kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ডাকোটা এখন বড়

ছোটবেলা থেকেই হলিউডে অভিনয় করছেন ডাকোটা ফ্যানিং। পুরস্কার তো পেয়েছেনই, এ ছাড়া আছে বড় তারকাদের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতাও। আগামীকাল ‘আমেরিকান প্যাস্টোরাল’ মুক্তি উপলক্ষে অভিনেত্রীর কথা লতিফুল হকের কাছে

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ডাকোটা এখন বড়

চাইলে আর বছর বিশেক পরে ‘বিখ্যাতদের কাছ থেকে পাওয়া উপহারের নিলাম’ অনুষ্ঠান করতেই পারেন ডাকোটা ফ্যানিং। ছোটবেলা থেকে হলিউডের বড় তারকাদের সঙ্গে কাজ করেছেন।

তাঁদের কাছ থেকে পেয়েছেন অনেক উপহারও। সেসব উপহার নিয়ে পরে ‘নিলাম’ চাইলে করাই যায়। আর সেটা বেশ হেভিওয়েটই হবে। কারণ ২০০৫ সালে ‘ওয়ার অব দ্য ওয়ার্ল্ডস’-এর শুটিংয়ের সময় টম ক্রুজ বারো বছরের ডাকোটাকে দিয়েছিলেন আইপড। কারণ গানের পোকা মেয়েটি সেটে সুযোগ পেলেই হেডফোন কানে গুঁজত। একই বছর ‘সাইড অ্যান্ড সিক’ সহকর্মী রবার্ট ডি নিরো ডাকোটাকে কিনে দেন বাদামি চুলওয়ালা আর নীল চোখের একটা মস্তবড় পুতুল। সেটা দেখতে অনেকটা এমিলির [ছবিতে ডাকোটার চরিত্র] মতোই। ডাকোটার কথা উঠলে এই ছোটবেলা আর সে সময়ের ঘটনা আসবেই। কারণ তখন থেকেই তিনি অভিনেত্রী। মাত্র আট বছর বয়সে ২০০২ সালে ‘আই আম স্যাম’-এর জন্য তিনি মনোনীত হয়েছিলেন স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড অ্যাওয়ার্ডে। এত অল্প বয়সে এ কীর্তি নেই আর কারোরই। ইদানীং ডাকোটা কী করছেন? আছেন কি আগের মতোই? খানিকটা তো বটেই। এখনো গান ভীষণ ভালোবাসেন। পিয়ানোসহ বাজাতে পারেন বেশ কয়েকটা বাদ্যযন্ত্র। আর আগে থেকেই নানা কিছুর বাতিক যেমন ছিল তেমন আছে। ঘোড়ায় চড়া থেকে দু-তিনটি ভাষায় কথা বলা—সবই পারেন। যুক্তরাষ্ট্র স্কাউট দলের সদস্যও বটে তিনি। তবে হ্যাঁ, ছোটবেলার একটা স্বভাব বদলেছেন। আগে যেখানেই যেতেন ব্যাগে ‘শিশুদের সুন্দর নাম’ টাইপের একটা বই থাকতই। অনেক খেপানোর পর সেটা বাদ দিয়েছেন।

ডাকোটার বয়স ২২। তবে আপাতত তিনি ‘একা’। কারণ দিনকয়েক আগেই প্রেম করে এমন শিক্ষা হয়েছে আপাতত ও নাম মুখে নিতে চান না। নিজের চেয়ে তেরো বছরের বড় মডেল জেমি স্ট্রাচনের সঙ্গে প্রেম ছিল। যদিও প্রেম করার সময় বিষয়টা স্বীকার করেননি। করলেন ভাঙার পর। এ সম্পর্কে এত বিরক্ত ছিলেন যে প্রেমিকের চৌদ্দগুষ্টি এক রকম ধুয়ে দিয়েছেন। যদিও ব্যক্তিগত ব্যাপার ব্যক্তিগত রাখবেন বলে অনেক আগেই পণ করেছেন। ডাকোটার আরেক মুশকিল ছোট বোন এলিও অভিনয় করেন। দেখতে প্রায় তাঁর মতোই। চার বছরের ছোট-বড় দুই বোনকে শনাক্ত করতে গিয়ে নিয়মিতই ঝামেলায় পড়েন খোদ সাংবাদিকরাই!

এ সময় ডাকোটা সুন্দর সুন্দর পোশাক পরে বিভিন্ন শহর ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সুন্দর পোশাক পরা আর স্টাইলিস্ট হিসেবে তাঁর আগে থেকেই সুখ্যাতি। বিভিন্ন অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের বিচারে নিয়মিতই ‘স্টাইলিস্ট অব দ্য উইক’ হন। কাল মুক্তি পাচ্ছে ডাকোটার নতুন ছবি ‘আমেরিকান প্যাস্টোরাল’। ছবির প্রচারে তাই এ শহর থেকে ও শহর ঘুরছেন। ক্রাইম-ড্রামা ঘরানার ছবিটি তৈরি হয়েছে ফিলিপ রথের একই নামের বই অবলম্বনে। লেখক এ বছরের সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারের অন্যতম দাবিদার ছিলেন। ছবিতে ডাকোটাকে দেখা যাবে সিরিয়াস চরিত্রে। অনেক দিন পর্যন্ত হলিউডে ‘শিশু অভিনেত্রী’ তকমা পাওয়া ডাকোটা এ ছবি দিয়েই নতুনভাবে শুরু করতে চান। তিনি যে আর টিনএজ ছবির নায়িকা নন, সেটাও জানান দিতে চান। কারণ অভিনেত্রী হবেন বলেই ছোটবেলায় শুরু করেছিলেন। বড়বেলায় এসে সেটা সত্যি করতে চান। ‘সব সময়ই অভিনেত্রী হতে চেয়েছি, যখন খুব ছোট ছিলাম তখনো। মনে আছে ছোটবেলায় আমি মা সাজতাম, ছোট বোনকে বানাতাম মেয়ে। বাড়িতে যখন কেউ থাকত না, দুই বোন অভিনয় করতাম। ’ বলেন ডাকোটা।


মন্তব্য