kalerkantho


মাকে ছাড়াই শুরু

মায়ের হঠাৎ মৃত্যুতে মন খারাপ। তবে সব পেছনে ফেলে নিজের নামেই পরিচিত হতে চান জাহ্নবী কাপুর। ‘ধড়ক’ মুক্তির আগে তাঁকে নিয়ে লিখেছেন মামুনুর রশিদ

১৯ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



মাকে

ছাড়াই শুরু

ছোটবেলা থেকেই উড়নচণ্ডী। পড়ালেখায় মনোযোগ ছিল না, খালি ঘুরে বেড়ানোর নেশা। স্কুলে কখনোই ৩০ শতাংশের বেশি উপস্থিতি থাকত না। এ জন্য শিক্ষকদের কাছ থেকে বকুনিও কম খাননি। তবে সেসব থোড়াই কেয়ার করেন। মা-বাবার সঙ্গে ঘুরে বেড়ানোই জাহ্নবী কাপুরের একমাত্র নেশা। এমন মেয়েকে নিয়ে স্বভাবতই চিন্তিত ছিলেন শ্রীদেবী। কখনোই চাননি ও অভিনয়ে আসুক। ‘ও খুবই আত্মভোলা, সহজ-সরল। অভিনয়ের কঠিন দুনিয়ায় ওর মানিয়ে চলাটা খুব কঠিন হবে। এ জন্যই আমি চেয়েছি— জাহ্নবী নয়, খুশি আসুক অভিনয়ে,’ গেল বছর এক সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন শ্রীদেবী। অভিনেত্রী চেয়েছিলেন, সিনেমাদুনিয়ার বাইরে একটা সাধারণ, শান্ত জীবন যাপন করুক জাহ্নবী। কিন্তু সেই ছোটবেলা থেকে মায়ের কাছে সিনেমার নানা গল্প শুনতে শুনতে কখন যে এই জগেক ভালোবেসেছেন জাহ্নবী নিজেও জানেন না। তাই ফ্যাশন ডিজাইনার হওয়ার ইচ্ছা থাকলেও এলেন সেই সিনেমাতেই।

‘ধড়ক’ জাহ্নবীর প্রথম সিনেমা হলেও বছর তিনেক ধরেই তিনি আলোচিত। এই ছবির আগেও তাঁর অভিনয়ে আসার কথা শোনা গেছে আরো কয়েকটি ছবিতে। মহেশ বাবুর বিপরীতে তেলেগু ছবি ‘স্পাইডার’-এ প্রস্তাব পেয়েছিলেন।  কিন্তু জাহ্নবী মনে করেছিলেন, তিনি তখনো সিনেমার জন্য প্রস্তুত নন। রণবীর সিংয়ের সঙ্গে ‘সিমবা’ও করা হয়নি। এরপর করণ জোহরের ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’-এর সিক্যুয়ালে অভিনয়ের কথা থাকলেও বাদ পড়েন। তবে করণেরই প্রযোজনা সংস্থা থেকে আসছেন ‘ধড়ক’ দিয়ে। স্বভাবতই জাহ্নবীর সবচেয়ে বড় শিক্ষক মা শ্রীদেবী। তিনিই এই স্ক্রিপ্ট পছন্দ করেছিলেন মেয়ের অভিষেক সিনেমা হিসেবে। মৃত্যুর আগে মেয়ের ছবির ২৫ মিনিটের একটা অসম্পাদিত ফুটেজ দেখেছিলেন শ্রীদেবী। এই ফুটেজ দেখে জাহ্নবীর আরো উন্নতি করতে হবে বলে মতও দিয়েছিলেন তিনি। ‘মা কোনো প্রশংসা করেননি; অভিনয়, মুখের এক্সপ্রেশন নিয়ে মত দিয়েছেন। প্রথমেই বলেছেন, আমার অভিনয় আরো ভালো করতে হবে। কিছু কিছু জায়গায় মেকআপ আর পোশাক নিয়েও কথা বলেছেন,’ বলেন জাহ্নবী।

‘ধড়ক’ ২০১৬ সালের ব্লকবাস্টার মারাঠি সিনেমা ‘সাইরাত’-এর অফিশিয়াল রিমেক। দুটি কিশোর মনের ভালোবাসা, গোত্রবিভেদকে ঘিরে দুই পরিবারের দ্বন্দ্ব এবং অনার কিলিংয়ের মতো নানা বিষয় নিয়ে ছবি। ‘ধড়ক’-এ জাহ্নবীর জুটি শহিদ কাপুরের ছোট ভাই ঈশান খাট্টার, যাঁকে আগে মাজিদ মাজিদির ‘বিয়ন্ড দ্য ক্লাউডস’-এ দেখা গেছে। কিছুদিন আগে ছবির ট্রেলার মুক্তির পর প্রশংসায় ভেসেছেন দুজনই। বলিউডের প্রথম সারির তারকারাসহ জাহ্নবী-ঈশানকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ‘সাইরাত’-এর পাত্র-পাত্রীরা। তাতে আপ্লুত হলেও জাহ্নবী জানেন সত্যটা, ‘এত আলোচনা, ইনস্টাগ্রামে বিশ লাখ অনুসারী—কিছুই আমি অর্জন করিনি। এত সব পেয়েছি মা-বাবার কল্যাণে। এখন থেকে নতুন শুরু, প্রাপ্তি বা হারানো—সবই হবে নিজের জন্য।’

এ বছরের শুরুর দিকে শ্রীদেবীর মৃত্যুর কিছুদিন পরই শোকাহত মন নিয়ে ছবির বাকি অংশের শুটিং করেন জাহ্নবী, যা তাঁকে আরো শক্ত হতে সাহায্য করেছে বলে মত অভিনেত্রীর, ‘আমি মায়ের ওপর খুবই নির্ভরশীল ছিলাম। তাঁর মৃত্যু তাই আমার কাছে মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ার মতো। মৃত্যুর পরপরই কলকাতায় ছবির শুটিং শুরু করা কঠিন ছিল। কিন্তু পরে বুঝেছি, কাজে ব্যস্ত ছিলাম বলেই দ্রুত স্বাভাবিক হতে পেরেছি, না হলে আরো অনেক দিন হতাশায় কাটাতে হতো।’



মন্তব্য