার আশা ধরে রাখে। পাকিস্তান ভারতের কাছে হারার পর আমিরাতকে হারিয়েছে। ২০১২ এশিয়া কাপের ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে মাত্র ২ রানে হেরে শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিল বাংলাদেশ। সেবার টুর্নামেন্ট ছিল ওয়ানডের। এবার টি-টোয়েন্টির। এই ম্যাচটা তারপরও টাইগারদের শোধ তোলার।

এই ম্যাচে বাংলাদেশ জিতলে কোনো হিসেব নিকেশের অপেক্ষায় আর থাকতে হবে না। টাইগাররা ৬ মার্চের ফাইনালে খেলবে ভারতের সাথে। তবে এই ম্যাচে বাংলাদেশ হারলেও ফাইনালে খেলার আশা থাকবে। এই ম্যাচ জিতে শ্রীলঙ্কাকেও হারালে ফাইনালে যাবে পাকিস্তান। কিন্তু পাকিস্তান এই ম্যাচ জিতলে এবং শ্রীলঙ্কার কাছে হারলে তখন সামনে চলে আসবে নেট রান রেট। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের মধ্যে যে দল এগিয়ে থাকবে তারা উঠবে ফাইনালে।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লা, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), আল-আমিন হোসেন, আরাফাত সানি, তাসকিন আহমেদ।

পাকিস্তান দল: মোহাম্মদ হাফিজ, শারজিল খান, খুররম মাঞ্জুর, উমর আকমল, শোয়েব মালিক, সরফরাজ আহমেদ, শহীদ আফ্রিদি (অধিনায়ক), আনোয়ার আলি, মোহাম্মদ সামি, মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ ইরফান।  


 


মন্তব্য