kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


সেরা পরিচালক

হলিউডে এক পাগলা

টানা দুইবার সেরা পরিচালক হওয়ার রেকর্ড গড়লেন আলেহান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতু। এই পরিচালক সম্পর্কে জানাচ্ছেন নুসরাত জাহান

৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



হলিউডে এক পাগলা

২০০১ সালে একটি শর্টফিল্ম তৈরি করেছিলেন ইনারিতু, নাম ‘পাউডার কেইজ’। ওতে দেখিয়েছিলেন পেশাদারির জন্য একজন আলোকচিত্রীকে কতটা ঝুঁকি নিতে হয়।

ওই ছবিতে কাজের বিপরীতে বেঁচে থাকার দায়টাকে ইনারিতু দেখিয়েছেন ভীষণ তুচ্ছ করে। শর্টফিল্মটা তৈরি করেছেন ১৫ বছর হলো। কিন্তু এখনো ইনারিতু নিজের ভেতর লালন করে আছেন সেই চরিত্রটাকে। এখনো তিনি ক্যামেরার পেছনে এক পাগলা। ভয়াবহ শীত কিংবা প্রাকৃতিক আলোতে কাজ করার জেদ; অনেকে আড়ালে থেকে তাচ্ছিল্যের হাসি হেসেছিল নিশ্চয়ই। কিন্তু পর পর দুইবার সেরা পরিচালকের অস্কার জিতে দেখিয়ে দিলেন, সফল হতে হলে আসলে উন্মাদই হতে হয়।

‘আমি যে রকম খ্যাপাটে ধরনের লোক, মাঝেমধ্যে ভয়ংকর মনে হয়। তবে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারত। সব কিছুই বিগড়ে যেতে পারত। প্রতিদিনই অসংখ্য চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে হয়েছে। কিন্তু সৃষ্টির আনন্দ তো তুলনাহীন। ’

এ বছরের শুরুর দিকে ‘দ্য টকস’কে দেওয়া সাক্ষাত্কারে নিজেকে মেলে ধরতে গিয়ে খানিকটা তালগোল পাকালেও আখেরে নিজের একটা পরিচয় মেলাতে পেরেছিলেন ইনারিতু। অতঃপর তিনি আরো বলেন, ‘আমার সবগুলো চলচ্চিত্রই আমার সম্প্রসারিত রূপ। মাঝে মাঝে মনে হয়, বাস্তবতার সঙ্গে মিশে যাচ্ছে। হঠাত্ করেই দেখবেন চলচ্চিত্র আর বাস্তব জীবনের মধ্যে যে সূক্ষ্ম রেখাটা আছে, সেটাও উধাও। ’

ইনারিতুর জন্ম ১৯৬৩ সালের ১৫ আগস্ট মেক্সিকো সিটিতে। একাধারে পরিচালক, প্রযোজক, চিত্রনাট্যকার ও সংগীত পরিচালক। ছবি করেছেন হাতে গোনা। সবই সমালোচকদের জুগিয়েছে রসনার খোরাক। ২০০৪-এর ‘২১ গ্রাম’ ও ২০০৭ সালের ‘ব্যাবেল’ বেশ প্রশংসিত। পরেরটার জন্য প্রথম মেক্সিকান পরিচালক হিসেবে অস্কারে সেরা পরিচালকের মনোনয়ন পান। কানেও সেরা পরিচালকের পুরস্কার পাওয়া প্রথম মেক্সিকান পরিচালক তিনি। আগের বছরও ‘বার্ডম্যান’-এর জন্য পেয়েছেন অস্কার।

ইনারিতুর ছবিগুলো হলো ‘আমোরেস পেররোস’ (২০০০), ‘২১ গ্রামস’ (২০০৩), ‘বাবেল’ (২০০৬), ‘বিউটিফুল’ (২০১০), ‘বার্ডম্যান’ (২০১৪), দ্য রিভেন্যান্ট (২০১৫)।


মন্তব্য