kalerkantho


শরতে প্রকৃতির মেজাজ যেন খামখেয়ালিতে ভরা। এই বৃষ্টি তো কিছুক্ষণ পরেই প্রচণ্ড রোদ। ভাপসা গরমে ঘামে ভিজে একাকার। এমন আবহাওয়ায় নিজেকে সতেজ রাখতে বাড়ে পারফিউম, বডি স্প্রেসহ নানা সুগন্ধির ব্যবহার। সুগন্ধির রকমফের, দরদাম ও ব্যবহারবিধি নিয়ে এবারের সওদাপাতি

খুশবুর খোঁজে

ইমরান হোসেন মিলন   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



খুশবুর খোঁজে

মডেল : জেসমিন মৌসুমী, ছবি : কাকলী প্রধান

ভারতের মাদ্রাজের বাসিন্দা কে পি মোহাম্মাদ ১৯৪৫ সালে ঢাকার মিটফোর্ডে ‘ওটিস’ নামে প্রথম সুগন্ধির দোকান খোলেন। ওটিসের ব্যবসা এখনো আছে। চালাচ্ছেন তাঁর নাতিরা। মূল শাখাটি মিটফোর্ডেই। গুলশানের পিঙ্ক সিটি শপিং কমপ্লেক্সে শাখা আছে একটি। মূলত আতর তৈরি করেন তাঁরা। আগরবাতিও আছে।

সুগন্ধিতে দেশে ও আন্তর্জাতিক বাজারে সুনাম আছে বাংলাদেশি ব্র্যান্ড ‘আর হারমাইন’-এর। আতরও রয়েছে তাঁদের। বাংলাদেশি মাহতাবুর রহমান এই ব্র্যান্ডের কর্ণধার। আল হারমাইনের শুরুটা হয়েছিল সিলেটের বিয়ানীবাজারের নাটেশ্বর গ্রামে। সিলেটের সুজানগরে আগরকাঠ হতো। এই কাঠ দিয়ে হতো আতর। মাহতাবুর রহমানের বাবা হজ করতে যাওয়ার সময় সঙ্গে নিয়ে যান কিছু আগর। ১৯৭০ সালে তিনি মক্কায় সুগন্ধির ব্যবসা শুরু করেন। পরে তিনি তাঁর ব্যবসাকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিয়ে যান ১৯৮১ সালে, সেখানেই প্রথম শোরুম খোলা হয়। সেই শুরু। এই সুগন্ধি প্রতিষ্ঠান এখন বিশ্বের ৬৫টিরও বেশি দেশে সুগন্ধি রপ্তানি করে।

তবে আধুনিক ব্র্যান্ডেড পারফিউম আর তরুণদের পারফিউম চেনাতে দেশে পারফিউম নিয়ে রিটেল বিজনেসের পাইওনিয়ার বলা হয় ‘পারফিউম ওয়ার্ল্ড’কে।  ঢাকা, সিলেট ও চট্টগ্রামে এখন প্রতিষ্ঠানটির অন্তত ৯টি শোরুম রয়েছে। যেখানে অন্তত ৩২টি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের পারফিউম পাওয়া যায়।

 

যেভাবে ব্যবহার

শরীরের নির্দিষ্ট কিছু স্থানে পারফিউম ব্যবহার করা উচিত। যেমন—কবজি, কনুইয়ের ভেতরের অংশ, হাঁটুর পেছনে, কলার বোন, পায়ের গোড়ালি, কানের পেছনে। এসব স্থানে পারফিউম ব্যবহারে সুগন্ধ দীর্ঘস্থায়ী হয়। চাইলে চুলেও পারফিউম ব্যবহার করা যায়। গরমে চুল ঘেমে দুর্গন্ধ হয়। এ ক্ষেত্রে পারফিউম ব্যবহারে চুল থেকে মিষ্টি সুগন্ধ আসবে। এ সময় হালকা পারফিউম ব্যবহার করুন।

সজীব থাকতে হলে হালকা সুগন্ধির ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করতে পারেন। তবে নির্বাচন করতে হবে ত্বকের ধরন বুঝে। যাঁরা বেশি ঘামেন তাঁরা পিটস পাউডার ধরনের ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করুন। সঙ্গে আন্ডার আর্মস।

কম ঘামলে পিচ্ছিল ডিওডোরেন্ট আর আন্ডার আর্মস, বেশি ঘামলে পাউডার ধরনের ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করুন।

সব ধরনের সুগন্ধি সবার জন্য নয়, আবার সব সময়ের জন্য একই পারফিউম নয়। আমাদের দেশ মূলত গ্রীষ্মপ্রধান। তাই অনেক বেশি গরমে, ঘাম চিটচিটে অবস্থায় ব্যবহার করার জন্য দরকার পড়ে একটু কড়া পারফিউম। যার কার্যকারিতা থাকে দীর্ঘ সময়। আবার শীতে ও বর্ষায় ব্যবহারের জন্য রয়েছে একটু হালকা ধরনের পারফিউম। যার কার্যকারিতা কিছুটা কম থাকলেও চলে।

 

সঠিক সংরক্ষণ জরুরি

সঠিকভাবে সংরক্ষণ করলে সুগন্ধি দীর্ঘদিন পর্যন্ত ভালো কাজ করে। পারফিউম সব সময় শুষ্ক ও কিছুটা শীতল স্থানে রাখতে হয়। এ জন্য ওয়ার্ডরোব বা এমন কোনো স্থানেও রাখা যায়। ছিপি থাকলে মুখ খুব শক্ত করে লাগিয়ে রাখতে হবে। তাহলে এটি বেশি দিন থাকবে। যেহেতু কেমিক্যাল, তাই সূর্যের আলো পড়ে এমন স্থানে কখনো পারফিউম রাখবেন না।

 

দামের জন্য আলোচনায়!

কিছু পারফিউমের দাম এতটাই বেশি যে অবাক হতে হয়। ক্লাইভ ক্রিস্টিয়ানের তৈরি পারফিউম ইম্পেরিয়াল ম্যাজেস্ট্রির ১৬.৯ আউন্সের দাম দুই লাখ ১৫ হাজার মার্কিন ডলার বা এক কোটি ৬৮ লাখ টাকা। এই পারফিউম পাওয়া যায় ‘বাক্কারাত’ নামের ক্রিস্টালের বোতলে। এই বোতলের ১৮ ক্যারেট সোনা ও পাঁচ ক্যারেটের হীরাও ব্যবহার করা হয়েছে।

 



মন্তব্য