kalerkantho


খালেদার মুক্তি দাবিতে বিভিন্ন স্থানে প্রতীকী অনশন

দক্ষিণ জেলা বিএনপি কার্যালয়ে ছাত্রদলের ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিবদেক, চট্টগ্রাম   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



দক্ষিণ জেলা বিএনপি কার্যালয়ে ছাত্রদলের ভাঙচুর

নগরের নিউমার্কেট এলাকায় গতকাল চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির কার্যালয় ভাঙচুর করে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

কমিটি নিয়ে বিরোধের জেরে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির কার্যালয় ভাঙচুর করেছেন ছাত্রদলের পদবঞ্চিত বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নগরের নিউমার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালনের পরপরই এ ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

ভাঙচুরের খবর পেয়ে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী ঘটনাস্থলে গিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘যারা দলীয় কার্যালয়ে হামলা চালিয়েছে তারা বিএনপির ভেতরে থাকা আওয়ামী দালাল। আমরা তাদের চিহ্নিত করছি, তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বিএনপি নেতা মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যান অভিযোগ করে বলেন, ‘দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক জসিম উদ্দিন, দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের নতুন কমিটি থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত সিনিয়র সহসভাপতি ইকবাল হায়দার এবং পটিয়া থানা ছাত্রদল সভাপতি জমির উদ্দিন মানিকের নেতৃত্বে জেলা বিএনপির কার্যালয় ভাঙচুর চালানো হয়।’

সমপ্রতি ঘোষিত দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে দুপক্ষের বিরোধের জেরে পদবঞ্চিত বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা এ ভাঙচুর করেন।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে জমির উদ্দিন বলেন, ‘আমরা তো প্রতীকী অনশনে ছিলাম। এ ধরনের কোনো ঘটনার বিষয়ে জানি না। আমরা যে প্রতীকী অনুষ্ঠানে ছিলাম, এরকম ভিডিও ফুটেজ এবং ছবি আছে। কিভাবে আমরা ভাঙচুর চালাব?’

এ ব্যাপারে দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শহীদুল আলম শহীদ ও সাধারণ সম্পাদক মহসিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা অভিযোগ অস্বীকার করেন। শহীদুল আলম বলেন, ‘আমরা সকাল ১০টা থেকে নতুন ব্রিজ এলাকার মান্নান টাওয়ারের নিচে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশন নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। ভাঙচুরের এরকম কোনো ঘটনার বিষয়ে জানি না। যদি এরকম ঘটেও থাকে তারা হয়তো সন্ত্রাসী।’

নগরের কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মহসিন বলেন, ‘এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। কেউ আমাদের অভিযোগও দেয়নি।’

 

প্রতীকী অনশন

খাগড়াছড়ি থেকে প্রতিনিধি জানান : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, কারাগারের ভেতর আদালত স্থানান্তরের প্রতিবাদ এবং তাঁর সুচিকিৎসার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে খাগড়াছড়িতে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করেছে জেলা বিএনপি।

বুধবার সকাল ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। অনশনে জেলা, উপজেলা, পৌর বিএনপি অঙ্গ ও সহোযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। পরে পানি পান করিয়ে আন্দোলনরত নেতৃবৃন্দদের অনশন ভাঙেন জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুল মালেক মিন্টু।

জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি প্রবীণ চন্দ্র চাকমার সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি আবু ইউসুফ চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক অনিমেষ চাকমা রিংকু, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এন আফসার, আ. রব রাজা, জেলা যুবদলের সভাপতি মো. মাহবুব আলম সবুজ, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. সাহেদ হোসেন সুমন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হৃদয় নুর, জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক কুহেলী দেওয়ান, জেলা ছাত্রদলের সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক মো. জাহেদুল ও সাংগঠনিক সম্পাদক একরাম হোসেন রানা।

নোয়াখালী থেকে প্রতিনিধি জানান :  প্রেস ক্লাব চত্বরে প্রতীক অনশন চলাকালে বক্তব্য দেন নোয়াখালী জেলা বিএনপির সভাপতি এ জেড এম গোলাম হায়দার বিএসসি, বেগমগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুর রহিম, নোয়াখালী জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন খান, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসান মো. নোমান প্রমুখ।



মন্তব্য