kalerkantho

২১ শিখের বীরত্বগাথা

২১ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



২১ শিখের বীরত্বগাথা

অক্ষয় কুমারের সিনেমা মানেই যেন দেশপ্রেমের বার্তা। ‘কেসরি’ও ব্যতিক্রম নয়। ১০ হাজার আফগান সেনার বিরুদ্ধে ২১ শিখের সাহসিকতার গল্প নিয়ে ছবিটি মুক্তি পাবে আগামীকাল। লিখেছেন মামুনুর রশিদ

 

‘কেসরি’ দেশপ্রেমের তো বটেই, একই সঙ্গে পিরিয়ড ছবিও। অক্ষয় কুমারের ক্যারিয়ারে এটাই প্রথম পিরিয়ড ছবি। সিনেমার প্রেক্ষাপট ১৮৯৭ সাল, যখন ১০ হাজার আফগান আক্রমণকারীকে রুখে দিয়েছিল মাত্র ২১ জন শিখ সেনা, যা ইতিহাসে ‘ব্যাটল অব সারাগার্হি’ নামে পরিচিত। এই সিনেমায় অক্ষয়কে দেখা যাবে হাবিলদার ঈশার সিংয়ের চরিত্রে, যিনি ২১ শিখ সেনার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। অভিনেতার পাশাপাশি অক্ষয় এই সিনেমার অন্যতম প্রযোজকও। ২০১৭ সালে যখন সিনেমার ঘোষণা হয়, তখন অক্ষয় কুমার, করণ জোহরের পাশাপাশি সালমান খানের নামও ছিল প্রযোজকের তালিকায়। পরে অজানা কারণে সালমান সরে যান। ‘কেসরি’ পরিচালনা করেছেন ‘দিল বোলে হাড়িপ্পা’ খ্যাত অনুরাগ সিং। প্রায় ১০ বছর পর হিন্দি সিনেমা করছেন তিনি। মূলত পাঞ্জাবি সিনেমার পরিচালক হিসেবেই পরিচিত অনুরাগ। পিরিয়ড বা ওয়ার সিনেমা সাধারণত বিশাল সেট ফেলে হয়। এ ক্ষেত্রেও তা-ই হয়েছে। ‘কেসরি’র যুদ্ধের দৃশ্যগুলো দৃশ্যায়ন করতে মুম্বাই থেকে প্রায় ১৫০ কিলোমিটার দূরে ওয়াই নামক স্থানকে বেছে নেন পরিচালক। শুটিংয়ের সময় ভয়াবহ আগুনে পুরো সেট ধ্বংসও হয়েছিল একবার। পরে ফের তৈরি করা হয় সেট। যুদ্ধের দৃশ্যগুলোতে ২৪ জন সিনিয়র ও তিন হাজার জুনিয়র আর্টিস্ট কাজ করেছেন।

‘কেসরি’তে আছেন পরিণীতি চোপড়া। অক্ষয় কুমারের সঙ্গে প্রথমবারের মতো জুটি বেঁধেছেন তিনি। তবে ছবিতে তাঁর ভূমিকা তত গুরুত্বপূর্ণ কিছু নয়।

নিজের চরিত্রের জন্য বেশ খাটতে হয়েছে অক্ষয়কে। হাবিলদার ঈশার সিংয়ের লুক আনতে বিশাল এক পাগড়ি পরতে হয়েছে, রাখতে হয়েছে মুখ ভর্তি দাড়ি। পাগড়ির ওজনই ছিল প্রায় ছয় কেজি! চুলের জন্য বিশাল এই পাগড়ি পরতে সমস্যা হওয়ায় শুটিংয়ের সময় চুল ফেলে দিয়েছিলেন। অন্য সিনেমার মতো এখানেও যথারীতি নিজের স্টান্টগুলো নিজেই করেছেন অক্ষয়। একবার মারাত্মক জখমও হয়েছিলেন। এত কষ্টের পরও শেষ পর্যন্ত ‘কেসরি’ মুক্তি পাওয়ায় খুশি অভিনেতা, “এই গল্পটা চাপা পড়ে গিয়েছিল, খুঁজে বের করেছি। আমরা বিখ্যাত ‘৩০০’ ছবির কথা জানি, কিন্তু আমাদের দেশেই যে মাত্র ২১ জনের অসীম বীরত্বগাথা আছে, কজন জানত?”

অক্ষয় চেয়েছিলেন ভারতের স্বাধীনতা দিবসে সিনেমাটি মুক্তি দিতে, তবে করণ রাজি হননি। কারণ স্বাধীনতা দিবসে মুক্তি পাবে করণের প্রযোজনায় আরেকটি বড় বাজেটের ছবি ‘ব্রহ্মাস্ত্র’।

 

 

মন্তব্য