kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ক্লাব ডির সোমা

২০১২-তে লাক্স-চ্যানেল আই প্রতিযোগিতার সেরা পাঁচে ছিলেন। অভিনয়ে নিয়মিত হয়েছেন গত বছর। সাদিয়া আরজুমান্দ বানু সোমাকে নিয়ে লিখেছেন মীর রাকিব হাসান। ছবি তুলেছেন সুমন ইসলাম আকাশ

৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ক্লাব ডির সোমা

ছোটবেলা থেকেই টিভির পোকা। মায়ের কাছে আবদার রাখতেন—এক ঘণ্টা পড়বেন, তারপর আধঘণ্টা টিভি দেখবেন।

টিভি নাটক দেখতে দেখতেই প্রেমে পড়লেন অভিনয়ের। ২০১২ সালের ঘটনা। কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে সবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছেন। পড়াশোনা, ক্লাস, বাসা—সব মিলিয়ে একঘেয়ে লাগছিল। ফেসবুকের বদৌলতে খোঁজ মিলল লাক্স-চ্যানেল আই প্রতিযোগিতার। নাম লেখানোর আগের দিনরাত এক এক করে ইউটিউব ঘেঁটে প্রতিযোগিতার আগের সিজনের যত ভিডিও পাওয়া গেল, সব দেখলেন। দেখে নিজে নিজেই অনুশীলন করলেন। প্রথম পর্বে খুব কঠিন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়নি। সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি, সুবর্ণা মুস্তাফার হাত থেকে ‘ইয়েস কার্ড’ পাওয়া। এরপর আরো কয়েকটি পর্ব পেরিয়ে ক্যাম্প রাউন্ড। ‘সেখানে খুব বোরিং লাগছিল। বাসার সঙ্গে যোগাযোগ করা যাবে না— এমন অনেক নিয়ম। তিন মাসের জার্নি। লেখাপড়ায়ও গ্যাপ পড়ল। প্রথম দিকে বন্ধুও তেমন হয়নি। একবার তো চলে আসতেই চাইছিলাম। কর্তৃপক্ষ নানাভাবে বুঝিয়েসুঝিয়ে রাখল। শেষ পর্যন্ত সেরা পাঁচেও ছিলাম’—বললেন সোমা।

অভিনয় শুরু করেন পরের বছরই। তবে মাঝখানে লেখাপড়ার জন্য বিরতি দিয়েছিলেন। এখন আবার ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। দুটি ধারাবাহিক নাটক প্রচারিত হচ্ছে তাঁর—মাসুদ মহিউদ্দীনের ‘নগর জোনাকি’ ও আকরাম খানের ‘হাউজওয়াইভস’। দুটি ধারাবাহিকেই ভিন্ন দুই রূপে। ‘নগর জোনাকি’তে নরম স্বভাবের মেয়ে। চাকরি খুঁজে বেড়ায় সারাক্ষণ। তাকে কেউ সাহায্য করে না। অবশ্য কিছুদিন পর এর পরিবর্তন ঘটবে। করপোরেট চাকরিতে ঢুকে রাফ অ্যান্ড টাফ হয়ে যাবেন। দ্বিতীয় নাটকটিতে সোমা প্রতিশোধপরায়ণ। সত্মা আর বোনের অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে মরিয়া। এই চরিত্রটাই আবার কিছুদিন পর বদলে অনেক নরম স্বভাবের হয়ে যাবে। শিগগিরই নতুন একটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করবেন।

বড় পর্দায়ও নাম লিখেয়েছেন, মিজানুর রহমান লাবুর ‘ক্লাব ডি’তে। এখানে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত থাই মেয়ে সোমা। থ্রিলার ক্রাইম এ ছবির ৮০ শতাংশ শুটিং হয়েছে থাইল্যান্ডে। এ মাসেই হবে বাংলাদেশ পর্বের শুটিং।

জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকায়ই। পড়ছেন বিবিএ শেষ বর্ষে। ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে দেশের বাইরে পড়তে চান। অভিনয় নিয়ে ভবিষ্যত্ পরিকল্পনা? ‘বড় পর্দায় নিয়মিত হতে চাই। ছোট পর্দায় তো মাসের ১৫ দিনই ব্যস্ত থাকতে হয়। ভালো অফার পেলে ব্যস্ততা আরো বাড়াব’—বললেন সোমা।


মন্তব্য