kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

নতুন মাহি

শুরুটা র‌্যাম্পে হেঁটে। পরিচিতি পেয়েছেন বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হয়ে। এখন অভিনয়ে দারুণ ব্যস্ত। সামিরা খান মাহিকে নিয়ে লিখেছেন মীর রাকিব হাসান, ছবি তুলেছেন সুমন ইসলাম আকাশ

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



নতুন মাহি

জন্ম এবং বেড়ে ওঠা সিলেটে। স্থানীয় লোকজন তাঁকে দুরন্ত মেয়ে হিসেবেই চেনে।

কি না পারেন মেয়েটা! গাছে ওঠা থেকে শুরু করে ক্রিকেট—সব কিছুতেই পারদর্শী। স্বপ্ন দেখতেন গায়িকা বা ডাক্তার হবেন।   মডেলিং, অভিনয়ের কোনো ইচ্ছেই ছিল না। শখের বশে ঢাকায় এসে একটি পণ্যের বিজ্ঞাপনের মডেল হয়েছিলেন। পুরো ঢাকা শহরে অনেক বিলবোর্ড হয় তাঁর। এটি দেখেই মডেলিং-অভিনয়ের প্রতি আগ্রহ জন্মে। একটি ভালো প্ল্যাটফর্ম খুঁজছিলেন। আরটিভির সুন্দরী প্রতিযোগিতা ‘রং আরটিভি কালারস মডেল সার্চ’-এ নাম লেখালেন। হলেন ফার্স্ট রানার-আপ। ‘আমি তো খুব দুষ্ট, এ কারণে প্রতিযোগিতা চলাকালে বেশ কয়েকবার শাস্তি পেয়েছি। একবার হয়েছে কী, আমরা বেশ কয়েকজন দাঁড়িয়ে, ডাক দিলেই স্টেজে উঠব। পাশেই ছিল ট্রলি, আমি সেখানে উঠে গেলাম। গাইড ম্যাম দেখে ফেললেন, তিনি শাস্তি নির্ধারণ করলেন স্টেজে গিয়ে পাঁচ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। আমি দিলাম হেসে। আমার শাস্তি হয়ে গেল ২০ মিনিট। সবার সামনে ২০ মিনিট কান ধরে দাঁড়িয়ে ছিলাম’, হাসতে হাসতে বললেন মাহি।

প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের অনেকেই ঝরে পড়লেন। কিন্তু মাহি মিডিয়ায় আটঘাট বেঁধে নামলেন। বেশ কিছু বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হলেন। প্রথম অভিনয় নাটক ‘ফিরে দেখা’য়। ‘প্রথম নাটকে বেশ নার্ভাসই ছিলাম। পরিচালক আর আমার সহশিল্পী সাঈদ বাবু ভাই অনেক হেল্প করেছেন। সেটি ছিল একটি হরর গল্প। আমাদের দেশে তো হরর নাটক খুব একটা হয় না। কোনোভাবে উতরে গেছি। ’

নাটক ‘আকাশ বাড়িয়ে দাও’ তাঁর প্রিয় নাটক। এখানে তাঁর বিপরীতে ইমন। রোমান্টিক এ নাটকে ইমনের সঙ্গে তাঁর রসায়নের প্রশংসা করেছেন অনেকেই। মাহি অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটকের মধ্যে রয়েছে ‘যদি মনে পড়ে যায়’, ‘শুভ্রার ওয়ারড্রোব’, ‘নীল চিরকুট’।

এখন তাঁর ব্যস্ততা ধারাবাহিক নাটক নিয়ে। তিনটি ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন—‘তরুণ তুর্কি’, ‘লাইফ ইন আ মেট্রো’ ও ‘এক পা দু পা’।

মডেলিং আর অভিনয় নিয়ে বলতে গিয়ে মাহি বলেন, ‘অনেকে মনে করেন মডেলিং ও অভিনয়ের মধ্যে তেমন পার্থক্য নেই। অনেক পার্থক্য। মেকাপের কথা বললেই বুঝবেন। র‌্যাম্পে অনেক গাঢ় মেকাপ করতে হয়। আর অভিনয়ে চরিত্র অনুযায়ী একেকবার একেক রকম মেকাপ নিতে হয়। তারপর পোশাক। অভিনয়ের চেয়ে র‌্যাম্পে একটু বেশি খোলামেলা পোশাক পরতে হয়। বডি ফিটনেসও র‌্যাম্পে খুব গুরুত্বপূর্ণ। এত সব খেয়াল করেই দুই মাধ্যমে কাজ করতে হয়। ’

দুই মাধ্যমেই কাজ কাজ করতে পছন্দ করেন। তবে অভিনয়টা একটু বেশিই পছন্দ। মাহি বললেন, ‘অভিনয় করেই দর্শকের মনে জায়গা পাওয়া যায়। ’ আইনবিদ্যা পড়ছেন। এ মাধ্যমেও ভালো কিছু করার ইচ্ছে।

আর শখ হলো ট্রাভেলিং। বাংলাদেশের যত নয়নাভিরাম জায়গা আছে এর বেশির ভাগই তাঁর দেখা। এবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিদেশে ঘুরে বেড়াবেন। পাসপোর্ট করতে দিয়েছেন।


মন্তব্য