kalerkantho

আনোয়ারা উপকূলে তরমুজ চাষ

বিশুদ্ধ পানির অভাবে কপাল পুড়ছে শত কৃষকের

নুরুল ইসলাম, আনোয়ারা (চট্টগ্রাম)   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



উপজেলার উপকূলীয় ইউনিয়ন রায়পুরের বঙ্গোপসাগর ও শঙ্খ নদীর মোহনায় তরমুজ চাষে গত পাঁচ বছর ধরে ভাগ্য বদলের চেষ্টায় ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা। গেল দুই বছরের তুলনায় এবার উৎপাদন ভালো হলেওে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বঙ্গোপসাগরের লোনাপানি। প্রয়োজনীয় সেচকাজ যথাসময়ে করতে না পারায় ফসল নষ্ট হওয়ায় পাশাপাশি ক্ষেতে মরণ ধরেছে। পানির অভাবে চাষিদের কপাল পুড়ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, আনোয়ারা উপকূলের বার আউলিয়া ও ধলঘাট এলাকার চরে তরমুজ চাষ শুরু হয় বছর পাঁচেক আগে। প্রথম প্রথম চাষিদের মাঝে আগ্রহ তেমন না থাকলেও উৎপাদন ভালো হওয়ায় তরমুজ চাষে আগ্রহ দিনদিন বাড়ছে চাষিদের। বর্তমানে স্থানীয়রা ওই এলাকার উপকূল জুড়ে তরমুজ চাষ করেছেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এখানকার উৎপাদিত তরমুজের ফলন আকারে যেমন বড় তেমনি মিষ্টিও। তাই এলাকায় এ তরমুজের চাহিদা বাড়ছে। ক্রেতারা চাষিদের কাছ থেকে তরমুজ কিনে চট্টগ্রামের বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করেন।

স্থানীয় তরমুজ চাষি পূর্ব গহিরা মোহাম্মদ ছৈয়দ নুর (৫৭) জানান, তিনি গত চার বছর ধরে বার আউলিয়ার চরে কয়েক একক জমিতে তরমুজ চাষ করে বেশ লাভবান হয়েছেন। তবে তরমুজ চাষ এ এলাকায় বেশ উপযোগী হলেও বিশুদ্ধ পানির অভাবে উৎপাদন বার বার ব্যাহত হচ্ছে। প্রতিবছর এ সময়ে সাগরে লোনাপানি থাকায় এসব পানি ক্ষেতে ব্যবহার করা যায় না। তাই দুই কিলোমিটারের বেশি দূর থেকে পানি নিয়ে আসতে হয়। ছোট ছোট বালতি কিংবা ড্রামে কাঁধে বহন করে এ পানি আনতে অনেক কষ্ট হয়। এভাবে একটি ক্ষেতে সেচ দিতে কয়েক সপ্তাহ সময় লাগে। বর্তমানে পানির অভাবে যেমন ফলন বড় হচ্ছে না তেমনি অনেক ক্ষেত মরে যাচ্ছে।

আরেক তরমুজ চাষি আমির আহমদ বলেন, ‘তরমুজ চাষে আমাদের বড় সমস্যা বিশুদ্ধ পানি। সরকার যদি এখানে একটি গভীর নলকূপ স্থাপন করে আমাদের পানির সমস্যা দূর করে তাহলে এ অঞ্চলের অনেক চাষি তরমুজ চাষ করার সুযোগ পাবেন।’

স্থানীয় চেয়ারম্যান জানে আলম বলেন, ‘উপকূলের বার আউলিয়ার মোহনায় উৎপাদিত তরমুজ মিষ্টি ও সুস্বাদু হওয়ায় এলাকার মানুষের মাঝে কদর বেড়েছে। তবে এ জন্য সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন।’

আনোয়ারা উপজেলা কৃষি অফিসার হাসানুজ্জামান জানান, উপজেলা কৃষি অফিস এখানকার তরমুজ চাষিদের বিভিন্নভাবে উৎসাহ ও সহযোগিতা করে যাচ্ছে। বর্তমানে আনোয়ারায় বার আউলিয়া উপকূল ছাড়াও পারকি সমুদ্রসৈকত, পরুয়াপাড়া, গোবদিয়া এলাকায়, বরুমচড়া, বারখাইনসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে তরমুজ চাষ হয়। গভীর নলকূপের ব্যাপারে শিগগিরই উদ্যোগ নেওয়া হবে।

মন্তব্য