kalerkantho


আলো ছড়াচ্ছেন মুন

‘তুই আমার মন ভালো রে’, ‘ফাতেমা’, ‘পেপার’ প্রভৃতি গানের শিল্পী অটামনাল মুন। অন্যদের জন্যও নিয়মিত লেখেন, সুর করেন। সামনে বেশ কিছু নতুন গান নিয়ে আসছেন তিনি। লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আলো ছড়াচ্ছেন মুন

ভাষা দিবসে কলকাতায়

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে গতকাল কলকাতার ‘ফিভার এফএম’-এ শো করেছেন অটামনাল মুন। আরেক দেশে গিয়ে গানে গানে ভাষাশহীদদের সম্মান জানাতে পেরে বেশ তৃপ্ত এ গায়ক, সুরকার ও গীতিকার। বলেন, ‘কলকাতায় আমার কিছু বন্ধু আছে। তাদের মাধ্যমেই অনুষ্ঠানটির অফার পেয়েছি। এটা আমার জন্য অনেক সম্মানের একটি বিষয়। আজ-কালের মধ্যে এখানকার আরো একাধিক মিডিয়ায় গান করার কথা রয়েছে।’ এর আগে ‘এক নির্ঝরের গান’ অনুষ্ঠানের জন্য কলকাতায় গিয়েছিলেন মুন।

 

নাম নিয়ে যত কাজ

মুনের ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের জনপ্রিয় গান ‘ফাতেমা’। এরপর ‘জেসমিন’ করেও আলোচিত হন। সর্বশেষ প্রকাশ করেছেন ‘জরিনা’। মুন এবার নিয়ে আসছেন ‘সুবেতারা’। আগের গানগুলোর কথা ও সুর নিজের হলেও এবার শাখাওয়াত আল মামুনের কথায় গেয়েছেন—‘সুবেতারা/একটু দাঁড়া/তোর কিসের এত তাড়া’। ‘মেয়েদের নাম নিয়ে গান করার বিষয়টি সব সময়ই খুব এনজয় করি। এ ক্ষেত্রে আশপাশের সহজ-সরল নামগুলোই আমার পছন্দ। এবারের নামটি একটু আনকমন। তবে কথা ও সুরের সঙ্গে শুনতে ভালো লাগবে।’ এসব নামে বাস্তবে কেউ আছেন কি না জানতে চাইলে হেসে দেন মুন। তবে কিছুদিন বাদেই ‘সুবেতারা’কে শ্রোতাদের সামনে আনবেন বলে জানান তিনি।

 

লাকী আখন্দ্

প্রয়াত লাকী আখন্দের সঙ্গে দারুণ সখ্য ছিল। সেই ভালোবাসা ও শ্রদ্ধাবোধ থেকেই লাকীকে নিয়ে গান বেঁধেছেন। শুরুতে জিপি মিউজিক অ্যাপে প্রকাশ পেলেও গানটি এবার নিজের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করবেন। এরপর আনবেন ভিডিও। মুন বলেন, “২০০২-০৩ সালের দিকে লাকী ভাইয়ের ‘জল পড়ে পাড়া নড়ে’ গানটিতে গিটার বাজাতে যাই। বাজনা শুনে আমাকে বলেন, ‘অদ্ভুত! তুমি তো পুরা একটা মেশিন। দারুণ বাজিয়েছ।’ সেই থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ ছিল। তাঁর চলে যাওয়া আমাকে খুব কষ্ট দিয়েছে। সেই জায়গা থেকে গানটি লেখা শুরু করি। পরে জিপি মিউজিকও উৎসাহ দেয়।’ গানটির মুখ—‘আরমানিটোলার রাস্তা ধরে তিনি হাঁটতেন চুপচাপ/এখনো সে পথে খুঁজে পাই তাঁর স্মৃতিমাখা পায়ের ছাপ/গুনগুন করে তাঁর হারমোনিয়ামে সুর খোঁজাখুঁজি স্বভাব/জানো তুমি জানি আমি মানুষটি কে জানে এ শহর তল্লাট’।

 

রিস্কি ক্লাস নাইন

জিরো রেকর্ডের ব্যানারে আসবে মুনের সাত গানের অ্যালবাম ‘রিস্কি ক্লাস নাইন’। পর্যায়ক্রমে ভিডিও আকারে প্রকাশ পাবে গানগুলো। এর মধ্যে দুটি নতুন—‘মন তোর জন্য’ এবং ‘তোমাকে ভালোবাসি বলা হয়নি’। বাকি পাঁচটি মুনের পুরনো গান—‘ক থেকে ক্ষ’, ‘রিস্কি ক্লাস নাইন’, ‘টাকা গাছ’, ‘পেপার’ এবং ‘কত দিন ধরে’। এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘গানগুলো যখন করেছি তখন এখনকার মতো এত মিডিয়া ছিল না, এত প্রচার ছিল না। ইউটিউব, অ্যাপসহ নতুন অনেক টেকনোলজি বের হয়েছে। এসব সুবিধা নিতেই গানগুলো নতুন করে প্রকাশ করছি। ফলে এই প্রজন্মের শ্রোতারাও গানগুলো সম্পর্কে জানতে পারবে।’

 

স্বাধীনতা দিবসে ‘বাংলাদেশ’

স্বাধীনতা দিবস সামনে রেখে ‘বাংলাদেশ’ শিরোনামে একটি গান করছেন। গানটিতে মুনের সঙ্গে কণ্ঠ দেবেন এ প্রজন্মের কয়েকজন। বলেন, ‘বাংলাদেশ নিয়ে অনেক গান হয়েছে। তবে বাংলাদেশকে আমার দেখার ভঙ্গিটা একটু অন্য রকম। সেই দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই গানটি করছি। এমনভাবে গানটি করতে চাই যাতে যুগ যুগ বাঁচিয়ে রাখা যায়।’

 

আরো গান

আরো বেশ কিছু গানের কাজ করছেন মুন। কুমার বিশ্বজিতের জন্য কয়েকটি গান বানাচ্ছেন। এর মধ্যে একটির ভয়েস নিয়েছেন কয়েক দিন আগে। তিন গানের একটি প্রজেক্ট করছেন প্রবাসে থাকা বন্ধু আবিরের জন্য। খান আতাউর রহমানের নাতনি সামিলা ইসলামের জন্য একটি গান করেছেন। তার জন্য আরো একাধিক গান করবেন। আশিকুজ্জামান টুলুর মেয়ে রোদিয়ার জন্যও গান বানাচ্ছেন। মুন বলেন, ‘গানের বাইরে জীবনে আর কিছু শিখতে পারিনি। রাত-দিন চব্বিশ ঘণ্টা গান নিয়েই পড়ে থাকি। গানই আমার জীবন। ভালো লাগা, ভালোবাসা।’


মন্তব্য