kalerkantho


তিনটি কবিতা

আশরাফ সিদ্দিকী বিটু   

২ মে, ২০১৭ ১৮:৫৫



তিনটি কবিতা

বৃষ্টির শব্দমালা

লেখাগুলো ঝাপসা হলেও
বুকের মাঝে অনুরণন অবিরত

স্পর্শের কোনো চিহ্ন নেই
নিউরনে জমা যতো, বারবার
কম্পনের প্রতীক্ষায় অস্থির হয়।

অ্যানেস্থেসিয়া দিলেও অচেতনতার পরও  
লোমকূপগুলো আলোড়িত হয় 
স্পর্শ আর লেখার স্মৃতিতে!

আকাশের অভিমানে ভেসে যায় বাথান, চোখের ক্ষত,
নিঃশব্দ নিঃশ্বাসের আকুতি অন্তঃক্ষরা গ্রন্থির ক্রিয়াই তবে!

 


বিকেলের চা চক্র

একান্ত শব্দগুলো বৃষ্টির মতো, তোমার উঠানে ঢল
নামায় স্পর্শে নতুন হয়ে জাগতে!

রোদগুলো আড়াল হয়, ছায়া হবো বলে;
সন্ধ্যাকে বলি আরো পেলবতা দাও; 
তোমার ব্যালকনিতে চাঁদ নামাব!

নিঃশ্বাস পড়ে গেলে বুঝি ক্ষয় হয় স্বপ্নের!
আমি অনাহূত; কাঙ্খিত সমর্পণে অস্থির!

 

কুসুম সন্ধ্যায় নীল পাখি

কুসুম সন্ধ্যা, ভূমির গল্প, গোলাপি ঠোঁট,
হলদেটে হয়ে গেছে হিসেবের খাতা;

একটা শ্রান্ত পাখি ডেকে বলল—ওই চোখের রসায়ন
জানে না প্রকৃতি; তুমি মেতে থাকো আবিষ্করে

নতজানু শরীর পেল না স্বস্তি, কুহক কণ্ঠ ডোবাল, 
চোখ আর ঠোঁটের ইশারায় রাত নামল বনের বুকে

এতোটা উতলা, পাখিটি বলল—সমর্পণেই পাবে তৃপ্তি!

। ।

মন্তব্য