kalerkantho


৮৯ থেকে ৫৭ কেজি

‘দম লাগাকে হেইসা’য় ভূমি পেডনেকারের ওজন দেখে যাঁরা চমকে গিয়েছিলেন, এবারও তাঁদের চোখ কপালে। দুই বছর পর ‘রোগা’ ভূমির যেন সত্যি সত্যিই পুনর্জন্ম হয়েছে। আগামীকাল ‘টয়লেট : এক প্রেমকথা’ মুক্তির আগে অভিনেত্রীকে নিয়ে লিখেছেন খালিদ জামিল

১০ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



৮৯ থেকে ৫৭ কেজি

‘দম লাগাকে হেইসা’ ছবির ট্রেলার মুক্তির পর তাঁকে নিয়ে হাসাহাসি শুরু হয়েছিল। ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ চলেছিল সীমাছাড়া।

এত মোটা আবার বলিউডের নায়িকা হয় নাকি! তবে ছবি মুক্তির পর সবার মুখ বন্ধ করে দিয়েছিলেন সেই ‘মোটা’ নায়িকাই। নিজের অভিনয় দিয়ে বলা যায় তাক লাগিয়েছিলেন ভূমি পেডনেকার। সন্ধ্যা নামের চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলেছিলেন অসাধারণ দক্ষতায়। কে বলবে, এটাই ছিল বড় পর্দায় অভিষেক!
দুই বছর পর সেই ভূমিই ফিরছেন। আগের মতোই চমকে দিয়ে। সেবার ‘সন্ধ্যা’ হতে ২৩ কেজি ওজন বাড়িয়েছিলেন। এবার ৮৯ থেকে হয়েছেন ৫৭ কেজি! তা-ও সন্তুষ্ট নন অভিনেত্রী, ‘আমার ফিগার কিন্তু এখনো পারফেক্ট নয়। আমি তাড়াহুড়া করছি না। মাঝে ছবির কাজগুলো না হলে এত দিনে ওজন আরো কমাতে পারতাম। ’ অভিনেত্রী বলছেন, অন্য অনেকের মতো প্রথম ছবিতে অতটা ওজন নিয়ে তিনিও শঙ্কিত ছিলেন। না না, লজ্জাটজ্জা না, অভিনয়ের জন্য তিনি যেকোনো কিছুই করতে প্রস্তুত। ভয়ে ছিলেন পরে ওজন কমাতে পারবেন কি না তা নিয়ে, ‘দম লাগাকের প্রচারের সময় থেকেই কিন্তু আমি একটু একটু করে ওজন কমাচ্ছি।  
জিম আর ডায়েট চলেছে একসঙ্গে। ভোর ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সময় দিয়েছি। দশ বছর আগে হলে কিন্তু ঝুঁকিটা নিতাম না। আমি সাহস করেছিলাম, কারণ বলিউডে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য এটাই আদর্শ সময়। ’
ওজন নিয়ে মেয়েরা যতটা দুশ্চিন্তায় ভোগে, ভূমি নিজে মোটা হয়ে দেখেছেন, ব্যাপারটা আসলে ততটা খারাপ নয়, ‘মোটা হলেই সব গেল তা নয়। তখনো অনেক ফ্যাশনেবল পোশাক পরা যায়। যখন আমার প্রায় ৯০ কেজি ওজন ছিল, তখনো তো আমার দিকে ছেলেরা তাকাত [হাসি]। ’
নতুন ছবি মুক্তির আগে ওজন নিয়ে কথাবার্তা থামিয়ে অভিনয়ে মন দিতে চান অভিনেত্রী। ঠিক করেছেন, কাজ করবেন খুব বেছে। তিন বছরে দুই ছবি যার প্রমাণ। এবার অভিনেত্রীর জুটি সাম্প্রতিক সময়ে বলিউডের সবচেয়ে হিট নায়ক অক্ষয় কুমার। ছবির বিষয়টাও সমাজ-সচেতনতামূলক। সব মিলেয়ে ভীষণ উত্তেজিত ভূমি। শুটিং করতে করতে এর মধ্যেই ভক্ত বনে গেছেন অক্ষয়ের, “তিনি সব সময় হাসিখুশি থাকতে পারেন। এটা একটা মস্ত গুণ। আমাদের মতো নতুনদের কাছে তাঁর সঙ্গে কাজ করাটা অভিজ্ঞতার মতো। তাঁর ছবি দেখে বড় হয়েছি। অক্ষয় কুমার মানে ‘টিপ টিপ বরষা পানি’, ‘তু চিজ বাড়ি হ্যায়’—এই সব। একবার আমার বাড়ির সামনে তাঁর ছবির শুটিং হয়েছিল। সেকি উত্তেজনা! এখন ভাবলে হাসি পায়। কে জানত, একদিন আমি তাঁর সঙ্গেই কাজ করব। ”
এই ছবি ছাড়াও সামনেই ভূমির নতুন আরেকটি ছবি আসছে। আনন্দ এল রাইয়ের প্রযোজনায়
‘শুভ মঙ্গল সাবধান’। এই ছবির ট্রেলার মুক্তির পর থেকেই ভাসছেন প্রশংসায়। এই ছবিতে তাঁর সঙ্গে ফের জুটি বেঁধেছেন প্রথম ছবির নায়ক আয়ুষ্মান খুরানা


মন্তব্য