kalerkantho


দুলাভাইকে নিয়ে মিম

কাল মুক্তি পাবে মনতাজুর রহমান আকবরের ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’। ছবির নায়িকা বিদ্যা সিনহা সাহা মিমকে নিয়ে লিখেছেন ইসমাত মুমু

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



দুলাভাইকে নিয়ে মিম

একটু আগেই ওমান থেকে ফিরলেন। বিশ্বখ্যাত গোল্ড ও ডায়মন্ড বিক্রয় প্রতিষ্ঠান মালাবারের আমন্ত্রণে সেখানে গিয়েছিলেন মিম।

প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর বলিউড তারকা কারিনা কাপুর ও ক্যাটরিনা কাইফ। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের কোনো সেলিব্রিটিকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে হাজির করেছে মালাবার। ১২, ১৩ ও ১৪ অক্টোবর মাসকাটে তিনটি রোড শোতে অংশ নিয়েছিলেন মিম। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে মিমকে ঘিরে উন্মাদনা নেহাত কম ছিল না। ফেসবুকে এক ভিডিও প্রকাশ করেছে মিমের ছোট বোন প্রজ্ঞা। সেখানে দেখা যায়, হাজার হাজার মানুষের ভিড়ে মিম। স্থানীয় একটি প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিয়েছেন বাংলাদেশের এই অভিনেত্রী। ‘সময়টা দারুণ কেটেছে সেখানে। সঙ্গে ছিলেন মা ও বোন। ওমানের বেশ কিছু জায়গা ঘুরে দেখেছি আমরা’—বললেন মিম।

দেশে ফিরেই আবার ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। আগামীকাল মুক্তি পাবে তাঁর নতুন ছবি ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’। তারকাবহুল এই ছবিতে মিমের সহশিল্পী মৌসুমী, ডিপজল ও বাপ্পী চৌধুরী। দীর্ঘদিন পর এই ছবি দিয়ে পর্দায় ফিরেছেন ডিপজল। ছবিতে ‘দুলাভাই’ তিনিই। তাঁর শালির চরিত্রে মিম।

কেমন হয়েছে ছবিটি? মিম বলেন, ‘সন্তান কেমন হবে, সেটা কিন্তু আগে থেকেই জানতে পারেন না মা-বাবা। চলচ্চিত্রের বিষয়টাও ঠিক তেমন। ক্যামেরার সামনে নিজেকে আমি উজাড় করে দিয়েছি, বাকি কাজগুলো তো আমার হাতে নেই। ’ ছবিটি নিয়ে মিমের কথায় খুব একটা আশাবাদী মনে হলো না তাঁকে। অনলাইনে ছবির ট্রেলার প্রকাশিত হওয়ার পরই সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে ছবিটিকে। এ কারণেই কি জোর গলায় ‘ভালো’ বলতে পারছেন না ছবির নায়িকা? তাহলে এমন ছবি হাতেই বা নিয়েছেন কেন? ‘দেখুন, সব ধরনের ছবিতেই কাজ করতে হবে আমাকে, নইলে মান যাচাই করব কিভাবে? সবাই জানেন, মনতাজুর রহমান আকবর স্যার নামি পরিচালক। গল্প পছন্দ হয়েছে বলেই তাঁর ছবিতে কাজ করেছি। আমি ছবিটির সাফল্য কামনা করি’—বললেন মিম।

ছবিতে মিমের নায়ক বাপ্পী, ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ এই জুটির তিন নম্বর ছবি। তাঁদের আগের দুটি ছবি ‘সুইটহার্ট’ ও ‘আমি তোমার হতে চাই’। সামনের মাসেই চার নম্বর ছবি ‘দাগ’-এর শুটিং। এই জুটি নিয়ে কী ভাবছেন মিম? বলেন, ‘দর্শক গ্রহণ করেছে বলেই আমরা একসঙ্গে কাজ করতে পারছি। বাপ্পীর সঙ্গে জুটি হয়ে কাজ শুরু করার পর তাঁর সঙ্গে অনেক ছবির প্রস্তাব আসছে। আবার অনেকেই বলেন, সমসাময়িক অন্য নায়কদের সঙ্গে কেন ছবি করছি না। প্রস্তাব না এলে কিভাবে করব! ভালো গল্প-চরিত্র হলে যে কারো বিপরীতে অভিনয় করতে আমি রাজি। ’

তবে উত্তম আকাশের ‘আমি নেতা হব’ ও ‘মামলা হামলা ঝামেলা’ নিয়ে দারুণ আশাবাদী মিম। দুটিতেই তাঁর নায়ক শাকিব খান। সাত বছর আগে শাকিবের সঙ্গে জুটি হয়ে করেছিলেন ‘আমার প্রাণের প্রিয়া’। নতুন করে শাকিবের সঙ্গে জুটি হওয়ার অভিজ্ঞতা কেমন? মিম বলেন, ‘শাকিব খান সুপারস্টার। তাঁর সঙ্গে এখন সব নায়িকাই অভিনয় করতে চান, এমনকি পশ্চিমবঙ্গের নায়িকারাও। তাঁর সঙ্গে অভিনয় করা মানেই নতুন নতুন অভিজ্ঞতা। ’

সাত বছর আগের শাকিব আর এখনকার শাকিবের মধ্যে কোনো পার্থক্য চোখে পড়ছে? ‘অনেক। তখনকার শাকিব ছিলেন শুধুই বাংলাদেশের দর্শকদের, এখন তো ভারতেও তাঁর অনেক দর্শক। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে লুকেও অনেক পরিবর্তন এনেছেন’—মিমের উত্তর।


মন্তব্য