kalerkantho

মেলার তৃতীয় সপ্তাহের ২ বই
রাজু ভাই মাইনাস শেলী আপা

দিনযাপনের আনন্দ বেদনার গল্প

মাসউদ আহমাদ

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দিনযাপনের আনন্দ

বেদনার গল্প

রাজু ভাই মাইনাস শেলী আপা : মোস্তফা মামুন। প্রকাশক : অনন্যা। প্রচ্ছদ : ধ্রুব এষ। মূল্য : ২০০ টাকা

বাস্তবের সত্য গল্প, ঘটনা এবং লেখকের হূদয়ে তুলে রাখা বহুকৌণিক ভাবনারেখা যখন ভাষা পায়, তখনই তা সাধারণ কথার সীমানা পেরিয়ে হয়ে ওঠে শিল্পভাষ্য। ‘সাহিত্যের একমাত্র উদ্দেশ্য রস সৃষ্টি’—বলেছিলেন প্রবোধকুমার সান্যাল। এই রসের রকম ও বিভা নিয়ে নানা মত থাকলেও সত্য এই যে—আনন্দ ও রস পাওয়ার লোভেই মানুষ সাহিত্য পাঠ করে থাকে। মোস্তফা মামুনের নতুন উপন্যাস ‘রাজু ভাই মাইনাস শেলী আপা’ পড়তে ধরে রসের চিন্তাটি মনে আসে। মামুনের লেখার ভঙ্গিটি সরল, সুন্দর ও সরস। তাঁর যেকোনো ধরনের লেখা পড়তে শুরু করলে থামা যায় না, একটানা পড়ে যেতে হয় সেই রসের গুণেই।

রাজুদের বাসায় একদিন এক জ্যোতিষ এসে ঢোকে। জ্যোতিষীর চেয়ে তাঁর ভাব ও ভঙ্গি আলাদা। নতুন। পোশাকে, চলনে ও কথায় তিনি যথেষ্ট নাগরিক। জ্যোতিষীর হাত দেখা বা ভাগ্যরেখা গণনার চেয়েও রহস্যময় তাঁর নানা ধরনের কৌশল ও আচরণ। জ্যোতিষ বাসায় ঢুকে পড়ার পর থেকেই তাঁর উদ্ভট কর্মকাণ্ড এবং পরিবারের লোকদের আচরণ নিয়েই কাহিনি এগোতে থাকে। অলৌকিক ক্ষমতা ও ভাগ্যরেখা বিশ্লেষণে তাঁর কোনো কেরামতি আছে বলে ঠাহর না হলেও মজার সব ব্যাপার ঘটাতে তিনি ওস্তাদ। তাঁর ভেলকিবাজির রহস্য ধীরে ধীরে উন্মোচিত হয়। জ্যোতিষী কোনো মহামানব নন, বরং নিজেকে বিশেষ ক্ষমতার মানুষ হিসেবে তুলে ধরতে তিনি মুখোশ পরে থাকেন। সংসারে এই মুখোশ অন্য অনেকেরই যে আছে, বিশেষ করে রাজুদের পরিবারে, কাহিনি-পরম্পরায় তা বেরিয়ে আসে। সুন্দরী মেয়েদের মুখ পৃথিবীতে নানা ধরনের গোলমাল বাধিয়ে চলেছে দিনের পর দিন, কারণ তারাও মুখোশ পরে থাকে। রাজু ভাইয়ের মাকে সাধারণ মনে হলেও তাঁর চিন্তাভাবনা অন্য রকম; তাঁর চাপে কোনো কাজের বুয়া টেকে না, মত্স্যমন্ত্রী যখন ফোন না ধরে পরে রিং ব্যাক করে বিনয় দেখান বা শুটিংয়ের বাইরে সাধারণ মুখ ও পোশাকে শেলী আপা হাজির হয়, জ্যোতিষ জব্বারের জেল হয়ে যায়—তখন বুঝতে বাকি থাকে না, বেশির ভাগ মানুষই কোনো না কোনোভাবে মুখোশ পরে থাকে। কেন পরে, সেই ব্যাখ্যা ধরা শক্ত, হয়তো মানুষ নিজেও জানে না। একটি যৌথ পরিবারের নানা রঙের মানুষের সুখ-দুঃখ ও দিনযাপনের গল্প আর চেনা জীবনেরই প্রতিচ্ছবি তুলে ধরে সুপাঠ্য এই উপন্যাস।

 

মন্তব্য