kalerkantho


নাশকতার আশঙ্কা

পূর্বাঞ্চল রেলে গতি কমানো হয়েছে রাত্রিকালীন ট্রেনে

নূপুর দেব, চট্টগ্রাম   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



পূর্বাঞ্চল রেলে গতি কমানো হয়েছে রাত্রিকালীন ট্রেনে

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানোর পর দলের দুই দিনের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘিরে নাশকতার আশঙ্কায় পাল্টানো হয়েছে পূর্বাঞ্চল রেলের রাত্রিকালীন ট্রেনের গতি। এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে রেললাইনে নাশকতাসহ অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কায় বৃহস্পতিবার রাত থেকে বিভিন্ন ট্রেনের গতিবেগ কমানো হয়েছে। এ কারণে গতকাল শুক্রবার আন্ত নগর ও মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন গড়ে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা বিলম্বে গন্তব্যে পৌঁছে। 

অন্যদিকে গতকাল দুপুরের পর থেকে চট্টগ্রাম-নাজিরহাট ও চট্টগ্রাম-দোহাজারী রেলপথে লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। চট্টগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ ওই দুই রুটে আজ শনিবারও লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে পূর্বাঞ্চল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। চট্টগ্রামের ওই দুটি লোকাল ট্রেনের পাশাপাশি পূর্বাঞ্চল রেলে গতকাল ডেমু ট্রেন চলাচলও বন্ধ ছিল। আজও পূর্বাঞ্চলে ডেমু ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। বাতিল করা হয়েছে ডেমু ট্রেনের সময়সূচি। রেলওয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর পর গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ময়মনসিংহ স্টেশনে বিজয় এক্সপ্রেস আন্ত নগর ট্রেনের একটি বগিতে দুর্বৃত্তরা আগুন দেয়। এ ঘটনার পর রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ আরো সতর্ক হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেল সোয়া ৫টায় রেল ভবনের নির্দেশনায় সন্ধ্যা ৬টার দিকে পূর্বাঞ্চল রেলের সদর দপ্তর সিআরবি থেকে এক তারবার্তায় চট্টগ্রামের পাহাড়তলী ও ঢাকার কমলাপুর স্টেশনস্থ কন্ট্রোল রুমে জানানো হয় বৃহস্পতিবার থেকে রাত্রিকালীন ট্রেনগুলো দেখেশুনে সতর্কতার সঙ্গে চালাতে। ওই নির্দেশনার পর রাতেই ট্রেনের গতি কমানো হয়েছে। পূর্বাঞ্চলে আন্ত নগর ট্রেনের গতিবেগ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭২ কিলোমিটার হলেও সাধারণত চলত ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার গতিতে। কিন্তু  নির্দেশনার পর ট্রেন চলেছে ঘণ্টায় ৫৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার গতিতে। এর ফলে রাত্রিকালীন ট্রেনের সময়সীমায় প্রভাব পড়েছে। ট্রেনগুলো যথাসময়ে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেটসহ বিভিন্ন রুটে ছাড়লেও গতিসীমা কমার কারণে বিলম্বে পৌঁছাচ্ছে।

চট্টগ্রাম থেকে তূর্ণা নিশীথা আন্ত নগর ট্রেন বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় ছেড়ে গতকাল ভোর ৫টা ২৫ মিনিটে ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে পৌঁছার কথা থাকলেও এক ঘণ্টা ৪৫ মিনিট বিলম্বে পৌঁছেছে। একইভাবে ঢাকা থেকে তূর্ণা নিশীথা রাত সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। ট্রেনটি এক ঘণ্টা ১৫ মিনিট বিলম্বে গতকাল সকাল ৭টা ৩৫ মিনিটে চট্টগ্রাম পৌঁছেছে। ঢাকা থেকে মহানগর ট্রেন রাত ৯টায় চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। ট্রেনটি গতকাল রাত সাড়ে ৪টায় চট্টগ্রাম পৌঁছার কথা থাকলেও এক ঘণ্টা ৫ মিনিট বিলম্বে ভোর ৫টা ৩৫ মিনিটে চট্টগ্রামে পৌঁছে। উপবন এক্সপ্রেস ঢাকা থেকে সিলেটের উদ্দেশে রাত ৯টা ৫৫ মিনিটে ছেড়ে যায়। ট্রেনটি গতকাল ভোর ৫টা ২০ মিনিটে পৌঁছার কথা থাকলেও গতি কমার কারণে দুই ঘণ্টা ৪৫ মিনিট বিলম্বে সকাল ৮টা ৫ মিনিটে পৌঁছে। চট্টগ্রাম থেকে সিলেটের উদ্দেশে আন্ত নগর উদয়ন এক্সপ্রেস রাত পৌনে ১০টায় ছেড়ে যায়। ট্রেনটি দুই ঘণ্টা ১৫ মিনিট বিলম্বে গতকাল সকাল পৌনে ৯টায় সিলেটে পৌঁছে।

এদিকে গতকাল রেল ভবনের নির্দেশনায় পূর্বাঞ্চল রেলওয়ে চট্টগ্রাম-নাজিরহাট ও চট্টগ্রাম-দোহাজারী রেললাইনে লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়। গতকাল দুপুর থেকে ওই দুই রুটে লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। আজও বন্ধ থাকবে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম-নাজিরহাট রুটে একসেট ডেমু ট্রেন দিনে তিনবার আসা-যাওয়া করলেও গতকাল থেকে সেগুলো বন্ধ রয়েছে।

চট্টগ্রাম রেলস্টেশনের ব্যবস্থাপক আবুল কালাম আজাদ গতকাল সন্ধ্যায় কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘যাত্রী ও রেলওয়ের সম্পদের নিরাপত্তায় বৃহস্পতিবার রাত থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে ট্রেন চালানোর নির্দেশনা আমরা পেয়েছি। নাশকতার আশঙ্কায় রাত্রিকালীন ট্রেনগুলোর গতি আগের চেয়ে কিছুটা কমানো হয়েছে। এ কারণে ট্রেনগুলো বিলম্বে পৌঁছছে। তবে ট্রেন যথাসময়ে ছেড়ে গেছে।’



মন্তব্য