kalerkantho


‘মূল্যায়ন পাইনি তাই ফিল্ম আর্কাইভ থেকে সরে আসি’

সৈয়দ আব্দুল আহাদ
ব্যক্তিগত সংগ্রাহক

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



‘মূল্যায়ন পাইনি তাই ফিল্ম আর্কাইভ থেকে সরে আসি’

ছোটবেলা থেকেই আমি সিনেমার পোকা। সিনেমা নিয়ে নানা জায়গায় লেখালেখি করতাম। আব্দুল জব্বার থেকে শুরু করে অনেকের সঙ্গেই আমার ভালো খাতির। ছবির পোস্টার, ম্যাগাজিনসহ অনেক কিছুই সংগ্রহে রাখতাম। এ কারণে ফিল্ম আর্কাইভ যখন শুরু হয় তখনই আমার ডাক পড়ে। সংগ্রাহক হওয়ার জন্য বলা হলে সানন্দে রাজি হই। ফিল্ম আর্কাইভের যাত্রার শুরু থেকেই কাজ করি। বলা যায় প্রথম ফিল্ম সংগ্রহ হয় আমার হাত দিয়েই। ব্যক্তিগত আগ্রহ থেকেই কাজটা করি। ১৯৭৮ থেকে ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত ফিল্ম আর্কাইভের সঙ্গে জড়িত ছিলাম। এই সময়কালে ‘দেবদাস’, ‘মুক্তি’সহ প্রায় ১০০ ছবি আর্কাইভের জন্য সংগ্রহ করি। বয়স হয়েছে, স্মৃতিশক্তিও অতটা প্রখর নয়, এখন আর ওসব নাম মনে রাখতে পারি না। আমার ব্যক্তিগত সংগ্রহে থাকা প্রচুর পোস্টার, ম্যাগাজিন, ছবি আর্কাইভকে দিয়েছি। উল্লেখ করার মতো সংগ্রহ ‘দ্য লাস্ট কিস’ ছবির স্থিরচিত্র। নবাব পরিবারের সঙ্গে আমার পারিবারিক সম্পর্ক থাকায় কাজটি করতে তেমন বেগ পেতে হয়নি। ফতেহ লোহানীর ব্যক্তিগত সংগ্রহশালা থেকে তিন হাজার ৮০০ চলচ্চিত্রবিষয়ক বই সংগ্রহ করে আর্কাইভে জমা দিই। লোহানী সাহেবের মৃত্যুর পর তাঁর স্ত্রীর কাছ থেকে এগুলো এনেছিলাম। আমি আর্কাইভের কোনো চাকরিজীবী ছিলাম না। ব্যক্তিগত উদ্যোগে চলচ্চিত্রের প্রতি ভালোবাসা থেকেই কাজ করেছি। কিছু হাত খরচের টাকা পেলেও এই কাজের তেমন কোনো মূল্যায়ন হতো না। অভিমান করেই ১৯৮৫ সালে আর্কাইভ থেকে সরে আসি।



মন্তব্য