kalerkantho


অভিষেকের ফেরা

তারকাপুত্র বলে সুযোগ পান—এই অভিযোগ উঠত নিয়মিত। সেই ক্ষোভ থেকেই কি না বিরতি। নতুন রূপে অভিষেক বচ্চন ফিরছেন ‘মনমর্জিয়া’ দিয়ে। লিখেছেন লতিফুল হক

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



অভিষেকের ফেরা

অমিতাভ বচ্চনের মতো তারকার ছেলে। কিন্তু তাঁর নামে ছবি হিট হয় না, অভিনয় নিয়ে সমালোচনা বিস্তর। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাই সমালোচনার প্রিয় পাত্র অভিষেক বচ্চন। পান থেকে চুন খসলেই ট্রল। এমনকি পরিবার নিয়ে ছুটি কাটাতে গেলেও প্রশ্ন ওঠে—হাতে ছবি নেই, ঘোরার টাকা পাচ্ছেন কোথায়? আগে হলে এসব প্রশ্ন শুনে তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠতেন। কিন্তু এখন ঠাণ্ডা মাথায় জবাব দেন। নিজের মধ্যে ঠিক এই ধরনের পরিবর্তনের জন্যই বিরতি নিয়েছিলেন জুনিয়র বচ্চন, ‘কাজ করতে করতে হঠাৎ মনে হলো, সৃজনশীল ব্যক্তি হিসেবে আমার এমন কিছু করা উচিত, যার জন্য মানুষ আমাকে মনে রাখবে। এমন কোনো চরিত্র, যা চ্যালেঞ্জ জানাবে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে তেমন কিছু নিয়মিত পাচ্ছিলাম না। মনে হলো, একটা বিরতি দরকার। নিজেকে পুনর্নির্মাণ করতে হবে। সে জন্যই বিরতি।’ উদাহরণ দিয়ে অভিষেক আরো বলেন, “সেই কবে ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ করেছি। কিন্তু অনেকে, বিশেষ করে শিশুরা এখনো ‘নান্দু’ চরিত্রের কথা বলে। এটা এমন একটা চরিত্র ছিল, যা করতে গিয়ে ভয় পেয়েছিলাম। কারণ নান্দুর মতো লোকের সঙ্গে কখনো দেখা হয়নি। নিজেকে ওর মতো করে তোলা খুব কঠিন ছিল। অভিনেতা হিসেবে এমনটাই তো চাই।’ অভিনেতার দাবি, দুই বছরের এই বিরতি তাঁর দারুণ কাজে লেগেছে। একেবারে তরতাজা হয়ে ফিরেছেন, ‘অভিনয় না করলেও আমি বসে ছিলাম না। ফুটবল, কাবাডির দুটি দল আছে, অন্য ব্যবসা আছে। এসব নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। মাঝেমধ্যে সুইচ অফ করে রাখা কাজের জন্য ভালো।’

‘মনমর্জিয়া’য় অভিষেকের আসা হঠাৎ। একদিন পরিচালক আনন্দ এল রাই আসেন দেখা করতে। বলেন, তাঁর প্রযোজিত নতুন ছবির জন্য অভিষেককে ভাবছেন। গল্প শোনার পর পছন্দও হয়। কিন্তু মুশকিল হয় অন্য জায়গায়। ছবির পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ শোনার পর খানিকটা দ্বিধা তৈরি হয়। কারণ অতীতে কিছু বিষয় নিয়ে দুজনের মধ্যে তিক্ততা ছিল। তবে এই তিক্ততাকেই চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেন তিনি, ‘অনুরাগের সঙ্গে সম্পর্ক আগে ততটা ভালো ছিল না। আমি ভাবলাম—ঠিক আছে, এটাই আমার চ্যালেঞ্জ। মনের বিপরীতে গিয়ে কাজ করতে হবে।’ কিন্তু কাজ করতে নেমেই সব তিক্ততা উধাও। দ্রুতই অনুরাগের অনুরাগী হয়ে ওঠেন, ‘সে দুর্দান্ত। পুরো স্ক্রিপ্ট তার ছোঁয়ায় জাস্ট বদলে গেছে। আগেও দারুণ স্ক্রিপ্ট ছিল, কিন্তু অনুরাগ যুক্ত হওয়ার পর এটা অন্য লেভেলে চলে গেছে।’

দুই বছর আগে আনন্দ এল রাইয়ের প্রযোজনায় তিনটি ছবি পরিচালনার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন অনুরাগ। ‘মু্ক্কাবাজ’-এর পর দ্বিতীয়টি হলো ‘মনমর্জিয়া’। এই রোমান্টিক কমেডিতে অভিষেক করেছেন শিখ যুবক রবি চরিত্র। ছবিতে আরো আছেন ভিকি কৌশল ও তাপসী পান্নু। এই ছবির মুক্তির পর দ্রুতই দেখা হবে অনুরাগ-অভিষেকের। কারণ ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে সামনের মাসেই ‘গুলাবজামুন’-এর শুটিং শুরু হওয়ার কথা। এই ছবি দিয়ে আট বছর পর অভিষেক-ঐশ্বরিয়া জুটিকে পর্দায় দেখা যাবে।



মন্তব্য