kalerkantho


ফেইসবুক থেকে

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ফেইসবুক থেকে

আই নো হু ইউ আর

মনে করুন, আপনি আইন বিভাগের শিক্ষার্থী। একই বিভাগে আপনার ব্লগার বন্ধু মাঝে তাঁর ব্লগে শিক্ষকদের নিয়ে ব্যঙ্গ করে। বিভাগের এক অধ্যাপকের মতে, পরিবারের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক নেই বলে সেই রাগ সে শিক্ষকদের ওপর ঝাড়ে। কিন্তু ক্লাসের সবাই বলে, তার মা-বাবাসহ সবাই মৃত। তখনই স্যার বললেন, ব্লগার ছাত্রটির মা-বাবা শুধু জীবিতই নয়, এখন এই কলেজেই আছে! কাকে বিশ্বাস করবেন আপনি?

আইনজীবীদের কাজ অনেকটা এ রকম। নিজের ক্লায়েন্টদের জয়ী করার জন্য তাদের মাঝে মাঝেই সত্যকে মিথ্যা, মিথ্যাকে সত্যর মতো উপস্থাপন করতে হয়।

সিরিজের প্রথম দৃশ্যে দেখা যায়, নির্জন রাস্তা দিয়ে একজন আহত মানুষ হেঁটে যাচ্ছে। সে কিছুই মনে করতে পারছে না, এমনকি নিজের নামও না। জানা যায়, সে বার্সেলোনার প্রখ্যাত আইনজীবী হুয়ান এলিয়াস। তার স্ত্রী প্রভাবশালী জজ আলিসিয়া। আরো জানতে পারে, তার স্ত্রীর ভাগ্নি অ্যানা নিখোঁজ। সর্বশেষ তার সঙ্গেই অ্যানাকে দেখা গিয়েছিল। তার জন্য সবচেয়ে খারাপ সংবাদ হলো, তার গাড়িতেই অ্যানার মোবাইল ফোন ও রক্ত পাওয়া গেছে। এই গাড়ি দুর্ঘটনায় সে আজ স্মৃতিভ্রষ্ট। সুতরাং সন্দেহের তীর তার দিকে। কিন্তু আসলেই কি সে স্মৃতি হারিয়ে ফেলেছে? নাকি অভিনয়? কারণ তদন্তে জানা যায়, এলিয়াসের জেতা ১৩ মামলার মক্কেলও স্মৃতিভ্রষ্ট ছিল! সেগুলোর সঙ্গে কি এর কোনো সম্পর্ক আছে?

বিপক্ষ দলের উকিল এভা, যে কি না একসময় এলিয়াসেরই ছাত্রী ছিল, এখন তার বিরুদ্ধে প্রমাণ  জোগাড়ে ব্যস্ত। পুলিশ ইন্সপেক্টর জিরাল্ট অ্যানার কী হয়েছে জানার জন্য বদ্ধপরিকর। তদন্তে এক এক করে  বের হয়ে আসতে থাকে অ্যানার জীবনের নানা অজানা অধ্যায়।

থ্রিলার ঘরানার স্প্যানিশ সিরিজ ‘আই নো হু ইউ আর’। মোট ১৬ পর্বের সিরিজটি স্পেনে প্রচার শেষ হয়েছে। বিবিসি দুই ভাগে প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয়। সিজন ১-এর ১০ পর্বের প্রচার শেষ। এই বছরের শেষের দিকে বাকি ৬ পর্ব দেখানো হবে। ইংলিশ সাবটাইটেলের অভাবে বাকি ছয় পর্ব বিবিসিতে প্রচারের পরই দেখতে হবে। প্রায় এক ঘণ্টা ১০ মিনিট করে এক একটা পর্ব। কিন্তু যথেষ্ট গতিশীল হওয়ায় বিরক্ত লাগার সুযোগ নেই।

এসব বিদেশি সিরিজের দর্শক কম হওয়ায় রেটিংও সাধারণত কম হয়। তাই রেটিংকে পাত্তা না দিয়ে দেখে ফেলতে পারেন সিরিজটা।

 

তাজিম রহমান নিশীথ

সিরিয়ালখোর গ্রুপের পোস্ট


মন্তব্য