kalerkantho

নিজের গল্প

প্রথম অস্কার অনেক আবেগের নাম। তবে এমা স্টোনের কাছে এর চেয়ে বেশি কিছু। কারণ ‘লা লা ল্যান্ড’-এ মিয়া চরিত্রটি যে তাঁর জীবনের বাস্তবের সঙ্গেও মিলে যায়! অস্কারে সেরা অভিনেত্রীকে নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

২ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নিজের গল্প

চিত্রনাট্য পাওয়ার পর কতটা চমকে উঠেছিলেন এমা স্টোন কে জানে। ছবির গল্প মিয়ার। ড্রাপআউট হওয়া এক তরুণী, যে লস অ্যাঞ্জেলেস আসে। সময় ঘড়িকে তের বছর পিছিয়ে দিলে দেখা যাবে এমন আরো একটি ঘটনা। যেখানে মিয়ার চরিত্রে এমা স্টোন! সত্যি সত্যি পনের বছর বয়সে ড্রপআউট হয়ে নিজের শহর ছেড়ে লস অ্যাঞ্জেলেস আসেন এমাও। স্বপ্ন অভিনয়। নিজের মা-বাবার কাছে সেটার উপস্থাপনাও ছিল অদ্ভুত। এ জন্য ‘প্রজেক্ট হলিউড’ নামে একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন তৈরি করে মা-বাবাকে দেখান। যাতে প্রভাবিত হয়েই মেয়েকে নিয়ে লস অ্যাঞ্জেলেস আসেন তাঁরা।

‘ক্রেজি, স্টুপিড, লাভ’ ও ‘গ্যাংস্টার স্কোয়াড’-এর পর ‘তৃতীয়বারের মতো ‘লা লা ল্যান্ড’-এ জুটি হয়েছেন এমা স্টোন ও রায়ান গসলিং। অথচ ছবিতে কারোরই থাকার কথা ছিল না।

মিয়া চরিত্রে প্রথম পছন্দ ছিলেন আরেক এমা—এমা ওয়াটসন। কিন্তু ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট’-এ অভিনয়ের জন্য তিনি রাজি হননি। মজার ব্যাপার, একই ছবি ছাড়েন রায়ান গসলিং, ‘লা লা ল্যান্ড’ করবেন বলে। ‘লা লা ল্যান্ড’-এ এমার চরিত্রের সঙ্গে বিখ্যাত হয়েছে হলুদ পোশকটিও। এতটাই যে বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসব আর প্রিমিয়ারে এই ‘ট্রেডমার্ক’ পোশাকেই হাজির হয়েছেন অভিনেত্রী। অথচ মূল ছবিতে এ পোশাক থাকারই কথা ছিল না, এটা বানানো হয়েছিল স্রেফ রিহার্সালের জন্য!

কোনো ছবি দেখে নয় বরং ব্রডওয়ে প্রডাকশন ‘ক্যাবারে’ দেখে এমাকে এই ছবির জন্য নির্বাচিত করেন পরিচালক ডেমিয়েন শ্যাজেল।

এমা ভাগ্যে বিশ্বাস করেন। মাত্র ১০ বছর আগে ক্যারিয়ার শুরু করা অভিনেত্রীর কাছে পুরস্কার পাওয়াটাও তাই। কারণ একমাত্র ‘স্পাইডার-ম্যান’ সিরিজই তাঁর সবচেয়ে পরিচিত ছবি। সেখান থেকে গোল্ডেন গ্লোব এরপর অস্কার—এখনো স্বপ্নের ঘোরে ২৮ বছর বয়সী অভিনেত্রী। এ পুরস্কার যে চাপ অনেকটা বাড়িয়ে দেবে সেটাও জানেন, ‘এখন আমার আসল সময়। সবাই আমাকে নিয়েই কথা বলবে। আমাকেও দেখাতে হবে পুরস্কারটা ভুল না। ’ তবে সব কিছুর জন্যই ভাগ্য দরকার সেটাও মানেন। তাই অকপটে বলতে পারেন, ‘এমন চরিত্র আর কখনো পাব কি না কে জানে, এই পুরস্কারটাও...এটা সম্ভবত জীবনে একবাই হয়। ’


মন্তব্য