kalerkantho


রাঙামাটিতে পিসিপির কেন্দ্রীয় সম্মেলন

‘পাহাড়ে রক্তপাত বন্ধে চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন চাই’

রাঙামাটি প্রতিনিধি   

২১ মে, ২০১৮ ০০:০০



‘পাহাড়ে রক্তপাত বন্ধে চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন চাই’

পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সম্মেলনে বক্তব্য দেন জনসংহতি সমিতির সহসভাপতি ঊষাতন তালুকদার এমপি। ছবি : কালের কণ্ঠ

পাহাড়ে হানাহানি-রক্তপাত বন্ধ করার জন্য অবিলম্বে চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন করতে হবে। চুক্তি বাস্তবায়নে নানা ধরনের গড়িমসি-টালবাহানা চলছে।

রবিবার পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ২০তম কাউন্সিলে বক্তারা এ কথা বলেন। রাঙামাটি শহরের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এ সম্মেলন হয়।

সম্মেলনে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সহসভাপতি ঊষাতন তালুকদার বলেন, ‘স্বাধীন দেশে আমরা আতঙ্কে বসবাস করছি। প্রতিনিয়ত জুম্মদের মনে আতঙ্ক কাজ করছে। পাহাড়ের আদিবাসীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সদিচ্ছা, সহানুভূতি আছে। তিনি পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য যথাযথ চেষ্টা করছেন। কিন্তু আসলে সর্ষের ভেতরে ভূত, সরকারের ভেতরে সরকার! এজন্য এতো সমস্যা। হানাহানিতে সময় নষ্ট করলে চুক্তি বাস্তবায়ন হবে না।’

পরিষদের সভাপতি জুয়েল চাকমার সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরো বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মহিউদ্দিন মাহি, সাংবাদিক নজরুল কবীর, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর সাবেক সভাপতি ও সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সাংগঠনিক সম্পাদক বাপ্পাদিত্য বসু, ছাত্র মৈত্রীর সাবেক সভাপতি ফারুক আহমেদ রুবেল, জনসংহতি সমিতির রাঙামাটি জেলা কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সুনির্মল দেওয়ান, পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির রাঙামাটি জেলার সাধারণ সম্পাদক অরুণ ত্রিপুরা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি মনিরা ত্রিপুরা। স্বাগত বক্তব্য দেন পিসিপির সহ-সাধারণ সম্পাদক রামভাই পাংখোয়া।

ঊষাতন তালুকদার তাঁর বক্তব্যে রাঙামাটির সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপঙ্কর তালুকদার এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সংরক্ষিত আসনে মনোনীত সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনুর কঠোর সমালোচনা করেন।

এর আগে সকাল ১০টায় জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন অতিথিরা।

 

 

 


মন্তব্য