kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


অভিনয়ের সৌমি

শুরুটা লাক্স সুন্দরী প্রতিযোগিতা দিয়ে। এরপর টিভি নাটকে অভিনয়। নাম লিখিয়েছেন চলচ্চিত্রেও। সেমন্তী সৌমিকে নিয়ে লিখেছেন মীর রাকিব হাসান। ছবি তুলেছেন তারেক আজিজ নিশক

৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



অভিনয়ের সৌমি

বাবা পশ্চিমবঙ্গের, মা বাংলাদেশি। আত্মীয়স্বজন বেশির ভাগই কলকাতায়।

জন্ম ও শৈশব কলকাতায়, কৈশোর থেকে আছেন বাংলাদেশে। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের পর এখন বিবিএ করছেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে। পারিবারিক রেওয়াজ অনুযায়ী ছোটবেলায়ই শিখেছেন নাচ-গান। শোবিজে কাজ করার ইচ্ছাটা তখন থেকেই। ‘বাসায় কোনো গান বাজলেই নেচে মাতিয়ে রাখতাম। মা-বাবা ধরেই নিয়েছিলেন, আমি শোবিজে ভালো করব। তাঁদের কোনো বিধিনিষেধ ছিল না। বিশেষ করে মা আর ছোট বোন অনেক সহযোগিতা করেছে’—বললেন সৌমি।

অভিনয় আর মডেলিংয়ের শখ, কিন্তু সুযোগ খুঁজে পাচ্ছিলেন না। প্ল্যাটফর্ম পেলেন লাক্স-চ্যানেল আই প্রতিযোগিতায়। কলেজের গণ্ডি পার হওয়ার আগেই নাম লেখালেন এই প্রতিযোগিতায়। প্রাপ্তিটা খুব বেশি ছিল না। সেরা দশে জায়গা হয়েছিল, ব্যস। শোবিজের লোকজনের কাছে পরিচিতি পেয়েছেন, এটাকেই বড় প্রাপ্তি বলে মনে করেন।

‘লাক্স আমাকে নিয়মশৃঙ্খলা শিখিয়েছে। হাঁটাচলা থেকে শুরু করে কথা বলা পর্যন্ত শিখিয়েছে। ওদের কাছে আজীবন কৃতজ্ঞ’—যোগ করলেন সৌমি।

লাক্স প্রতিযোগিতা থেকে বের হওয়ার পর পড়ালেখায় মনোযোগী হন। টুকটাক মডেলিং করলেও অভিনয় থেকে দূরেই ছিলেন। মডেলিংয়ে নিজের জায়গা তৈরি করার পর মনোযোগী হন অভিনয়ে। করেছেন বেশ কিছু একক ও ধারাবাহিক নাটক। “শুরুর দিকে অভিনয়টা বেশ কঠিন মনে হতো। সিনিয়র পরিচালক, অভিনেতা-অভিনেত্রীরা হাতে ধরে কাজ শিখিয়েছেন। যেমন—পরিচালক সাইফুল ইসলাম মান্নু ভাই তাঁর ‘চলো হারিয়ে যাই’ ধারাবাহিকটি করার সময় আমাকে নিয়ে অনেক কষ্ট করেছেন। একটু একটু করে অভিনয়টা শিখিয়েছেন। এ রকম বেশ কয়েকজনেরই সাহায্য পেয়েছি”—বললেন সৌমি।

বর্তমানে অভিনয় করছেন দুটি ধারাবাহিক নাটকে—মাতিয়া বানু শুকুর ‘আগুন আল্পনা’ ও মাসুদ মহিউদ্দীনের ‘নগর ঝোনাকি’। দুটিই এখন টেলিভিশনে প্রচারিত হচ্ছে। সামনে প্রচারিত হবে ফারুক আহমেদের নতুন একটি ধারাবাহিক। ঈদের কিছু একক নাটকের কথা চলছে, সামনেই এগুলোর শুটিং করবেন।

বড় পর্দায়ও নাম লিখিয়েছেন। অভিনয় করেছেন অনন্য মামুনের ‘অস্তিত্ব’তে। মামুন তাঁর পূর্বপরিচিত। হঠাৎ করেই সৌমিকে বললেন, তাঁর নতুন ছবিতে কাজ করতে হবে। গল্প কী, চরিত্র কী—সেটা ছবির সেটে জানানো হবে। তিনি শুধু জানতে পারলেন, চলচ্চিত্রটিতে তিশা আর আরিফিন শুভ অভিনয় করবেন। এই দুজনের নাম শুনে ভরসা পেলেন, ভালো কিছুই হবে। ‘ছবিতে আমার সহশিল্পী জোভান। সেও বেশ ভালো করেছে। ছবির একটি গানের ভিডিও অনলাইনে প্রকাশিত হয়েছে, যা বেশ সাড়া জাগিয়েছে। ভালো প্রশংসা পাচ্ছি। শিগগিরই মুক্তি পাবে ছবিটি’—জানালেন সৌমি।


মন্তব্য