kalerkantho

ইনস্টাগ্রামের রানি

প্রতিশ্রুতিশীল গায়িকা তো অনেকেই আছেন। প্রথম অ্যালবামেই সাফল্য, গ্র্যামি জয়ের উদাহরণেরও অভাব নেই। কিন্তু কার্ডি বি তার চেয়েও বেশি কিছু। ইনস্টাগ্রামে চার কোটির বেশি অনুসারী তারই প্রমাণ। নানা কারণে আলোচিত এই গায়িকাকে নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

২১ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইনস্টাগ্রামের রানি

ডিজিটাল সময়ের ফায়দা পুরোপুরি উসুল যাঁরা করতে পেরেছেন, কার্ডি বি তাঁদের অন্যতম। কিছু করার আগেই তারকা তো আর এমনি এমনি হননি। হালের জনপ্রিয় শব্দ ‘ইন্টারনেট সেলিব্রিটি’ বলা যায় তাঁকে দিয়েই জনপ্রিয় হয়। মূলত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর বেশ কয়েকটি পোস্ট ভাইরাল হওয়ার পরই এই তকমা জোটে। এরপর ‘ভিএইচ১’ চ্যানেলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে বেশ কিছু কাজ করেন। এগুলো সবই ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালের ঘটনা। ২০১৮ সালে মুক্তি পায় তাঁর প্রথম অ্যালবাম ‘ইনভেশন অব প্রাইভেসি’। ব্যাপকভাবে সফল অ্যালবামের সব গানই প্রথম সপ্তাহেই বিলবোর্ড হট ১০০-এ জায়গা পেয়েছিল। কার্ডি বি ইতিহাসের একমাত্র গায়িকা, যাঁর এই বিরল রেকর্ড আছে। অ্যালবামটির জন্য এবার গ্র্যামিতে ‘বেস্ট র‌্যাপ অ্যালবাম’ পুরস্কারও পান শিল্পী। গায়িকা হিসেবে এই পুরস্কারও আগে কেউ পায়নি। কার্ডি বি র‌্যাপার। এ পর্যন্ত তাঁর গাওয়া তিন গান বিলবোর্ডের শীর্ষে জায়গা পেয়েছিল, যার অন্যতম ‘গার্লস লাইক ইউ’। ব্যান্ড ম্যারন ফাইভের সঙ্গে মিলে গানটি করেছিলেন। প্রায় দুই কোটি ভিউ ছিল গানটির ভিডিওর, যা গেল বছরের সর্বোচ্চ। এ ছাড়া নেটফ্লিক্সের ১০ পর্বের হিপহপ প্রতিভা অন্বেষণের শোর বিচারকও ছিলেন কার্ডি। গায়িকার এত জনপ্রিয়তা, তরুণদের ওপর তাঁর প্রভাব বিবেচনা করেই গেল বছর টাইম ম্যাগাজিন বিশ্বজুড়ে ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের তালিকায় রেখেছিল তাঁকে। অনেকের মতে, সর্বকালের সেরা নারী র‌্যাপার হওয়ার দিকে হাঁটছেন কার্ডি বি। তিনি নিজে অবশ্য বরাবরই এসব ভবিষ্যদ্বাণী পাত্তা দেন না, যেমনটা থোড়াই কেয়ার করেন সমালোচনাও। ডোমিনিকান বাবা ও ক্যারিবিয়ান মায়ের সন্তান বিতর্কেও জড়ান নিয়মিতই। এই যেমন গেল বছরই এক নাইট ক্লাবে আরেক গায়িকা নিকি মিনাজের সঙ্গে রীতিমতো লেগে গিয়েছিল।

কার্ডিকে এরই মধ্যে অনেকে তুলনা করছেন অনেক কিংবদন্তি গায়িকার সঙ্গে। তবে গায়িকা নিজে আদর্শ মানেন লেডি গাগাকে। নানা নির্যাতন, হেনস্তার পরও যেভাবে সাহসিকতার সঙ্গে আজকের অবস্থানে এসেছেন, তার জন্য গাগাকে কুর্নিশ জানাতে চান। ‘তিনি তরুণ বয়স থেকেই আমার উদাহরণ। আমার প্রথম গ্র্যামি জেতার সময় তিনি হাজির ছিলেন, এটা দারুণ ব্যাপার।’

প্রথম অ্যালবামে এত সাফল্যের পর সেটা উপভোগ করতে চান কার্ডি। তাই এখনই দ্বিতীয় অ্যালবামের কথা ভাবছেন না, আপাতত ব্যস্ত থাকতে চান ট্যুর নিয়েই।

মন্তব্য