kalerkantho

বাণিজ্যমেলায় ‘ভিজিট ইন্ডিয়া’ স্টল

ভারত ভ্রমণের তথ্য হাতের মুঠোয়

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

২৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারত ভ্রমণের তথ্য হাতের মুঠোয়

নগরের পলোগ্রাউন্ডে বাণিজ্যমেলায় গতকাল ‘ভিজিট ইন্ডিয়া’ স্টল উদ্বোধন করেন ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জি। ছবি : কালের কণ্ঠ

ভারত ভ্রমণ আরও সহজ ও আনন্দদায়ক করতে চট্টগ্রামবাসীর জন্য বাণিজ্যমেলায় ‘ভিজিট ইন্ডিয়া’ নামে স্টল চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতীয় দূতাবাস চট্টগ্রামের সহকারী হাইকমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জি। তিনি বলেন, ‘এর মাধ্যমে হাতের মুঠোয় ভারত ভ্রমণের সব তথ্য মিলবে।’

গতকাল শনিবার সকালে এ স্টলের উদ্বোধনকালে ভারতীয় দূতাবাস চট্টগ্রামের সহকারী হাইকমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জি এসব কথা বলেন। তিনি জানান, ২০১৭ সালে চট্টগ্রাম থেকে এক লাখ ৬০ হাজার লোককে আমরা ভিসা দিয়েছি। ২০১৮ সালে তা বেড়ে এক লাখ ৮৯ হাজারে দাঁড়িয়েছে। আরও বেশি লোককে ভিসা দিতে চায় ভারত।

অনিন্দ্য ব্যানার্জি বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর লাখ লাখ লোক ভারত ভ্রমণে যায়। এ কারণে আমরা বাংলাদেশের জনগণের জন্য ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করেছি। দূর-দূরান্তে বাস করা লোকজন যাতে সহজে ভিসা নিতে পারে এ জন্য চট্টগ্রাম বিভাগের কুমিল্লা, নোয়াখালী এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩টি ভিসা সেন্টার চালু করেছি।’

ভারত সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে জানিয়ে অনিন্দ্য ব্যানার্জি বলেন, ‘১৯৭১ সাল থেকেই ভারত বাংলাদেশের পাশে আছে। বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় ভারত সব সময় পাশে থাকবে। অতীতের যে কোনো সময়ের তুলনায় ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক এখন অনেক বেশি সুদৃঢ়। আমরা এ সম্পর্ক অব্যাহত রাখতে চাই।’

তিনি বলেন, ‘কয়েক দশক ধরে বাংলাদেশ অনেক উন্নতি করেছে। ১৯৯০ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত আমি ঢাকায় ছিলাম। তার ২১ বছর পরে ২০১৭ সালে চট্টগ্রাম এসেছি। এসে বুঝেছি, বাংলাদেশ আর আগের জায়গায় নেই। যার পুরো কৃতিত্ব বাংলাদেশের পরিশ্রমী মানুষের। বাংলাদেশের এ অভূতপূর্ব উন্নয়নে আমরা ভারতবাসী অত্যন্ত আনন্দিত।’

অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মাহবুবুল আলম। তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের কঠিন দিনগুলোতে ভারত আমাদের পাশে থেকে অকৃত্রিম বন্ধুর পরিচয় দিয়েছে। ১৯৭১ সালে যে বন্ধুত্বের শুরু তা এখনো অব্যাহত রয়েছে। আমরা এ সম্পর্ককে আরও উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই। ব্যবসা-বাণিজ্যসহ সব ক্ষেত্রে ভারতের আরও সহযোগিতা চাই। দুই দেশের বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে এনে ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্য বাড়াতে চাই।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় দূতাবাস চট্টগ্রামের ফার্স্ট সেক্রেটারি শুভাশিষ সিনহা, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সহসভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, পরিচালক কামাল মোস্তফা চৌধুরী, অঞ্জন শেখর দাশ, জহুরুল ইসলাম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. ফারুক প্রমুখ।

যেভাবে মিলবে সেবা : স্টলের সেবা সম্পর্কে ভারতীয় দূতাবাস চট্টগ্রামের একজন কর্মকর্তা জানান, ভারত ভ্রমণে আগ্রহী যে কেউ এ স্টলে এলে তাকে প্রথমে আমরা ‘ইন্ডিয়া ম্যাপ’ দেবো। ম্যাপে ভারতের চিকিৎসা, ভ্রমণ ও ব্যবসাকেন্দ্রগুলো চিহ্নিত করা রয়েছে।

তিনি বলেন, ‘ম্যাপটি দেখে তিনি যে এলাকা ভ্রমণ করতে চান, সেই এলাকার যাতায়াত, থাকা-খাওয়ার তথ্যসহ সব ধরনের তথ্য আমরা তাকে ই-মেইলে দিয়ে দেবো। ই-মেইলটি দেখে পছন্দের জায়গা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাবেন তিনি।’

মন্তব্য