kalerkantho


তাঁদের প্রাণিপ্রেম

অনেক অভিনেত্রীই আছেন প্রাণী অন্তপ্রাণ। প্রাণীদের অধিকার নিয়ে কাজ করেন, বাড়ি বানান; কেউ আবার শিকলবন্দি প্রাণীদের মুক্ত করতে ভূমিকা রেখে হন সম্মানিত। প্রাণিপ্রেমী বলিউড অভিনেত্রীদের নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



আনুশকা শর্মা

তাঁর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের ছবির চেয়ে পোষা প্রাণীর ছবিই বেশি দেখা যায়। ‘এনএইচ১০’ অভিনেত্রী প্রাণী অধিকার নিয়ে খুবই সোচ্চার। অনেক দিন থেকেই তিনি নিরামিষভোজী, প্রাণীদের প্রতি আরো সম্মান দেখাতে ভেগান হয়েছেন কয়েক বছর আগে। বিশ্বের কোথাও প্রাণীদের প্রতি অন্যায় হলেই সরব হয়ে ওঠেন। এই যেমন গেল কয়েক বছর ধরে মুম্বাইয়ে ঘোড়া টানা গাড়ি নিষিদ্ধ করতে আন্দোলন করে আসছেন। এ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে গেল বছর প্রাণী অধিকার সংস্থা ‘পেটা’র সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ হয়েছেন। আর দিনকয়েক আগে নিজের জন্মদিনে ঘোষণা দিয়েছেন মুম্বাইয়ে প্রাণীদের থাকার ঘর নির্মাণের, ‘আমি মুম্বাইয়ে বাইরে একটি বাড়ি তৈরি করছি, যাতে আশ্রয়হীন প্রাণীরা সেখানে থাকতে পারে। এমন একটা বাড়ি যেখানে তারা নিশ্চিতে থাকতে পারবে, নিরাপত্তা আর আদর-যত্ন পাবে। প্রাণীদের জন্য বাড়ি তৈরির এই স্বপ্নটা অনেক দিন থেকেই আমাকে জ্বালিয়ে মারছে, ভালো লাগছে অবশেষে সেটা সত্যি হতে চলেছে।’ প্রাণী কল্যাণে কাজ করার অনুপ্রেরণার জন্য তিনি ধর্মীয় নেতা দালাই লামার প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানান, ‘তাঁর কথা আমাকে ভীষণভাবে নাড়িয়ে দেয়। তাঁর কথা শুনেই প্রাণীদের পৃথিবীটাকে আরো একটা স্বাচ্ছন্দ্যময় করতে মুখিয়ে ছিলাম।’

 

সোনম কাপুর

আশ্রয়হীন ও অসুস্থ প্রাণীদের সেবা দেয় এমন বেশ কয়েকটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত অভিনেত্রী। নিজের পোষা প্রাণীদের সঙ্গে আশ্রয়হীন বেশ কয়েকটি কুকুরকে আশ্রয়ও দিয়েছেন সোনম। প্রাণী অধিকার নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সচেতনতামূলক এবং তহবিল সংগ্রহের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নিয়মিতই হাজির হন তিনি। আর সোচ্চার থাকেন প্রাণীর প্রতি নিষ্ঠুরতার বিরুদ্ধে। এমনকি এ নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টকেও ছাড় দেননি। কিছুদিন আগেই যুক্তরাষ্ট্রে হাতি শিকারকে বৈধতা দেওয়ার কথা বলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুনে ক্ষেভে ফেটে পড়েন সোনম, ট্রাম্পকে মূর্খ বলতেও ছাড়েননি।

 

জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ

এই শ্রীলঙ্কান অভিনেত্রীও ঘোড়া টানা গাড়ির বিরুদ্ধে সোচ্চার। এ নিয়ে মুম্বাইয়ের মেয়র বরাবর চিঠিও দিয়েছেন। কেবল ঘোড়াই নয়, প্রাণীর প্রতি কোনো অন্যায়ই তিনি মানতে পারেন না। এই যেমন কিছুদিন আগেই শ্রী ভবানি জাদুঘরের শিকলবন্দি হাতি গজরাজের ছবি ভাইরাল হয়েছিল। জানা যায়, ৫০ বছর ধরে শিকলবন্দি থেকে অসুস্থ হয়ে যায় হাতিটি। এর পরই অনালাইনে গজরাজের মুক্তির জন্য প্রচারণা শুরু করেন অভিনেত্রী। ভক্তদের আহ্বান জানান, তাঁদের সঙ্গে সরব হতে। এতে কাজও হয়,  কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয় গজরাজের শিকল খুলে দিতে। জ্যাকলিনের এই অবদানের স্বীকৃতিও মিলছে। ‘পেটা’ বলিউড অভিনেত্রীকে ভূষিত করেছে ‘ডিজিটাল অ্যাকটিভিজম অ্যাওয়ার্ড’ দিয়ে।

 

আলিয়া ভাট

গেল বছর একটি কচ্ছপকে অবমুক্ত করে মা দিবস উদ্‌যাপন করেছিলেন আলিয়া ভাট। রাস্তার কুকুর, বিড়ালদের নিয়ে কাজ করে এমন একটি প্রতিষ্ঠানের হয়ে নিয়মিতই আশ্রয়হীন প্রাণীদের সাহায্য করতে প্রচারণা চালান অভিনেত্রী, ‘রাস্তায় থাকা কুকুর আর বিড়ালরা সবচেয়ে বেশি নিষ্ঠুরতার শিকার হয়। তাদের যেহেতু দেখভালের কেউ থাকে না, মানুষ ইচ্ছামতো তাদের বিরক্ত করে। এটা বন্ধ হওয়া উচিত।’

 

শিল্পা শেঠি

সার্কাসে প্রাণীদের প্রতি নানা রকম নিষ্ঠুরতা করা হয়। জোর করে তাদের বাধ্য করা হয় অনেক খেলায়, ঠিকমতো খাবার না দেওয়ার অভিযোগও আছে। বছর কয়েক আগে যা নিয়ে ক্ষোভ দেখিয়েছিলেন শিল্পা। ‘সার্কাসকে বয়কট করো’ নামে ফটোশুটও করেছিলেন। শুধু তা-ই নয়, দক্ষিণ ভারতে ষাঁড়ের লড়াই বন্ধ চেয়ে আইনি পদক্ষেপও নিয়েছিলেন। প্রাণীর প্রতি এই দরদের জন্য ‘পেটা’র ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কার পেয়েছিলেন শিল্পাও।

 

সানি লিওনি

ভারতে ‘পেটা’র অফিসে বেশ কয়েকবারই হাজির হয়েছেন অভিনেত্রী, কথা বলেছেন প্রাণীর প্রতি নিষ্ঠুরতার বিরুদ্ধে। ‘সবারই প্রাণীদের পক্ষে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া উচিত, কথা বলা উচিত। আমি একজন প্রাণিপ্রেমী হিসেবে তাদের বিরুদ্ধে সব ধরনের নিষ্ঠুরতার বিরুদ্ধে। এ ক্ষেত্রে ভক্তরাও আমাকে অনুসরণ করলে খুশি হব।’ প্রাণীর সমর্থনে আয়োজিত ফ্যাশন শোতেও অংশ নিয়েছিলেন সানি।

 

সোনাক্ষী সিনহা

বহু গৃহহীন প্রাণীকে আশ্রয় দিয়েছেন। ইদানীং অভিনেত্রী সরব বাঘ সংরক্ষণ নিয়ে। বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হয়ে দেশজুড়ে প্রচারণাও চালিয়েছেন। এক বিবৃতিতে ‘লুটেরা’ অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি নিজেদের চারপাশের অন্য প্রাণীগুলোকে মানুষ সম্মান দেবে। গেল কয়েক বছরে ভারতের বাঘের সংখ্যা বেড়েছে। মানুষের সচেতনতার ফলেই এটা হয়েছে। আমরাই পারি সব বদলে দিতে।’ একই সঙ্গে সাধারণ মানুষকে কুকুর, বিড়াল দত্তক নেওয়ারও আহ্বান জানান তিনি।



মন্তব্য