kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মুক্তির অপেক্ষায় এমি

পরীমণির বদলে ‘পাষাণ’ ছবির নায়িকা হয়ে আলোচনায় এলেন। মুক্তির অপেক্ষায় আছে আরো দুই ছবি। নবাগতা এমিয়া এমিকে নিয়ে লিখেছেন রূপক জামান

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



মুক্তির অপেক্ষায় এমি

‘ছোটবেলা থেকেই টিভিতে সিনেমা, নাচ, গান—এসব দেখি। ভালো লাগে, নিজে নিজে অভিনয়-নাচ করার চেষ্টা করি।

কিন্তু কখনো নায়িকা হব, এটা চিন্তা করিনি। কলেজে ওঠার পর আমার কিছু বন্ধু হলো, ওদের অনেকে র‌্যাম্পে কাজ করত। ওদের দেখেই শোবিজে কাজের আগ্রহ জন্মে’—বললেন এমি।

প্রথম সুযোগটা এলো কিভাবে? এমি বলেন, “বন্ধুদের একজনের সহযোগিতায় তাজু কামরুল ভাইয়ার টেলিফিল্ম ‘ভালোবাসা দুজনার’-এ সুযোগ পাই। অভিনয় করি আমিন খান ও মিমোর সঙ্গে। ”

আর সিনেমা? “টেলিফিল্মটিতে অভিনয় করতে গিয়ে আমিন খান ভাইয়ার সঙ্গে কথা হয় এবং ভীষণ মুগ্ধ হই। সিনেমার প্রতি আগ্রহ জন্মে তখনই। পরিচালক শাহ আলম মণ্ডল তাঁর ‘আপন মানুষ’-এর জন্য নায়িকা খুঁজছিলেন। একদিন ফেসবুকে আমার সঙ্গে কথা বললেন। পরে আমাকে নায়িকা হওয়ার প্রস্তাব দেন। এভাবেই সিনেমায় প্রথম সুযোগটা আসে। ”

এমির প্রতিভায় রীতিমতো মুগ্ধ শাহ আলম মণ্ডল। ‘আপন মানুষ’-এর পর তাঁর ‘শাদা কালো প্রেম’-এ নায়িকা করলেন। দুটিতেই নায়ক বাপ্পী চৌধুরী। গত সপ্তাহে সুযোগ পেলেন সৈকত নাসিরের ‘পাষাণ’-এ, নায়ক কলকাতার ওম। গাজীপুরে এখন ছবিটির শুটিং চলছে। ওমকে নিয়ে একটু বেশিই উচ্ছ্বাস এমির কণ্ঠে—‘আমি তো নতুন, অনেক ভুল করছি। কিন্তু ওম নিজেই অভিনয় করে আমাকে দেখিয়ে দিচ্ছে। ’

‘পাষাণ’-এ নায়িকা ছিলেন পরীমণি। শিডিউল সমস্যার কারণে পরীর বদলে নেওয়া হয় এমিকে। শুটিংয়ের মাত্র এক সপ্তাহ আগে চুক্তিবদ্ধ হওয়ায় এ ছবির জন্য আলাদা কোনো প্রস্তুতি নিতে পারেননি। এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিয়েছেন এই নবাগতা। “পরী আপুর সঙ্গে ‘আপন মানুষ’-এ অভিনয় করেছি। তখন দেখেছি, উনি ভালো অভিনয় করেন। তাই কিছুটা ভয় তো আছেই। খারাপ করলে সবার কথা শুনতে হবে। চ্যালেঞ্জটা এখানেই”—বললেন এমি।

‘পাষাণ’-এ তিনি ক্রাইম রিপোর্টার। এই পেশা সম্পর্কে কোনো পূর্বধারণা নেই এমির। পরিচালকই সব দেখিয়ে-শিখিয়ে-পড়িয়ে দিচ্ছেন। ‘পাষাণ’-এর আগে সৈকত নাসিরের ‘সাকিরা’য় চুক্তিবদ্ধ হয়ে আছেন। নভেম্বর-ডিসেম্বরে এটির শুটিং। নায়ক পশ্চিমবঙ্গের কেউ একজন হবেন।

টেলিফিল্ম ‘ভালোবাসা দুজনা’র পর আরো দুটি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। তবে এখন আর নাটক করতে চান না। এখন তাঁর একটাই স্বপ্ন—বড় পর্দার শীর্ষ নায়িকার আসনটা নিজের দখলে নেবেন। তবে কোনো তাড়াহুড়া নেই, যত সময়ই লাগুক, স্বপ্ন পূরণ হবেই।

অভিনয়ে তাঁর কোনো আইডল নেই। বাবা ব্যবসায়ী, মা গৃহিণী। তিন বছরের ছোট বোন আছে। সাভারের মান্নান কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেছেন।


মন্তব্য