kalerkantho


সীতাকুণ্ডে শিব চতুর্দশী মেলা মঙ্গলবার শুরু

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড চন্দ্রনাথ ধামে শিব চতুর্দশী মেলা শুরু হচ্ছে আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার। এবারের মেলায় প্রায় ২০ লাখ ভক্তের সমাগম ঘটবে বলে আশা করছেন আয়োজকরা।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চল ছাড়াও ভারত, নেপাল, ভুটানসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে পুণ্যার্থীরা আসবে। মেলার প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে। গতকাল শুক্রবার সীতাকুণ্ড প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক পলাশ চৌধুরী এসব কথা বলেন।

লিখিত বক্তব্যে পলাশ চৌধুরী বলেন, সীতাকুণ্ড মহাতীর্থে প্রায় ৩০০ বছর আগে শিব চতুর্দশী মেলা শুরু হয়। প্রতিবছর ফাল্গুন মাসের চতুর্দশী তিথিকে ঘিরে এ মেলা শুরু হয়। সেই অনুযায়ী আগামী ১৩-১৫ ফেব্রুয়ারি তিন দিনব্যাপী শিব চতুর্দশী মেলা অনুষ্ঠিত হবে। পরে ১-২ মার্চ একই স্থানে দোল পূর্ণিমা উপলক্ষে মেলা অনুষ্ঠিত হবে।

পলাশ চৌধুরী আরো বলেন, মেলা কমিটির সভাপতি চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ও কার্যকরী সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম ভূঁইয়া, এএসপি সার্কেল শম্পা রানী সাহা, ওসি মো. ইফতেখার হাসানের সার্বিক সহযোগিতায় মেলা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মহাসড়ক থেকে পাহাড় চূড়ার চন্দ্রনাথ মন্দির পর্যন্ত কয়েক কিলোমিটার এলাকায় কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পুলিশ, র‌্যাব ও আনসার বাহিনীর সঙ্গে বেশ কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনও কাজ করবে।

প্রতিবছর গহিন পাহাড়ে বীরুপাক্ষ ও চন্দ্রনাথ মন্দিরের মধ্যবর্তী স্থানে রাতে আলোর অভাবে যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পড়ত। এবার মিরসরাইয়ের এক দাতা সেখানে আলোর ব্যবস্থা করেছেন। এ ছাড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, সীতাকুণ্ড পৌরসভা, স্থানীয় এনজিও সংস্থা ইপসাসহ বহু প্রতিষ্ঠান প্রতিবছরের মতো এবারও নানাভাবে সহযোগিতা করবে।

মেলায় আসা পুণ্যার্থীদের সুবিধার জন্য বটতলী কালীমন্দিরের সামনে থেকে চন্দ্রনাথের অবিচ্ছেদ্য অংশ অঙ্গতীর্থ ছোট দারোগারহাট লবণাক্ষ ও বাড়বকুণ্ড বাড়বানল মন্দিরে যাতায়াতে পরিবহনের ব্যবস্থা, যাত্রী চলাচলের সুবিধার্থে সড়ক থেকে দোকানপাট সরিয়ে দেওয়া, জরুরি চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা, তথ্যকেন্দ্রসহ সব ধরনের ব্যবস্থা থাকবে।

এত বিরাট আয়োজন সুসম্পন্ন করতে সংবাদ সম্মেলনে সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করেন কমিটির নেতারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক রঞ্জিত সাহা, তপন চক্রবর্তী, সমীর কান্তি শর্মা, পৌর কাউন্সিলর শফিউল আলম মুরাদ, পৌর ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসেন, সীতাকুণ্ড পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার বণিক, মেলা কমিটির দপ্তর সম্পাদক অলক ভট্টাচার্য, সদস্য বিষ্ণু ভট্টাচার্য, বিষ্ণু চরণ দাশ, সুনীল দাশ, নিতাই বণিক, মনোজ মিত্র, শিমুল ব্রহ্মচারী ও স্বপননাথ।


মন্তব্য