kalerkantho

আবাসিক এলাকায় খাদ্যগুদাম

পোকার উৎপাত, জনজীবন অতীষ্ঠ

সৌমিত্র চক্রবর্তী, সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম)   

২৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আবাসিক এলাকায় খাদ্যগুদাম

সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারিতে খাদ্যগুদাম থেকে পোকা ছড়িয়ে পড়েছে আশপাশের গ্রামে। ছবি : কালের কণ্ঠ

উপজেলার ভাটিয়ারিতে আবাসিক এলাকায় স্থাপিত খাদ্যগুদামের কারণে বিপাকে পড়েছে পাঁচ গ্রামের মানুষ। গুদামে সংরক্ষিত গমের পোকা ছড়িয়ে পড়ছে এলাকার বসতঘরে। এতে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী গুদামটি অপসারণ চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে স্মারকলিপি দিয়েছেন।

অভিযোগে জানা যায়, প্রায় দুই বছর আগে সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ইমামনগর (ছোঁয়াখালী ফেরিঘাট রোড) গ্রামে মরহুম আলী আহমদ চেয়ারম্যানের ছেলেদের কাছ থেকে জমি নিয়ে সেখানে খাদ্যগুদাম স্থাপন করেন চট্টগ্রামের মালেক মাঝি নামে এক ব্যক্তি। এর পর ওই গুদামে বিদেশ থেকে আমদানি করা বিপুল পরিমাণ গম মজুত রাখা হয়েছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, বর্তমানে গুদামে রাখা গমগুলোতে পোকা ধরেছে। এসব পোকা ছড়িয়ে পড়েছে আশপাশের পাঁচ গ্রামে। পোকাগুলো বাড়ি ঘরে খাবার, জামাকাপড়সহ বিভিন্ন জিনিসপত্রে আক্রমণ করে ব্যবহারের অনুপযোগী করে তুলছে। অবস্থা এমনই, ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন মানুষের কানে পোকা ঢুকে পড়ে। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে ওই পোকা অপসারণ করতে হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা মাইনুল এরশাদ বলেন, ‘গুদামটি স্থাপন হওয়ার পর থেকে পোকার উপদ্রব শুরু হয়েছে। এলাকাবাসী ঘরে শান্তিতে ঘুমাতে পারছেন না। কানে পোকা প্রবেশ করায় ইমামনগর গ্রামের কাউছার আক্তার ও মো. আবদুলের কানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে পোকা বের করতে হয়েছে। প্রতিদিন খাবার রান্নার পর এতে পোকা পড়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ফলে ঘরে ঘরে অসন্তোষ দানা বাঁধছে। এসব কারণে আমরা প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, প্রেস ক্লাবসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দিয়েছি।’

গ্রামবাসীর শান্তির জন্য গুদামটি উচ্ছেদের আর্জি জানিয়ে অভিযোগপত্রে স্বাক্ষর করেন মুহাম্মদ শফিউল আজম, মো. তাহের আলম সওদাগর, মো. রাজিব, মালেক খান, জাহাঙ্গীর আলম, আবুল কালামসহ অনেকে।

অভিযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে খাদ্যগুদামের মালিক মো. মালেক মাঝি বলেন, ‘আমি তো জমি ভাড়া নিয়ে গুদাম করেছি। ভাড়া না দিলে তো গুদাম করতে পারতাম না। গুদামে মালামাল রাখলে কিছু অসুবিধা তো হতেই পারে। সেটা যারা ভাড়া দিয়েছে তারা কি জানত না?’

এরপরও গুদাম দেখাশোনার দায়িত্বে যে আছেন তাঁর সঙ্গে কথা বলে একটা ব্যবস্থা করার আশ্বাস দেন তিনি।

সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায় বলেন, ‘গ্রামবাসীর অভিযোগ পেয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে বিষয়টি সুরাহা করার জন্য বলা হয়েছে।’

ভাটিয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘পোকার উপদ্রবে সমস্যা হওয়ার কথা জানিয়ে গুদামটির মালিককে ডাকা হয়েছে। তিনি কয়েকদিনের মধ্যে গুদামে রাখা গমগুলো সরিয়ে নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন।’

 

মন্তব্য