kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সময়ের ভেনোমাস

নবীন ব্যান্ড ভেনোমাস। ২০১৫ সালে প্রকাশিত হয় ব্যান্ডটির প্রথম একক অ্যালবাম ‘মুখোশ’। তিনটি মিক্সড অ্যালবামও রয়েছে। চলতি মাসেই আসছে ব্যান্ডটির নতুন গান। লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন

৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সময়ের ভেনোমাস

‘ভেনোমাস’-এর সদস্যরা হলেন (বাঁ থেকে)—শাওন (ড্রামস), নিলয় (বেজ গিটার), মিলি (ভোকাল), রিয়াদ (ভোকাল), ডিউ (গিটার) ও সাফাত (গিটার)

‘ভোনোমাস’-এর তিন সদস্য—নিলয়, রিয়াদ ও মিলি ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুভেচ্ছার জোয়ারে ভাসছেন! এদিন ইউটিউব ও বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে ১২ ভাষায় প্রকাশিত হয় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’।   আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর লেখা ও শহীদ আলতাফ মাহমুদের সুর করা এ গানটি বহু ভাষায় করার পরিকল্পনা করেন নিলয়।

মাস ছয়েক ধরে বিভিন্ন দেশের শিল্পীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে গানটির অডিও-ভিডিও তৈরি করেন। প্রকাশের পর অনলাইনের মাধ্যমে খুব অল্প সময়েই গানটি ছড়িয়ে যায় সর্বত্র। নিলয়ের এ উদ্যোগের প্রশংসা করেন অনেকেই। গানটিতে গিটারও বাজিয়েছেন নিলয়। এতে অন্য শিল্পীদের পাশাপাশি নিলয়ের সঙ্গে গেয়েছেন ‘ভেনোমাস’-এর আরো দুই সদস্য—রিয়াদ ও মিলি। নিলয় বলেন, ‘গানটি আমার অসম্ভব প্রিয়! গানটি কিভাবে আরো ছড়িয়ে দেওয়া যায়, সেই চিন্তা করতে গিয়েই আইডিয়াটি মাথায় আসে। অনেক চেষ্টার পর সবার সহযোগিতায় শেষ পর্যন্ত সফল। কাজটির জন্য সবার যে রেসপন্স ও ভালোবাসা পেয়েছি, তা কখনো ভুলব না। ’ ‘ভেনোমাস’-এর অন্য তিন সদস্য শাওন, ডিউ ও সাদাত। ২০০৮ সালে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় উদয়ন স্কুলের চার বন্ধু—রাফি, পৃথ্বী, দীপ ও অনিককে নিয়ে ‘ভেনোমাস’ গড়েন নিলয়। পড়াশোনা ও নানা ব্যস্ততায় একেকজন একেক দিকে চলে গেলেও ব্যান্ডটি আগলে রেখেছেন তিনি। ২০১৩ সালে ভেনোমাস-এর গান প্রথম শোনে শ্রোতারা। এ বছর আজব রেকর্ড থেকে প্রকাশিত ব্যান্ড মিক্সড ‘রকোহলিক’-এ প্রকাশ পায় তাদের প্রথম গান ‘মিথ্যে স্বপ্ন’। একই বছর আরো দুটি মিক্সডে আসে তাদের একটি করে গান। ল্যাম্পপোস্ট প্রোডাকশনের ‘ক্রীতদাস’ অ্যালবামে ‘প্রত্যাশা’ ও ‘মিত্র’তে মৌলিক ইংরেজি গান ‘গার্ড অব দ্য হেল’। মিক্সডের গানগুলো দিয়ে ব্যান্ডপিপাসুদের মনে ভালোভাবেই জায়গা করে নেয় ফোক ও এক্সপেরিমেন্টাল রক ধারার এই ব্যান্ড।

২০১৫ সালের জুলাইয়ে আজব রেকর্ড থেকে আসে ব্যান্ডটির প্রথম একক ‘মুখোশ’। নতুন লাইনআপ নিয়ে অ্যালবামটি করে তারা। এতে গান রয়েছে ৯টি। শিরোনাম ‘মিথ্যে স্বপ্ন’, ‘রাত’, ‘প্রত্যাশা’, ‘ডিএসএলআর’, ‘মুখোশ’, ‘গাঙ’, ‘অভিমান’, ‘বিজয়ের নিষ্ঠুরতা’ ও ‘তোমার খোলা হাওয়া’ (রবীন্দ্রসংগীত)। অ্যালবামটি প্রসঙ্গে ব্যান্ডের একমাত্র নারী সদস্য ও দুই ভোকালের একজন মিলি বলেন, ‘আশপাশে চলতে গিয়ে আমরা প্রতিনিয়তই অনেক বিষয়ের মুখোমুখি হই। গানেও সে বিষয়গুলো তুলে আনার চেষ্টা করেছি। গানের মধ্যে আমরা নিজস্ব একটা সাউন্ড তৈরির চেষ্টা করেছি। শ্রোতাদের কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়াও পেয়েছি। ’ চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে বাজারে আসবে ‘রকোহলিক ৩’। এতে ‘অন্তিম ইচ্ছা’ শিরোনামের একটি গান থাকছে তাদের।

রেডিও ও টেলিভিশনে এরই মধ্যে কয়েকটি শো করেছে ‘ভেনোমাস’। এখন পর্যন্ত স্টেজে দুটি অনুষ্ঠানে বাজিয়েছে তারা। একটি টিএসসিতে, অন্যটি রাইফেলস কলেজে। স্টেজে নিয়মিত হওয়ার জন্য নিজেদের আরো প্রস্তুত করছেন বলে জানান ব্যান্ডের সদস্যরা।

সময়টা কেমন এনজয় করছেন?  ব্যান্ডের আরেক ভোকাল রিয়াদ বলেন, ‘দুর্দান্ত! গানকে ভালোবাসি বলেই এত কষ্ট, এত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। ’ পথচলার এই সময়টা কেমন ছিল? বলেন, ‘এককথায় খুবই কঠিন! বর্তমানে ব্যান্ড করে টিকে থাকা অনেক কষ্টের। নতুন ব্যান্ড বলে আমরা এখনো আর্থিকভাবে সচ্ছল না। গান বানানো, রেকর্ডিং, প্র্যাকটিসসহ অন্যান্য খরচ নিজেদেরই বহন করতে হয়। তবে ভবিষ্যতের আশায় সব করে যাচ্ছি। ’

‘ভেনোমাস’কে নিয়ে স্বপ্ন কী? ‘একুশে ফেব্রুয়ারি গানটি করতে গিয়ে দেশের বাইরের অনেক শিল্পীর সঙ্গে সখ্য হয়েছে। তাঁদের নিয়ে কাজ করতে চাই। বাংলা গানকে আরো অনেক দূর নিয়ে যেতে চাই’—বলছিলেন নিলয়।


মন্তব্য